(এগিয়ে চলুক বীর চট্টগ্রামের মানুষ)

রূপম চক্রবর্তী

মঙ্গলবার , ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ
61

চট্টগ্রামের মানুষ হিসেবে আমরা গর্বিত। বরেণ্য মানুষগুলো চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করে আমাদের ধন্য করেছেন। একদিকে পাহাড়ের সবুজ গাছগুলো যেমন প্রতিনিয়ত আকর্ষণ করে অন্যদিকে সমুদ্রের গর্জন আমাদেরকে প্রতিনিয়ত প্রকৃতির কাছাকাছি নিয়ে যায়। আবহমানকাল থেকে চট্টগ্রামের মানুষ একে অপরের সাথে মিলেমিশে থাকতে পছন্দ করে। তাই এই অঞ্চলের বেশিরভাগ মানুষ অসামপ্রদায়িক চিন্তাকে নিজের অন্তরে ধারণ করে। ধানের মধ্যে তুষ থাকাটা স্বাভাবিক। কিছু কিছু মানুষ মাঝে মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়ায়। এই অঞ্চলকে অশান্ত করে দিতে চায়। কিন্তু এই মানুষগুলো বেশিদূর যেতে পারেনা কারণ শুভ চিন্তার মানুষদের সংখ্যা তাদের চাইতে বেশি। প্রকৃতির বড় একটি প্রভাব আমাদের অঞ্চলে। প্রকৃতি যেমন মানুষকে প্রতিনিয়ত ভালবাসার সম্পদে সমৃদ্ধ করছে তেমনি এই চট্টগ্রামের মানুষগুলো চেষ্টা করছে একে অপরকে ভালবাসার এক বিপ্লব সৃষ্টি করার। এই ভালবাসার কাছাকাছি আসার কারণে আমরা একে অপরকে সম্মান করতে জানি। আরেক জনের মতামতকে শ্রদ্ধা করতে জানি। অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে জানি। মানুষে মানুষে সমপ্রীতির মহামিলনের বার্তায় নিজেকে উৎসর্গ করতে জানি। যেখানে হিংসার আগুনে অনেকে জর্জরিত হয়ে একে অপরকে হত্যার পরিকল্পনায় মেতে উঠেছে সেখানে চট্টগ্রামের মানুষ জানে হিংসা দিয়ে আমরা কিছু অর্জন করতে পারিনা। মহামিলনের বার্তা ছড়িয়ে আমরা এমন কিছু অর্জন করব যার মাধ্যমে সারা পৃথিবীর মানুষগুলো আমাদের দিকে চেয়ে থাকবে। এগিয়ে চলুক বীর চট্টগ্রামের মানুষ।

x