কলকাতা থেকে বেরিয়েছে সাবিনা ইয়াসমিন সাথী’র রবীন্দ্রনাথের গানের অ্যালবাম

সনেট দেব

বৃহস্পতিবার , ৫ জুলাই, ২০১৮ at ১০:২১ পূর্বাহ্ণ
82

সমপ্রতি কলকাতার অনন্য মিউজিক এন্ড কালচারের রবীন্দ্র সংগীত প্রতিভা অন্বেষণ প্রতিযোগিতা ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি বছরের মত এবারো এতে বিশ্বভারতী ও রবীন্দ্রভারতী সহ পশ্চিমবঙ্গের প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ শিল্পীরা অংশগ্রহণ করে। ভারতীয় শিল্পী ছাড়াও অন্যান্য দেশের শিল্পীদের অংশগ্রহণ করার সুযোগ থাকে এ প্রতিযোগিতায়। এর বিশেষ আকর্ষণ হলো প্রতিষ্ঠানের আয়োজনে বিজয়ী শিল্পীদের গাওয়া রবীন্দ্রনাথের গানের অ্যালবাম প্রকাশ। তিন ধাপে অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতায় প্রায় তিন শতাধিক প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে। আর এতে প্রথম বারের মত অংশগ্রহণ করে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে চট্টগ্রামের মেয়ে সাবিনা ইয়াসমিন সাথী। পুরষ্কার হিসেবে অনন্য মিউজিক প্রকাশ করেছে সাবিনার গাওয়া ৮ টি রবীন্দ্রনাথের গান নিয়ে অ্যালবাম – ‘ভাবনার স্বপ্নজালে’।

ভাবনার স্বপ্নজালে’ রয়েছেপূজা পর্যায়ের অন্তর্ভুক্ত পাঁচটি গান সুখে আমায় রাখবে কেন / কোলাহল তো বারণ হলো / আমি বহু বাসনায় প্রাণপনে চাই / আজি বিজন ঘরে / তোমার আমার বিরহের অন্তরালে এবং প্রেম পর্যায়ের অন্তর্ভুক্ত তিনটি গান কাঁদালে তুমি মোরে / বিরস দিন বিরল কাজ / হৃদয়ের এ কুল ও কুল দু কুল। ভাবনার স্বপ্নজালে অ্যালবামটি উৎসর্গ করা হয় সাবিনার প্রয়াত সংগীত গুরু বাংলাদেশের রবীন্দ্রসংগীতের দিকপাল ওস্তাদ মিহির কুমার নন্দী’র স্মৃতির প্রতি এবং প্রশিক্ষণ ও সংগীত পরিচালনায় ছিলেন সাবিনার বর্তমান গুরুমা কলকাতার বিশিষ্ট রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী ও প্রশিক্ষক অপালা বসু সেন। শব্দ গ্রহণ ও মিশ্রণ করেন চন্দন ঘোষ। যন্ত্রানুসঙ্গ পরিচালনায় ছিলেন দেবাশিস সাহা।

সাবিনা নিয়মিত সংগীত চর্চা করছে দেড় দশকেরও বেশি সময়। সংগীতে নিরন্তর প্রয়াসই তার যোগ্যতার যথার্থ স্বীকৃতি। বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতারের তালিকাভুক্ত রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী সাবিনার রয়েছে বাংলাদেশের প্রায় সব’কটি জাতীয় পর্যায়ের সংগীত প্রতিযোগিতার পুরষ্কার। এ প্রাপ্তি নিয়ে জানতে চাইলে সাবিনা বলেন– ‘আমার সংগীত জীবনে অর্জনের খাতায় এটি অন্যতম। একক অ্যালবামের দিক থেকে প্রথম। তাই ভালোলাগার জায়গাটা অন্যরকম। রবীন্দ্রসংগীতের তীর্থস্থান পশ্চিমবঙ্গের মত জায়গায় অনন্য সব শিল্পীদের মধ্যে নিজেকে আলাদা করে খুঁজে পাওয়া নিশ্চয়ই আনন্দের। খুব গর্ববোধ হয়েছিল ফলাফল ঘোষণার সময় আমার নামের সাথে বাংলাদেশ নামটি ধ্বনিত হচ্ছিল। মনে হয়েছিল দেশ তো আমাকে অনেক কিছু দিয়েছে আজ আমি সামান্য হলেও দেশকে দিতে পেরেছি। শ্রদ্ধা জানাই আমার সংগীত গুরুদের যাঁদের শিক্ষা ও দোয়ায় আজকের আমি। ভালোবাসা আমার মাবাবা, পরিবার, বন্ধু ও শুভানুধ্যায়ীদের যাঁরা আমার যাপিত ও সংগীত জীবনের প্রতি মুহূর্তে সাহস দিয়ে এগিয়ে যাবার শক্তি যুগিয়েছে। বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানাই অনন্য মিউজিক এন্ড কালচার এর কর্ণধার সুমন পান্থী এবং কলকাতা বিশিষ্ট সংস্কৃতিজন অনিন্দিতা অনিরুদ্ধকে যাঁরা এ অর্জনে পাশে থেকেছে।’

সংগীতে সমর্পিতপ্রাণ এ শিল্পী বর্তমানে আই.সি.সি.আর এর বৃত্তি পেয়ে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে রবীন্দ্রসংগীত বিষয়ে স্নাতক শেষ বর্ষের ছাত্রী। রবীন্দ্র ভাবনাকে চিন্তায়চেতনায়মননে ধারণ করে শুদ্ধ রবীন্দ্রসংগীত কণ্ঠে লালন করে সংগীতের প্রতি শিল্পীর দায়বদ্ধতা থেকে সুরতাললয়ের সাথে পথ চলতে চায় সাবিনা। ইচ্ছে আছে রবীন্দ্র সংগীত বিষয়ে পি.এইচ.ডি ডিগ্রী অর্জন করার।

x