চট্টগ্রামে ব্যাপক আয়োজনে উল্টো রথযাত্রা

আজাদী ডেস্ক

সোমবার , ২৩ জুলাই, ২০১৮ at ৫:৫২ পূর্বাহ্ণ
67

উল্টো রথযাত্রার মধ্য দিয়ে গতকাল শেষ হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা ও রথমেলা উৎসব। গত ১৩ জুলাই জগন্নাথ দেবের রথ টানার মধ্য দিয়ে এই উৎসব শুরু হয়। প্রতি বছর আষাঢ় মাসের শুক্লপক্ষের দ্বিতীয়া তিথিতে এ রথযাত্রা উৎসব পালন করেন সনাতন ধর্মালম্বীরা।

রাধামাধব মন্দির ও গৌর নিতাই আশ্রম : নন্দনকানন রাধামাধব মন্দির ও গৌর নিতাই আশ্রম সম্মুখে গতকাল কেন্দ্রীয় উল্টো রথযাত্রার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন বলেন, বর্তমান সরকার ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের অধিকার রক্ষায় দৃঢ় অঙ্গিকারবদ্ধ এবং বিভিন্ন ধর্মীয় বিশ্বাসীদের মাঝে সংলাপকে উৎসাহিত করে। এদেশে কোনো ধর্মকে আলাদা চোখে দেখার সুযোগ নেই। সবাইকে এক মনমানসিকতা নিয়ে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে হবে।

উদ্বোধকের বক্তব্যে সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম বলেন, হিন্দুমুসলিমবৌদ্ধখ্রিস্টান সহ সব ধর্মের মানুষকে নিয়ে দেশে উন্নয়নের কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সমাজের ভালো মানুষজন সংগঠিত হলে অশুভ শক্তি আর অপরাধ করার সুযোগ পাবে না। সেজন্য সবাইকে সংঘবদ্ধ হয়ে অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এড. রানা দাশগুপ্ত। আশীর্বাদক ছিলেন মায়াপুর ইস্‌কনের সন্যাসী অমিয় বিলাস স্বামী মহারাজ, ভক্তিপ্রিয়ম গদাধর গোস্বামী মহারাজ। নন্দনকানন ইস্‌কন মন্দিরের সভাপতি পণ্ডিত গদাধর দাস ব্রহ্মচারীর সভাপতিত্বে ও সুমন চৌধুরীর সঞ্চালনায় এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নন্দনকানন ইসকন মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক তারণ নিত্যানন্দ দাস ব্রহ্মচারী। বিশেষ অতিথি ছিলেন মায়াপুর ইনস্টিটিউটের বাংলা বিভাগের প্রধান তারক কৃষ্ণ নাম দাস ব্রহ্মচারী, চিন্ময়কৃষ্ণ দাস ব্রহ্মচারী, প্রফুল্ল রঞ্জন সিংহ, এড. চন্দন তালুকদার, এড. নিতাই প্রসাদ ঘোষ, দিলীপ মজুমদার, এড. তপন কান্তি দাশ, নিতাই দাস, কাউন্সিলর নিলু নাগ, শচীনন্দন গোস্বামী, প্রকৌশলী আশুতোষ দাশ, সাধন ধর, বিদ্যালাল শীল, অরবিন্দ পাল অরুণ, রত্নাকর দাশ টুনু, অধ্যাপক বনগোপাল চৌধুরী, এড. স্বরূপ পাল। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ সর্বমঙ্গল গৌর দাস ব্রহ্মচারী, গৌর দাস ব্রহ্মচারী, মুকুন্দ ভক্তি দাস ব্রহ্মচারী, বলরাম করুনা দাস, সুবল সখা দাস ব্রহ্মচারী, শেষরুপ দাস ব্রহ্মচারী, অপূর্ব মনোহর দাস ব্রহ্মচারী, বলরাম শ্যাম দাস, প্রকৌশলী অমিত ধর, সত্যতীর্থ দাস, কিশোর সরকার প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে শোভাযাত্রা নন্দনকাননস্থ গৌর নিতাই আশ্রম সম্মুখে ডিসি হিল প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে নন্দনকানন রাধামাধব মন্দির এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলার হাজার হাজার নারীপুরুষ ব্যানার, প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন, পৌরাণিক সাজ ও বাদ্যযন্ত্র নিয়ে যোগদান করেন।

ইস্‌কন চট্টগ্রাম প্রবর্তক সংঘ : সনাতন সম্প্রদায়ের হাজার হাজার নরনারী ‘জয় জগন্নাথ, জয় জগন্নাথ’ ধ্বনিতে ঢাকঢোল, শংঙ্খ, মৃদঙ্গের তালে বিভিন্ন রকমের পৌরাণিক সাজে সজ্জিত হয়ে ও হরিনাম সংকীর্তন সহযোগে রথের দড়ি টেনে নগরীর হাজারী লেইনস্থ কে.সি.দে রোড হয়ে নগরীর আন্দরকিল্লা, চেরাগী পাহাড়, জামালখাঁন মোড়, কাজীর দেউড়ি, চট্টেশ্বরী, গোলপাহাড় মোড় ও প্রবর্তক মোড় হয়ে ইস্‌কন প্রবর্তক মন্দিরে প্রবেশ করেন। তিনটি রথে জগন্নাথ, বলদেব ও সুভদ্রা মহারাণী আরোহনের মাধ্যমে শোভাযাত্রা শুরু হয়। শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন মায়াপুর হতে আগত তারক কৃষ্ণ নাম দাস ব্রহ্মচারী। সন্ধ্যায় মন্দিরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

এর আগে বিকাল ৩টায় নগরীর শহীদ মিনার এলাকায় প্রবর্তক সংঘের সহ সভাপতি ডা. রনজিত দে’র সভাপতিত্বে জগন্নাথদেবের রথযাত্রার তাৎপর্য শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলাচরণ ও শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন লীলারাজ গৌর দাস ব্রহ্মচারী। এছাড়া স্বাগত বক্তব্য রাখেন তিনকড়ি চক্রবর্তী, কাউন্সিলর জহর লাল হাজারী, ইন্দুনন্দন দত্ত, চন্দন ধর, সুবোধ কুমার দত্ত, অমল চন্দ্র দাস, আশুতোষ মহাজন, মুক্তিযোদ্ধা অসিত সেন, নির্মল দেবনাথ লিটন, লায়ন রাখাল মুহুরী, দারুব্রহ্ম জগন্নাথ দাস ব্রহ্মচারী, স্বতন্ত্র গৌরাঙ্গ দাস ব্রহ্মচারী, রূপেশ্বর গৌরাঙ্গ দাস ব্রহ্মচারী। আশীর্বাদক ছিলেন বৃন্দাবন থেকে আগত চৈতন্য দাস ব্রহ্মচারী।

কেন্দ্রীয় রথযাত্রা কমিটি : নন্দনকাননস্থ রথের পুকুর পাড় তুলসীধামে কেন্দ্রীয় রথযাত্রা উৎসব উদযাপন কমিটির উদ্যোগে উল্টো রথযাত্রা উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। তুলসীধামের মোহন্ত দেবদীপ পুরীর পৌরহিত্যে সভায় বক্তব্য রাখেন যোগেশ্বর চৌধুরী, ডা. মনোজ চৌধুরী, স্থপতি প্রণত মিত্র চৌধুরী, সুধীন্দ্র নাথ দত্ত, লক্ষ্মীপদ দাশ, উত্তম দাশ, সোনারাম ধর, প্রবীর দাশ প্রমুখ। সভা শেষে উল্টো রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।

x