গোলাম রহমান: শিশু সাহিত্যে ও সাংবাদিকতায় অনন্য

শনিবার , ১২ জানুয়ারি, ২০১৯ at ৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ
48

পঞ্চাশ ও ষাটের দশকে শিশু সাহিত্য রচনায় যাঁরা বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন তাঁদের মধ্যে গোলাম রহমানের নাম উল্লেখযোগ্য। বড়দের জন্যও তিনি লেখালেখি করেছেন। আজ তাঁর ৪৭তম মৃত্যুবার্ষিকী।
গোলাম রহমানের জন্ম ১৯৩১ সালের ২৮ নভেম্বর কলকাতায়। ১৯৫০ সালে সামপ্রদায়িক দাঙ্গার সময় বাংলাদেশে চলে আসেন। সে সময় তিনি ছিলেন সুরেন্দ্রনাথ কলেজের ছাত্র। ঢাকায় এসে ভর্তি হন জগন্নাথ কলেজে। গোলাম রহমান পেশায় ছিলেন সাংবাদিক।
ঢাকা থেকে প্রকাশিত সে সময়কার প্রায় সব পত্রিকাতেই তিনি কখনো না কখনো যুক্ত ছিলেন। তবে সাংবাদিকতার সূচনা কলকাতা থেকে প্রকাশিত দৈনিক ইত্তেহাদ এবং দৈনিক ইনসাফ পত্রিকায় শিশুদের পাতা ও সাহিত্য সাময়িকী সম্পাদনার মাধ্যমে।
ছোটদের জন্য ‘মধুমালা’ নামে একটি মাসিক পত্রিকার সম্পাদনাও করেছেন তিনি। গোলাম রহমান রচিত শিশুতোষ গ্রন্থগুলোর মধ্যে ‘আজব দেশে এলিস’, ‘রকম ফের’, ‘বাড়ি নিয়ে বাড়াবাড়ি’, ‘পানুর পাঠশালা’, ‘বুদ্ধির ঢেঁকি’ ও ‘চকমকি’ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।
তাঁর অন্যান্য রচনার মধ্যে ‘আমাদের বীর সংগ্রামী’, ‘নেতা ও রাণী’, ‘জীবনের বিচিত্রা’ ইত্যাদি প্রবন্ধ গ্রন্থ এবং ‘চেনামুখ’ নামে একটি নাটক রয়েছে। ১৯৬৯ সালে শিশু সাহিত্যে তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।১৯৭২ সালের ১২ জানুয়ারি গোলাম রহমান আততায়ীর হাতে নিহত হন। তাঁর প্রকাশিত ও অপ্রকাশিত বেশ কিছু রচনা নিয়ে বাংলা একাডেমি প্রকাশ করেছে ‘গোলাম রহমান রচনাবলী’। এটি শহীদ বুদ্ধিজীবী রচনাবলী প্রকল্পের অধীনে চার খণ্ডে প্রকাশিত হয়েছে।

x