ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী কোটা পুনর্বহালের দাবিতে ৩ দিনের কর্মসূচি

আজাদী প্রতিবেদন

শুক্রবার , ১২ অক্টোবর, ২০১৮ at ৮:১০ পূর্বাহ্ণ
38

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য সংরক্ষিত ৫ শতাংশ কোটা পুনর্বহালের দাবিতে তিনদিনের বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)। গতকাল বিকালে প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ ঘোষণা দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম মহানগর শাখার ছাত্র নেতারা।
কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, আজ শুক্রবার বিকাল ৪টায় নগরীর চেরাগী পাহাড় মোড়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ। রোববার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সামনে মানববন্ধন এবং মঙ্গলবার নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান।
পিসিপি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সুনয়ন চাকমা সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, পাহাড় ও সমতলের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিদের সাথে কোনো প্রকার আলোচনা ছাড়াই তাঁদের জন্য সংরক্ষিত ৫ শতাংশ কোটা বাতিলের অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ সিদ্ধান্ত সংবিধানের ২৩ ক, ১৯, ২৭, ২৮ ও ২৯ অনুচ্ছেদের পরিপন্থীও বলে দাবি করেন পিসিপির এ নেতা। পিসিপি সভাপতি আরও বলেন, সরকার কর্তৃক সংরক্ষিত কোটা ব্যবস্থার কল্যাণে পাহাড় ও সমতলের সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠী স্বাধীনতার পর থেকে শিক্ষা ও চাকরির ক্ষেত্রে অনেকটা অগ্রসর হয়েছে। কিন্তু দেশের অন্যান্য অগ্রসর জনগোষ্ঠীর সাথে এর তুলনা করা ঠিক হবে না। তিনি বলেন, কোনো কোনো জাতিগোষ্ঠী শিক্ষা, চাকরি ও অর্থনৈতিক দিক দিয়ে এখনো অনেক পিছিয়ে রয়েছে। এছাড়া কিছু কিছু জাতিগোষ্ঠী কেবলমাত্র আধুনিক শিক্ষা গ্রহণে উদ্যোগী ও আগ্রহী হয়েছে। তাই সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা বাতিল করা হলে তাদের এই অগ্রগতি দারুণভাবে বাধাগ্রস্ত হবে। এ সময় পিসিপি নেতারা ন্যায্য দাবি আদায় কর্মসূচিতে দেশের সকল রাজনৈতিক দল, ছাত্র সংগঠন, লেখক, শিক্ষক, বুদ্ধিজীবী ও সাংবাদিক সহ সর্বস্তরের জনগণের সমর্থন কামনা করেন।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ পিসিপি চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি হ্লাচিংমং মারমা ও সাধারণ সম্পাদক অমিত চাকমা, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার দপ্তর সম্পাদক অর্পণ চাকমা, সহ-দপ্তর সম্পাদক ক্লিনটন চাকমা, সহ-তথ্য প্রচার সম্পাদক ত্রিরত্ন চাকমা প্রমুখ।

x