এমবিবিএস ও বিডিএস নতুন ব্যাচ উদ্বোধন, গোল্ড মেডেল প্রদান

শুক্রবার , ১১ জানুয়ারি, ২০১৯ at ৪:৫১ পূর্বাহ্ণ
265

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের উদ্বোধনী ক্লাশ ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের প্রিন্সিপালস গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড-২০১৯ বিতরণ করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শাহ আলম বীর উত্তম অডিটোরিয়ামে এমবিবিএস ৬১তম ব্যাচ ও বিডিএস ৩০তম ব্যাচের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. ইসমাইল খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহসেন উদ্দিন আহমেদ।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, চমেক কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. সেলিম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর। সঞ্চালনায় ছিলেন, নিউরোসার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. রবিউল করিম। এসময় চমেকের ইতিহাস, ঐতিহ্য, কলেজের প্রসপেক্টাস ও কারিকুলাম মাল্টিমিডিয়া প্রদর্শন করেন, ইউরোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. মো. মনোয়ার উল হক। প্রসঙ্গত, এ বছর ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস কোর্সে ২২০ জন এবং বিডিএস কোর্সে ৬০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়।
অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে গত বছরে অনুষ্ঠিত বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে সম্মাননা, স্কলারশিপ এবং একজন শিক্ষার্থীকে প্রিন্সিপালস গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড-২০১৮ প্রদান করা হয়। এছাড়া গত জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত ফাইনাল এমবিবিএস এবং ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত ফাইনাল বিডিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ৩জন করে উত্তীর্ণ সকল পরীক্ষার ফলাফল সর্বোচ্চ মেধাধারী নবীন চিকিৎসককে গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড-২০১৯ প্রদান করা হয়। সম্মাননাপ্রাপ্তদের স্বর্ণপদক, ১ লাখ টাকা মূল্যের চেক ও ক্রেস্ট প্রদান হয়।
প্রধান অতিথি বলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ থেকে পাস করে মেধাবী চিকিৎসকরা দেশ-বিদেশে চিকিৎসাসেবায় বিশেষ অবদান রেখে চলেছে। পাশাপাশি চিকিৎসা বিজ্ঞানের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে জ্ঞানের বহুমুখী শাখায় তারা নানামাত্রিক দায়িত্ব পালন করছে।
চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহসেন উদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রিন্সিপালস গোল্ড মেডেল অ্যাওয়ার্ড-২০১৯ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা চিকিৎসা বিজ্ঞানে বিশেষ অবদান রাখবে।
অধ্যাপক ডা. মো. সেলিম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর নবীন শিক্ষার্থীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ চিকিৎসা, শিক্ষা ও সেবার মানোন্নয়নে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার প্রদান করে আসছে।
তিনি জানান, এখানে প্রতিষ্ঠিত দেশের প্রথম বোনস লাইব্রেরিতে কঙ্কালের সংখ্যা বৃদ্ধি করারও উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।
এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, চমেক ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি (ভিপি) জামিউর রহমান আকাশ।
বক্তব্য রাখেন, চমেকসু জিএস রাফিউর রাব্বি। উপস্থিত ছিলেন, এনাটমি বিভাগের প্রধান ডা. মো. আশরাফুজ্জান, ফিজিওলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মমতাজ বেগম, বায়োকেমিস্ট্রি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মাহমুদুল হক, মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. অশোক কুমার দত্ত, সার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. মো. নুর হোসাইন ভুইয়া, গাইনোকোলজি বিভাগের প্রধান এবং ডেন্টাল ইউনিটের প্রধান অধ্যাপক ডা. আকরাম পারভেজ চৌধুরী প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

- Advertistment -