কারেন্ট ও মশারিজালে ছোট মাছের ক্ষতি

মীর আসলাম, রাউজান

শুক্রবার , ১১ অক্টোবর, ২০১৯ at ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ
17

হালদা নদী ও সংযুক্ত খালে-বিলে কারেন্ট জাল ও মশারিজাল পেতে প্রতিদিন ছোট প্রজাতির মাছ ধ্বংস করা হচ্ছে। স্থানীয় মাছ শিকারিদের উৎপাত বন্ধে হাটহাজারী ও রাউজান উপজেলা প্রশাসন দফায় দফায় অভিযান চালালেও থামছে না এই তৎপরতা।
স্থানীয়রা জানান, মৎস্যজীবীরা জোয়ারের সময় নদী আর খালের দুই পাশের কিনারা ঘেঁষে লম্বা লম্বা মশারি জাল পাতে। ভাটির সময় ওসব জালে আটকে পড়ে ছোট ছোট মাছসহ অসংখ্য পোনা। বিশেষ করে বংশ ধ্বংস করে দেয়া হচ্ছে চিংড়ি মাছের। মশারি জালের ভেতর আটকা পড়া মাছ নেয়ার সময় অন্যান্য ছোট মাছের লাখ লাখ পোনা মারা যায়।
নদী ও খালের তীরবর্তী বাসিন্দারা জানান, নদী ও খালে মশারি জাল পাতার এমন চিত্র প্রতিদিনের। খাল-নদীতে মশারি জালে মাছ ধরার পাশাপাশি কিছু কিছু এলাকার মাছ শিকারিরা মাছ মারতে বসায় কারেন্ট জাল। করা হয় বিষ প্রয়োগ।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মগদাই ও কাগতিয়া খালে প্রায় প্রতিদিন মশারি জাল পাতা হয়। এসব তৎপরতায় যারা লিপ্ত রয়েছে তাদের পেছনে স্থানীয় প্রভাবশালীদের হাত থাকায় এই নিয়ে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস করেন না।
হালদা নদীতে উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে যুক্ত থাকা এনজিও আইডিএফে কর্মরত সাদ্দাম হোসেন জানান, তাদের প্রকল্পের স্পিড বোট নিয়ে রাউজান-হাটহাজারীর উপজেলা প্রশাসন নদীতে বিভিন্ন সময় অভিযান চালায়। অভিযানে আটক হয় হাজার হাজার মিটার জাল। আটক করা জাল ধ্বংস করা হলেও মাছ শিকারিদের তৎপরতা বন্ধ হচ্ছে না। নতুন জাল কিনে তারা আবার মাছ ধরে।
জানা যায়, সম্প্রতি রাউজান উপজেলা মৎস্য বিভাগ রাত বারোটা থেকে তিনটা পর্যন্ত হালদা নদীর বিভিন্ন পয়ন্টে অভিযান চালিয়ে দশ হাজার মিটার জাল জব্দ করে পুড়িয়ে ফেলেছে। এই অভিযানে নেতৃত্বে ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি এহেসান মুরাদ ও মৎস্য কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন। এর আগে হাটহাজারী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন আইডিএফের কর্মীদের সাথে নিয়ে নদীতে অভিযান চালিয়ে কয়েক হাজার মিটার জাল ধ্বংস করেন।
এলাকার লোকজন বলেছেন, প্রশাসনের অভিযানে জাল জব্দ করে পুড়ে ফেলা হলেও জাল পাতায় জড়িতরা থাকে ধরাছোঁয়ার বাইরে। এ কারণে তাদের অপতৎপরতা চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছে।
এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি এহেসান মুরাদ এবং মৎস্য কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, দায়ীদের চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।অবৈধভাবে জালপাতার বিরুদ্ধে অভিযান চলমান থাকবে।

x