কাপ্তাই লেকে অস্বাভাবিকভাবে কমেছে পানির স্তর

বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫টি জেনারেটরের মধ্যে সচল ১টি

কাপ্তাই প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার , ১৩ জুন, ২০১৯ at ৪:৫৮ পূর্বাহ্ণ
171

কাপ্তাই লেকে পানির স্তর অস্বাভাবিক হারে কমছে। লেকের পানি কমে যাওয়ায় বিদ্যুৎ উৎপাদনও কমে যাচ্ছে। কাপ্তাই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫টি জেনারেটরের মধ্যে মাত্র ১টি সচল রয়েছে। লেকে পানি কম থাকায় অন্য ৪টি জেনারেটর চালু করা যাচ্ছে না বলে কাপ্তাই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা গেছে। কাপ্তাই লেকে পানি কম থাকার কথা স্বীকার করেছেন কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী এ টি এম আব্দুজ্জাহের। তিনি গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৮টায় জানান, রুলকার্ভ (পানির পরিমাপ) অনুযায়ী কাপ্তাই লেকে বর্তমানে ৭৮.৫৭ ফুট এমএসএল (মীন সী লেভেল) পানি থাকার কথা। কিন্তু লেকে পানি রয়েছে ৭২.৭৮ ফুট এমএসএল। লেকে পানি কম থাকায় বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সবগুলো ইউনিট চালু করা সম্ভব হচ্ছেনা। বর্তমানে শুধুমাত্র ১ নম্বর জেনারেটরটি চালু রয়েছে। আর এই জেনারেটর থেকে ৩৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে। যার পুরোটাই জাতীয় গ্রিডে সঞ্চালন করা হচ্ছে।
প্রতি বছর এসময় বৃষ্টি হয়। কিন্তু এবছর বৃষ্টি হয়নি বললেই চলে। মে মাসে কয়েক দফায় বৃষ্টি হলেও সেটি মোটেও লেক পরিপূর্ণ হবার মত ছিলনা। সূত্র জানায়, কাপ্তাই লেকের পানি কমে যাওয়ায় বিদ্যুৎ উৎপাদনে ঘাটতির পাশাপাশি নৌ চলাচলে মারাত্মক সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে। হরিণছড়া মুখ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফেরদৌস আক্তার বলেন, আমরা প্রতিদিন কাপ্তাই জেটিঘাট থেকে ইঞ্জিন বোটে চড়ে স্কুলে যাতায়াত করি। বর্তমানে লেকের পানি কমে যাওয়ায় ইঞ্জিন বোট চালানো যাচ্ছেনা। এর ফলে আমরা যাতয়াতে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাচ্ছি।
পিডিবির প্রধান প্রকৌশলী মো. আবদুর রহমান জানান, আমরা প্রতিদিন বৃষ্টির অপেক্ষায় থাকি। আকাশে প্রায় সময় ঘন মেঘও দেখা যায়। কিন্তু বৃষ্টির দেখা মেলেনা। এবার কি কারণে বৃষ্টি হচ্ছেনা ঠিক বুঝতে পারছিনা। টানা ৩/৪ দিন ভারী বৃষ্টি হলে লেকে পানির স্তর বৃদ্ধি পাবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন। আপাতত বৃষ্টির জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া অন্য কিছু করণীয় নেই বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

x