এবারের ফিতরা ৭০ টাকা

আন্‌জুমান শরীয়াহ্‌ বোর্ডের সভা

আজাদী ডেস্ক

বুধবার , ২২ মে, ২০১৯ at ৪:১৩ পূর্বাহ্ণ
84

চট্টগ্রামে এবারের ফিতরা ৭০ টাকা নির্ধারণ করেছে আন্‌জুমান-এ রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট শরীয়াহ্‌ বোর্ড। গতকাল মঙ্গলবার বোর্ডের এক সভা শরীয়াহ্‌ বোর্ডের চেয়ারম্যান মাওলানা মুফতি সৈয়্যদ মুহাম্মদ অছিয়র রহমানের সভাপতিত্বে জামেয়া কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় শরীয়াহ্‌ বোর্ডের সদস্য মন্ডলীর মধ্যে উপাধ্যক্ষ আলহাজ্ব মাওলানা ড. মুহাম্মদ লিয়াকত আলী, মাওলানা ছগীর আহমদ ওসমানী, মুফতি আল্লামা ওবাইদুল হক নঈমী, মুহাদ্দিস মাওলানা হাফেয মুহাম্মদ সোলাইমান আনসারী, মুফতি কাজী মুহাম্মদ আবদুল ওয়াজেদ, মুফাচ্ছির কাজী মোহাম্মদ ছালেকুর রহমান আলকাদেরী, মুহাদ্দিস মাওলানা মুহাম্মদ আশরাফুজ্জামান আলকাদেরী উপস্থিত ছিলেন। সভায় শরীয়াহ্‌ বোর্ডের সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে এবারের ফিতরা ৭০/-(সত্তর) টাকা ঘোষণা দেয়া হয়। শরীয়াহ্‌ বোর্ডের এক বিবৃতিতে বলা হয়, বিশেষ সতর্কতা এবং নির্ভরযোগ্য তথ্যের ভিত্তিতে নিজেকে সন্দেহমুক্ত করনার্থে পরিমাণে ২ সের ৩ ছটাক আধা তোলা অথবা ২ কেজি ৫০ গ্রাম গমের আটা বা গম ফিত্‌রা হিসাবে মাথাপিছু আদায় করা বাঞ্চনীয়। সভায় বর্তমান খোলা বাজারে উন্নত মানের ২ কেজি ৫০ গ্রাম গমের আটার মূল্য হিসাবে সর্বসাকুল্যে ফিত্‌রা ৭০ টাকা ধার্য্য করা হয়। সকল সক্ষম মুসলমান তার নিজের এবং পরিবারের সদস্যদের মধ্যে নাবালেগ ছেলে-মেয়ে ও বালেগা অবিবাহিতা মেয়ের ফিত্‌রা আদায় করা ওয়াজিব। শরীয়াহ্‌ বোর্ডের পক্ষ হতে আরো বলা হয় যে, ঈদের নামাজের পূর্বে ফিত্‌রা আদায় করা মুস্তাহাব। তবে নেহায়েত গরীব-মিস্‌কিন আত্মীয়-স্বজন দূরে অবস্থান করলে ঈদের নামাজের পরেও আদায় করা যাবে। যে সকল সুন্নি প্রতিষ্ঠান/মাদ্‌রাসা সমুহে এতিমখানা রয়েছে অথবা গরীব ছাত্রদের লেখা-পড়া ও ভরণ-পোষণের ব্যবস্থাপনা রয়েছে সে ধরনের আদর্শবান প্রতিষ্ঠানের মিসকিন ফান্ডে যাকাত ও ফিত্‌রা প্রদান করা নেহায়ত উত্তম বলে ঘোষণা দেয়া হয়। যে সব মাদ্‌রাাসা/প্রতিষ্ঠানে এতিমখানা ও গরীব-মিসকিনের ভরণ-পোষণের ব্যবস্থা নাই, সে সব প্রতিষ্ঠানে যাকাত/ফিত্‌রা প্রদান করলে শরীয়ত মোতাবেক আদায় হবে না মর্মে ফয়সালা দেয়া হয়।

x