এম সোলাইমান কাসেমী (মাহে রমজান)

বুধবার , ২৩ মে, ২০১৮ at ৪:৫২ পূর্বাহ্ণ
80

আত্মশুদ্ধি, সংযম, সাধনা,সাম্যসহানুভূতি, তাকওয়া, আল্লাহ ভীতির আহবান নিয়ে পুণ্যের বসন্তকাল, ইসলামের বিজয়ের মাস মাহে রমজান। প্রকৃত মানবীয় সদগুণাবলির অধিকারি হয়ে আল্লাহর অনুগত বান্দা হিসেবে সামাজিক শান্তিশৃংখলার মধ্য দিয়ে দিন যাপন করে পরকালের মুক্তি ও পূর্ণ সৌভাগ্যের অধিকারি হোক প্রত্যেকটি মানুষ। এটাই হলো মহান আল্লাহ তায়ালার লক্ষ্য। পরকালীন মুক্তি এবং সকল সৌভাগ্য ও শান্তি সুখের আবাসস্থল জান্নাত। তা একমাত্র সৎকর্মশীল, মুত্তাকীদের জন্যেই আল্লাহ তৈরি করেছেন। যেমন তিনি জান্নাতের অধিকারি ব্যক্তিদের পরিচয় দানকালে পবিত্র কোরআনে ঘোষণা করে বলেছেন : “জান্নাত” মুত্তাকীদের জন্যে তৈরিকৃত। আর এ মুত্তাকী সৃষ্টির সর্বশ্রেষ্ঠ অনুশীলন ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমই হলো রোজা পালন। রোজা পালনের আসল উদ্দেশ্য হলো তাকওয়া অর্জন। মহান আল্লাহ এ সম্পর্কে বলেন– “হে ঈমানদারগণ! তোমাদের উপর রোজা ফরজ করা হলো যেমন ফরজ করা হয়েছিলো তোমাদের পূর্ববর্তী জাতিসমূহের উপর, যেন তোমরা মুত্তাকী হতে পারো।” তাকওয়া হলো নিজেকে সকল অন্যায় অপকর্ম থেকে রক্ষা করা। আল্লাহর নির্দেশিত পথে চলা এবং নিষিদ্ধ কাজ থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রেখে তাঁর সন্তুষ্টি অর্জন করা। যার মধ্যে এ গুণ অর্জিত হবে তাকে বলা হয় মুত্তাকী বা খোদাভীরু। মুসলিমদের বিজয়ের মাস রমজান। এ মাসে মুসলিমগণ মুহাম্মদ (সা🙂 এর নেতৃত্বে দু’টি বিজয় লাভ করেছিলেন ১. বদরের যুদ্ধে বিজয়। ২. মক্কা অভিযানে। আল্লাহ আমাদের সহায় হোন। আমীন।

x