কালীপুরের লিচুর কদর সারা দেশে

বাঁশখালী প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার , ১৬ মে, ২০১৯ at ৪:২৪ পূর্বাহ্ণ
61

বাঁশখালীর কালীপুরের লিচুর খ্যাতি যুগ যুগ ধরে। প্রতিবছর লিচুর মৌসুমে এ এলাকায় লিচু ব্যবসায়ীরা ভিড় জমায় সারাদেশে এ সুস্বাদু লিচু গ্রাহকদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে । এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি । বিগত ৩/ ৪ দিন যাবত কালীপুরের লিচু বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।তবে লিচু উৎপাদনের প্রথম পর্যায়ে বৃষ্টি না হওয়ায় চাষিরা যেভাবে হতাশ ছিলেন শেষ পর্যায়ে এসে সামান্য বৃষ্টির দেখা মিলাতে চাষীরা অনেকটা ফুরফুরে মেজাজে আছে । কালীপুর ছাড়াও বাঁশখালীর বৈলছড়ি, গুণাগরি, পুকুরিয়া, জলদি, জঙ্গল চাম্বল পুইছড়িসহ প্রায় প্রত্যেক ইউনিয়নেই পাহাড়ি এলাকায় একই সাথে সমতলে লিচুর চাষ হয়ে আসছে বহুকাল থেকেই। মৌসুমের একেবারে প্রথম দিকেই বাজারে পাওয়া যাচ্ছে কালিপুরের লিচু। লিচুর বাম্পার ফলন হলেও দামের কমতি নেই এখানে। ব্যাপক চাহিদা থাকায় এবার আগাম লিচু বাগান ও লিচুর আকার ভেদে প্রতি ১০০ লিচু বিক্রি হচ্ছে ৩০০-৪০০টাকায়। স্থানীয় বাজারে প্রথম দিকে দাম বেশি থাকলেও ধীরে ধীরে ২০০-২৫০ টাকায় কমে আসবে। রাজশাহী-দিনাজপুরের লিচুর তুলনায় কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও স্বাদে-মানে বাঁশখালীর লিচুর তুলনা নেই। চট্টগ্রাম ও আশেপাশের এলাকায় বাঁশখালী কালীপুরের লিচুর আলাদা কদর রয়েছে। ইতিমধ্যে বাঁশখালী অধিকাংশ হাট বাজারে লিচু ক্রয় করার জন্য মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বিশেষ করে প্রতিদিন সকাল সন্ধ্যা বাঁশখালী কালীপুরের রেজিস্ট্রি অফিসের সামনে কিংবা গুনাগরিতে প্রধান সড়কের আশে পাশে পাইকারি ও খুচরা লিচু বিক্রি হচ্ছে প্রচুর পরিমাণে। বাঁশখালী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: শহিদুল ইসলাম বলেন, বাঁশখালীতে ৫০০-৫৫০ হেক্টর জমিতে লিচুর বাণিজ্যিক চাষ হয়। এবারে ফলন বেশি হওয়ায় লিচু চাষীরা খুশি বলে জানান তিনি। তাছাড়া কৃষি অফিস থেকে যথাযথ সহযোগিতা দেয়া হয়েছে লিচু চাষী দের- এমনটিও জানান ওই কর্মকর্তা। ব্রিটিশ আমল থেকেই বাঁশখালীর উপজেলার কালীপুরে জমিদার বংশের লোকজন বোম্বাই, কোলকাতা, চায়না-থ্রি জাতের লিচু চারা কলম সংগ্রহ করে বাগান করে আসছেন। পরে তা জলদি, পুকুরিয়া, সাধনপুর, চাম্বল, নাপোড়ায় বিস্তৃতি লাভ করে। ভালো ফলন হওয়ায় একেকটি বাগান এক থেকে দেড় লাখ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাঁশখালীর তিন চারটি এলাকায় লিচুর পাইকারি বাজার বসে। পাইকারদের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন যায়গায় পৌঁছে যাচ্ছে বাঁশখালীর এ লিচু। বাঁশখালীর কালীপুরের লিচু চট্টগ্রামে প্রসিদ্ধ ও সুসাধু। ফলে তার চাহিদাও বেশ। এব্যাপারে কালীপুরের চেয়ারম্যান এডভোকেট আ ন ম শাহাদত আলম বলেন ,আমার এলাকাটি একটি উর্বরশীল এলাকা। এখানে সারা বছর বিভিন্ন ধরনের ফসলের পাশাপাশি উন্নত লিচুর ফলন হয়। ফলে এ লিচুর চাহিদা সারা দেশে রয়েছে।

x