কিরনের আগুনে পুড়ছে দেশের ক্রীড়াঙ্গন

ক্রীড়া প্রতিবেদক

শুক্রবার , ১৫ মার্চ, ২০১৯ at ১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ
60

মাহফুজা আকতার কিরন। দেশের ফুটবলে পরিচিত এক নাম। ফিফার সদস্য, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাহি সদস্য, মহিলা ফুটবল উইং এর চেয়ারম্যান। কিন্তু এই ফুটবল সংগঠক মাঝে মাঝে শিরোনাম হন বেফাঁস মনত্মব্য করে। কিছুদিন আগেও একবার প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কটুক্তি করে সমলোচনার মুখে পড়েছিলেন। এবার আবার প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে করে বসলেন কটুক্তি। তবে আগের বার পার পেলেও এবারে আর পার পাচ্ছেন না কিরন। এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। হয়েছে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি। সেখানেই থেমে নেই কিরনের বিরূদ্ধে বিক্ষোভের আগুন। সে আগুণ যেন ছড়িয়ে পড়েছে দেশের ক্রীড়াঙ্গনে। যার শুরুটা হলো চট্টগ্রাম থেকে। গতকাল মাহফুজা আকতার কিরনের শাসিত্মর দাবিতে চট্টগ্রাম এম.এ.আজিজ ষ্টেডিয়াম চত্বরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ক্রীড়া সংগঠক এবং সর্বস্তারের ক্রীড়ামোদিরা। উক্ত বিক্ষোভ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংগঠক পরিষদের সভাপতি এবং সিটি মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দীন। কর্মসুচিতে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল এসোসিয়েশনের মহাসচিব তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিন, বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংগঠক পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজউদ্দিন মো. আলমগীর, বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ও প্রেস ক্লাব সভাপতি আলহাজ্ব আলী আব্বাস। এছাড়া কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলাম লেদু, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি মোজাম্মেল হক, ফুটবল সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ, সিটি কর্পোরেশন কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন, দিদারুল আলম মাসুম, হাসান মুরাদ বিপস্নব। এছাড়াও জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, ক্রীড়া সংগঠক, কোচ, শিড়্গার্থী, সাংবাদিকসহ সর্বস্তারের ক্রীড়ামোদি জনগণ উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি আ.জ.ম. নাছির উদ্দিন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশের ফুটবলকে কলুষিত করে চলেছেন দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার কিরন। বাংলাদেশের ক্রীড়াবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে কটুক্তি করে সীমাহীন দু:সাহস দেখিয়েছে এই কিরন। অতিসত্ত্বর বাংলাদেশ ফুটবলের সকল প্রকার পদ-পদবী থেকে বহিস্কার করে তাকে সর্বোচ্চ শাসিত্মর কাঠগড়ায় দাঁড় করনোর দাবি জানান সিটি মেয়র। তিনি বলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের বর্তমান নির্বাহী কমিটিতে ২জন সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রিয় যুব লীগের সদস্যও রয়েছেন । তাঁদেরকে এ ব্যাপারে জরুরি পদড়্গেপ গ্রহণের আহ্বান জানান আ.জ.ম. নাছির। বাফুফে সভাপতিসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা এ বিষয়ে নিরব থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, অবিলম্বে আপনারা কিরনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। অন্যথায় কিরনের মদদদাতা হিসেবে চিহ্নিত করে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন আপনাদের বিরুদ্ধে সর্বশক্তি নিয়ে রুখে দাঁড়াবে। আগামী সোমবার চট্টগ্রাম থেকে কিরনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করার ঘোষণার পাশাপাশি বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংগঠক পরিষদের পক্ষ থেকে বিক্ষোভ সভা আয়োজন এবং প্রতিটি বিভাগীয় শহরে ন্যূনতম ১টি করে মামলা করে এই দুর্নীতিবাজ ফুটবলের কলঙ্কখ্যাত কর্মকর্তাকে আইনের কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর দিক নির্দেশনা প্রদান করেন বাংলাদেশ ক্রীড়াঙ্গনের এই শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল এসোসিয়েশনের মহাসচিব তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিন প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করার মতো দু:সাহস দেখানো অসাধু ফুটবল কর্মকর্তা কিরন এর সর্বোচ্চ শাসিত্ম দাবীসহ বাংলাদেশের ফুটবলের সকল প্রকার পদ-পদবী থেকে তাকে বহিস্কার করার জোর দাবী জানান। তিনি কিরনের বক্তব্যে বাফুফের রহস্যজনক নীরবতার কঠোর সমালোচনা করেন। বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংগঠক পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজউদ্দিন মো. আলমগীর এবং বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ও প্রেস ক্লাব প্রেসিডেন্ট আলহাজ্জ্ব আলী আব্বাস বলেন ক্রীড়াবান্ধব প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা’র নামে কটুক্তিকারী কিরনের সর্বোচ্চ শাসিত্ম না হওয়া পর্যনত্ম আন্দোলন চালিয়ে যাবে চট্টগ্রামসহ দেশের ক্রীড়াঙ্গন। অচিরেই তাকে সকল প্রকার ক্রীড়া কর্মকান্ড থেকে বহিস্কার করতে হবে এবং আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে বলেও দাবি জানান তারা। বিপুল সংখ্যক ক্রীড়ামোদির উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এই মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে মাহফুজা আক্তার কিরনের কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

- Advertistment -