চন্দনাইশে যাত্রীবাহী বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ৫

চন্দনাইশ প্রতিনিধি

রবিবার , ২৫ আগস্ট, ২০১৯ at ৮:৪২ অপরাহ্ণ
194

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চন্দনাইশ উপজেলার হাশিমপুর বাগিচাহাটস্থ বাইন্না পুকুরপাড় এলাকায় যাত্রীবাহী বাস ও চার চাকার লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় লেগুনা চালকসহ কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। আজ রবিবার (২৫ আগস্ট) বিকেল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে দুইজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কক্সবাজার থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামমুখী সৌদিয়া পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস (নং- চট্ট-মেট্রো-ব- ১১-০৬৫৯) উপজেলার বাইন্না পুকুরপাড় এলাকায় আসলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী চার চাকার লেগুনা (নং- চট্ট-মেট্রো- ছ- ১১-২৯৬৮)-এর সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে লেগুনার সামনের অংশ দুমড়ে-মুচড়ে গিয়ে লেগুনার চালকসহ ৩ যাত্রী গুরুতর আহত হয়।

এসময় সৌদিয়া পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসটিও সড়কের পাশে কাত হয়ে পড়ে। তবে বাসটি উল্টে বিলে না পড়ায় অসংখ্য যাত্রী হতাহত হওয়া থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পায়।

এ ঘটনায় আহতরা হলেন লেগুনা চালক সাতকানিয়া উপজেলার মরফলা বাজার এলাকার দিদারুল ইসলাম হৃদয় (২১) এবং লেগুনার যাত্রী একই উপজেলার খাগরিয়া ইউনিয়নের মো. হেলাল উদ্দীন (২০) ও চন্দনাইশ উপজেলার পাঠানদণ্ডি এলাকার জান্নাতুল ফেরদৌস (২৬)।

চন্দনাইশে বাস-লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষের পর রাস্তার পাশে কাত হয়ে পড়া বাস

দুর্ঘটনার পরপর চন্দনাইশ দমকল বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় উদ্ধার অভিযান চালায়।

এসময় আহতদের প্রথমে বিজিসি ট্রাস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে প্রাথমিক চিকিৎসার পর লেগুনা চালক দিদারুল ইসলাম হৃদয় এবং জান্নাতুল ফেরদৌসকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। তাদের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।

আহত অপর ২ জন স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়ে চলে যাওয়ায় তাদের নাম-ঠিকানা পাওয়া যায়নি।

দুর্ঘটনার পরপর চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে দোহাজারী হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েক দুর্ঘটনা কবলিত লেগুনাটি মহাসড়ক থেকে দ্রুত সরিয়ে নেয়ায় যানজট দ্রুত নিয়ন্ত্রণে আসে। এসময় পুলিশ লেগুনা ও যাত্রীবাহী বাসটি জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে।

দোহাজারী হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আহসান হাবিব সাংবাদিকদের কাছে দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

x