চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে স্টুডেন্ট বাস সার্ভিস

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

শুকলাল দাশ

মঙ্গলবার , ১৬ এপ্রিল, ২০১৯ at ৬:৩৬ পূর্বাহ্ণ
537

চট্টগ্রাম মহানগরীতে অধ্যয়নরত স্কুল শিক্ষার্থীদের নিরাপদ যাতায়াতের জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বিআরটিসির ১০টি বাসের সমন্বয়ে চালু হতে যাচ্ছে ‘স্টুডেন্ট বাস সার্ভিস’। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে এ ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়ে একটি চিঠি চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠানো হয়েছে। ফলে এখন সবার সাথে সমন্বয় করে স্কুল টাইমে কোন কোন রুটে বাসগুলো চলবে তা শীঘ্রই ঠিক করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন।
চট্টগ্রামের স্কুল শিক্ষার্থীদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল- নিরাপদ সড়ক ও স্কুল বাসের। অবশেষে খুদে শিক্ষার্থীদের সেই দাবি পূরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইতোমধ্যে বিআরটিসির ১০টি অত্যাধুনিক বাস বরাদ্দের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়কে। স্কুল চলাকালীন নগরীর বিভিন্ন রুটে শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ গন্তব্যে নিয়ে যাবে এসব বাস। প্রধানমন্ত্রীর এ মানবিক উদ্যোগের ফলে চট্টগ্রাম মহানগরীর সকল সরকারি ও বেসরকারি স্কুল শিক্ষার্থীরা নিরাপদে স্কুলে যেতে এবং স্কুল থেকে বাসায় ফিরতে পারবে বলে আজাদীকে জানিয়েছেন নগরীর বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক-অভিভাবকরা।
এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন গতকাল রাতে আজাদীকে জানান, চট্টগ্রামে স্কুল ছাত্ররা স্কুল বাস ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে দীর্ঘদিন আন্দোলন করেছিল। তাদের এই দাবির প্রেক্ষিতে নিরাপদ যাতায়াতে বিআরটিসির ১০টি বাস চালুর জন্য প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব-১ মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবের কাছে বাস সার্ভিস চালুর জন্য একটি চিঠি দিয়েছেন। ওই চিঠির অনুলিপি আমাকে (জেলা প্রশাসক), চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে ও জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে পাঠানো হয়েছে। বাসগুলো নগরীতে সমন্বয় করে চালুর উদ্যোগ নেবো। কোন কোন রুটে বাসগুলো চলবে তা সংশ্লিষ্ট সবার সাথে বসে নির্ধারণ করা হবে। এ ব্যাপারে আমরা একটি নীতিমালা করবো। বাসগুলো শুধু স্কুল সময়ের মধ্যে চলবে। স্কুল যেদিন বন্ধ থাকবে সেদিন চলবে না।এ ব্যাপারে ‘চট্টগ্রাম স্কুল বাস সার্ভিস ও হাফ ভাড়া আন্দোলনের’ নেতা নূরুল আজিম রনি বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে নগরীর সরকারি স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্য বাস সার্ভিস ও সকল শিক্ষার্থীর জন্য পাবলিক বাসে ‘হাফ ভাড়া’ চালুর দাবি জানিয়ে আসছিলাম। এ নিয়ে অনেক আন্দোলন সংগ্রাম করেছি। এ বিষয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকেও স্মারকলিপি দিয়েছিলাম। অবশেষে আমাদের দাবির প্রেক্ষিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের জন্য ১০টি বাস চালুর নির্দেশ দিয়েছেন। জেলা প্রশাসককে পাঠানো প্রধানমন্ত্রীর দফতরের চিঠির কপিও আমারা পেয়েছি। শীঘ্রই আমরা প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল করব।

x