করবী চৌধুরী (সৎ এবং আন্তরিক বন্ধুত্বপূর্ণ মানুষের সংখ্যা)

মঙ্গলবার , ১৭ এপ্রিল, ২০১৮ at ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ
42

আজকের বিশ্বে একদিকে যেমন প্রযুক্তির ক্রমবর্ধমান উন্নতি হচ্ছে, অপরদিকে এই প্রযুক্তির সুবিধাগ্রহণকারী মানুষের মানবিক অবনতি ঘটছে ক্রমশ। আজ আমাদের সকলের হাতে হাতে স্মার্ট ফোনের কল্যাণে মনের টান, আতিথেয়তা সবই যাচ্ছে উবে। অনলাইন পদ্ধতিতে চলছে বিশেষ দিনের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন। কারো সাথে দেখা হলে পরস্পরের কুশলাদি বিনিময়ের আগেই ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপের একাউন্ট আছে নাকি জানতে ইচ্ছে করে। কোন আনন্দ অনুষ্ঠানে গিয়ে তা উপভোগ করার চেয়ে সেলফি তুলতে ব্যস্ত সবাই। এমন কি কারো দুর্ঘটনা বা বিপর্যয়ের সময়েও সাহায্যের হাত বাড়ানোর চেয়ে ফেসবুকে নিজেদের সেফ হিসেবে মার্ক করে রাখতে বেশি পছন্দ করি। অনেকেতো আবার অসুস্থ স্বজন, বন্ধুকে দেখতে গিয়ে রোগীর সাথে সহাস্যমুখে সেলফি তুলে তা ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে নিজেদের বদান্যতা জাহির করে। প্রেমে পড়াও আজকাল দুমিনিটের মধ্যেই সম্পন্ন হচ্ছে কোন অনুভূতি ছাড়া শুধু ভার্চুয়াল জগতের মাধ্যমে।

ইন্টারনেটের মাধ্যমে আমরা অনেকভাবেই উপকৃত যেমন হচ্ছি, তেমনি হারাচ্ছিও অনেক। চেনা মানুষের মধ্যে যেন তৈরি হচ্ছে মানসিক দূরত্ব। সৎ এবং আন্তরিক বন্ধুত্বপূর্ণ মানুষের সংখ্যা যেন ক্রমেই কমছে।

x