এতিমের সম্পদ আত্মসাৎ করলে প্রায়শ্চিত্ত করতে হয়

উত্তর আগ্রাবাদ ওয়ার্ডে ব্যারিস্টার নওফেল

বৃহস্পতিবার , ১৪ জুন, ২০১৮ at ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
35

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার এতিমের সম্পদ আত্মসাৎ করাটা পাপ। পাপ করলে তার প্রায়শ্চিত্ত করতে হয়। এতিমখানার নাম দিয়ে কোটি কোটি টাকা অনুদান নিয়ে সেই টাকা পুত্রের ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তর করে তিনি যে অন্যায় করেছেন সেজন্য আজকে তাকে শাস্তি পেতে হচ্ছে। পাপ বাপকেও ছাড়ে না। তিনি যদি জিয়া অরফানেজ চ্যরিটেবল ফান্ডের নামে বিদেশ থেকে টাকা এনে এদেশে কোথাও একটি এতিমখানা নির্মাণ করতেন এবং সেখানে দুস্থ ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়া এবং বাসস্থানের ব্যবস্থা করতেন আজকে তাকে অর্থ আত্মসাতের মামলায় আসামি হতে হত না। পরের টাকায় বেগম জিয়া বিলাসী জীবন যাপন করেন। তিনি যদি অসুস্থ হন চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সরকারি ব্যবস্থাপনায় তাঁর চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে। কিন্তু তিনি তা করবেন না। বেসরকারি চিকিৎসা কেন্দ্রে বিলাসবহুল চিকিৎসা নিবেন। তার সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনেক পার্থক্য। শেখ হাসিনা সাধারণ জীবন যাপন করেন। পোশাক, খাদ্যাভাসে অত্যন্ত সাধারণ। পক্ষান্তরে বেগম জিয়া তাঁর নির্ধারিত খাদ্য তালিকা, প্রসাধনী, গৃহ পরিচারিকা ছাড়া চলতে পারেন না। ১/১১ এর সময়কালে কারান্তরীণ দুই নেত্রীর মধ্যে সুযোগ সুবিধার বিষয়ে ব্যাপক বৈষম্য ছিল। শেখ হাসিনার প্রতি নিষ্ঠুর আচরণ করা হয়েছিল। রাজনীতিবিদ ফরিদ মাহমুদের উদ্যোগে নগরীর ২৪নং উত্তর আগ্রাবাদ ওয়ার্ডে নারী পুরুষদের মাঝে গতকাল বুধবার ঈদ উপহারস্বরূপ শাড়ি লুঙ্গি বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সভার শুরুতেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সপরিবার, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা , এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর জন্য বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। ২৪নং আগ্রাবাদ ওয়ার্ডস্থ মনসুরাবাদে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও আকরাম হোসেন সবুজের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট সুনীল কুমার সরকার। আলোচনায় অংশ নেন মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদ, হালিশহর থানা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ফয়েজ আহমদ, ২৪নং উত্তর আগ্রাবাদ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি সৈয়দ মোহাম্মদ জাকারিয়া, কাউন্সিলর ফারহানা জাবেদ, জহির উদ্দিন মোহাম্মদ বাবর, এস এম সাঈদ সুমন, আবদুর রাজ্জাক দুলাল, শেখ নাছির আহমেদ, জয়নাল উদ্দিন জাহেদ। মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের রূপ পাল্টে দেবে। তিনি এমন কিছু পদক্ষেপ নিচ্ছেন সেসব গৌরবের অধিকারী অতীতে কখনো আমরা ছিলাম না। শেষে ফরিদ মাহমুদের উদ্যোগে নারী পুরুষরে মাঝে ঈদ উপহারস্বরূপ শাড়ি, লুঙ্গি তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x