কাপ্তাই লেকের পানি কমছে ভোগান্তিতে নৌ চলাচল

কাপ্তাই প্রতিনিধি

শুক্রবার , ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৪:০৮ পূর্বাহ্ণ
35

কাপ্তাই লেকের পানি দিন দিন অস্বাভাবিক হারে কমে যাচ্ছে। শীত মৌসুম ও টানা বিদ্যুৎ উৎপাদনের ফলে কাপ্তাই লেক থেকে পানি প্রতিনিয়ত কমছে বলে জানা গেছে। লেকে পানি কমে যাওয়ায় নৌ চলাচলে সমস্যা হচ্ছে।
স্থানীয় বোট চালক সমিতির সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন বলেন, রাঙামাটি জেলার ৭টি উপজেলায় কাপ্তাই লেক পরিবেষ্টিত। প্রতিদিন হাজার হাজার লোক নৌ পথে যাতায়াত করেন। এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি মারাত্মক পর্যায়ে না পৌঁছলেও যে হারে লেকের পানি কমছে, তাতে অচিরেই ভোগান্তি চরমে পৌঁছবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। বিলাইছড়ি উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান লাল এ্যাংলিয়ানা পাংখোয়া বলেন, উপজেলার দিঘলছড়ি, ফারুয়া, কেংরাছড়ি এলাকায় যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম হলো নৌ পথ। আগে লেকে পানি ভরপুর ছিল। তখন ইঞ্জিন বোট চালিয়ে যেখানে সেখানে যাতায়াত করা যেত। কিন্তু লেকের পানি কমে যাওয়ায় সব স্থানে ইঞ্জিন বোট চলাচল করতে পারছে না। অনেক স্থানে পানির পরিমাণ বুঝতে না পারায় বোট চালাতে গিয়ে হাঁটু পানিতে আটকা পড়ে। এর ফলে বোট চালক ও যাত্রী সবাই দুর্ভোগে পড়েন। বোট চালক সিরাজ উদ্দিন জানান, অল্প পানিতে বোট চালাতে গিয়ে প্রায় সময় মাটিতে লেগে ইঞ্জিনের ফ্যান নষ্ট হচ্ছে। তিনি বলেন, কাপ্তাই উপজেলা ছাড়াও বিলাইছড়ি, জুরাছড়ি, বরকল, নানিয়ারচর, বাঘাইছড়ি, লংগদু, রাঙামাটি সদর উপজেলার বেশিভাগ এলাকায় যাতায়াতের জন্য নৌ পথই একমাত্র ভরসা। কিন্তু লেকের পানি কমতে থাকায় এসব উপজেলাবাসী নৌ পথে চলাচলে ভোগান্তি পোহাচ্ছেন।
এ ব্যাপারে কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী এ টি এম আব্দুজ্জাহ বলেন, লেকে পানি কমার বিষয়টি স্বাভাবিক। প্রতি বছর এই সময় লেকের পানি কমে যায়। ফেব্রুয়ারি মাস জুড়ে লেকের পানি কমতে থাকবে। মার্চ মাসে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃষ্টি হলেই লেকে আবার পানির পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। লেকে পানি কমে যাওয়ায় বিদ্যুৎ উৎপাদন সীমিত রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

x