চকরিয়ায় আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর

চকরিয়া প্রতিনিধি

শুক্রবার , ২১ ডিসেম্বর, ২০১৮ at ৬:৩৪ অপরাহ্ণ
319

কক্সবাজারের চকরিয়ায় অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে কক্সবাজার-১ আসনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের প্রার্থী নৌকা প্রতীকের জাফর আলমের নির্বাচনী কার্যালয়ে।

বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডে স্থাপিত নৌকা প্রতীকের এই নির্বাচনী কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে আজ শুক্রবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে। স্থানীয় আওয়ামীলীগ এ ঘটনায় দায়ি করেছে বিএনপিকে।

খুটাখালী ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম দাবি করেছেন, নৌকা প্রতীকের প্রচারণা ও স্থানীয় ভোটারদের বসার জন্য কয়েকদিন আগে তার ওয়ার্ডে স্থাপন করা হয় নির্বাচনী কার্যালয়। এটির উদ্বোধন করেন কক্সবাজার-১ আসনে নৌকার প্রার্থী জাফর আলম। এর পর কয়েকদিন ধরে সেখানে নির্বাচনী আড্ডাসহ এলাকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের জন্য নৌকা প্রতীকের পক্ষে ভোট চেয়ে বিভিন্ন গান-বাজনা শোনানো হয় ভোটারদের। কিন্তু বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতের কোনো একসময় দাহ্য পদার্থ ঢেলে আগুন দেয়া হলে পুড়ে যায় নির্বাচনী কার্যালয়ের কিছু অংশ। এ সময় ভাঙচুর করা
হয় কার্যালয়ের ভেতর রক্ষিত চেয়ারসহ বিভিন্ন আসবাবপত্রও। তবে স্থানীয় লোকজন আঁচ করতে পেরে তাৎক্ষণিক আগুন নিভিয়ে ফেলায় বড় ধরনের অগ্নিকাণ্ড থেকে আশপাশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো রক্ষা পায়।

খুটাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বেলাল আজাদ অভিযোগ করেন, একসময়ের বিএনপির ঘাঁটি খুটাখালীতে নৌকার পক্ষে গণজোয়ার শুরু হয়েছে। তাই স্থানীয় বিএনপি বিষয়টিকে ভালভাবে নিচ্ছে না। এ কারণে নির্বাচনী কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ করেছে বিএনপির লোকজন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘খুটাখালীতে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ প্রাপ্তিসাপেক্ষে
প্রয়োজনীয় আইগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

উল্লেখ্য, ইতোপূর্বে উপজেলার লক্ষ্যারচর, ঢেমুশিয়া, বরইতলী, চিরিঙ্গাসহ বিভিন্ন স্থানে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কার্যালয় ও প্রচারগাড়িতে অগ্নিসংযোগ, হামলা, ভাঙচুর ও গুলি চালানোর একাধিক ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় বিএনপি জড়িত রয়েছে বলে আওয়ামী লীগ দাবি করে আসছে।

x