চলন্ত গাড়িতে রড ছোড়ার পর ডাকাতি

আজাদী অনলাইন

শুক্রবার , ১২ অক্টোবর, ২০১৮ at ৯:৩৬ অপরাহ্ণ
342

চলন্ত গাড়িতে রড ছুড়ে মারে তারা। চালক গাড়িতে কোনো সমস্যা হয়েছে মনে করে থামালেই পড়ে যায় ডাকাতের কবলে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ড এলাকায় এমন ১০ থেকে ১২ সদস্যের একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ।

সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘মহাসড়কের সীতাকুণ্ড এলাকায় ডাকাতি করে এমন একটি ডাকাত দলের সন্ধান পেয়েছি। তারা চলন্ত গাড়িতে রড ছুড়ে মারে। চালক গাড়িতে সমস্যা হয়েছে মনে করে গাড়ি থামালেই পড়ে এ ডাকাতদলের কবলে। তারা টার্গেট করে ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান যেগুলো অন্য জেলা থেকে চট্টগ্রামে ভাড়া নিয়ে আসে। ফেরত যাওয়ার পথে তারা এসব গাড়িকে টার্গেট করে।’ বাংলানিউজ

বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) ভোরে সীতাকুণ্ডের মান্দারিতোলা এলাকায় একটি ডাকাতির ঘটনা তদন্তকালে এ ডাকাতদলের তথ্য পায় পুলিশ।

বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে এ ডাকাতদলের সদস্যদের হাতে ছুরিকাঘাতে নিহত হন ট্রাকচালক সরওয়ার আলম। পরে এ ঘটনায় জড়িত মো. জসিম (২৬) ও মো. রুবেলকে (২৫) গ্রেফতার করে পুলিশ।

আজ শুক্রবার (১২ অক্টোবর) বিকেলে চট্টগ্রামের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শিবলু কুমার দে’র আদালতে মো. জসিম ও মো. রুবেল ঘটনার বর্ণনা দিয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের কোর্ট পরিদর্শক বিজন কুমার বড়ুয়া বলেন, ‘সীতাকুণ্ডে ডাকাতি করতে গিয়ে এক ট্রাকচালককে খুন করার ঘটনায় গ্রেফতার দুই যুবক শুক্রবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শিবলু কুমার দে’র আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।’

ওসি মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘ঘটনার পর রুবেলকে বাড়বকুণ্ডের নিজবাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্যে জসিমকে গ্রেফতার করা হয়। জসিম ও রুবেলের কাছ থেকে ছিনতাই হওয়া ৬ হাজার ২০০ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। রুবেলের কাছে পাওয়া গেছে ৩ হাজার ২০০ টাকা এবং জসিমের কাছে ৩ হাজার টাকা। এ টাকা ডাকাতির পর তারা ভাগে পেয়েছিল।

এ ডাকাতদলের অন্য সদস্যদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলেও জানান সীতাকুণ্ড থানার ওসি।

x