একাত্তরের পরাজিত শক্তিকে নির্মূল করার অঙ্গীকার

২১ আগস্ট নিহতদের স্মরণ

আজাদী ডেস্ক

শুক্রবার , ২৩ আগস্ট, ২০১৯ at ৫:৫২ পূর্বাহ্ণ
83

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা আর ১৫ আগস্টের হামলা একইসূত্রে গাঁথা। ২১ আগস্ট ন্যক্কারজনক হামলার মাধ্যমে অপশক্তি চেয়েছিল জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করে বাংলাদেশে স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ধ্বংস করতে। আওয়ামী লীগকে চিরতরে বাংলার বুক থেকে মুছে দিতে। তবে সৌভাগ্যবশত জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রাণে বেঁচে যান। একাত্তরের পরাজিত শক্তিকে সমূলে নির্মূল না করা পর্যন্ত বাঙালির জাতিসত্তা কখনো নিরাপদ নয়।
২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে প্রদীপ প্রজ্বলন, স্মরণসভা, আলোচনা ও দোয়া মাহফিল গত বুধবার বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়। স্মরণসভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন ও মোমাবাতি প্রজ্বলন করা হয়।
পাঁচলাইশ থানা যুবলীগ স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগ

পাঁচলাইশ থানা যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে প্রদীপ প্রজ্বলন ও স্মরণসভা নগর যুবলীগ নেতা আবু মনসুর চৌধুরী সাজ্জাদের সভাপতিত্বে মুরাদপুর চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়। নগর ছাত্রলীগ নেতা জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ালী লীগ উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক দিদারুল আলম দিদার। প্রধান বক্তা ছিলেন নগর যুবলীগের সদস্য জাবেদুল আলম সুমন। বিশেষ বক্তা ছিলেন নগর যুবলীগ নেতা ফারুক আহমদ চৌধুরী, পশ্চিম ষোলশহর যুব মহিলা লীগের সভাপতি সোনিয়া আজাদ, আহমেদ চৌধুরী, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সুমন দেবনাথ, কামরুল রশিদ পারভেজ, যুবলীগ নেতা নিজাম উদ্দিন খোকন প্রমুখ।
বক্তব্য রাখেন নিজাম উদ্দিন নিরব, মো. আলমগীর, সালাউদ্দিন লিটু, যুবলীগ নেতা মো. ফিরোজ, মো. হারুন-অর-রশিদ, মো. আসাদুল হক, মো. নাছির উদ্দিন চৌধুরী, ইমরান, জাবেদ, ইকবাল, মো. কায়ছার, ছাত্রলীগ নেতা মিজানুর রহমান নয়ন, সালাউদ্দিন মুন্না, শাহী ইমরান রাজু, নুরুল বশর বিপুল, ইরফানুল হক বাপ্পি, রুবেল, আবদুল কাদের, বিপ্লব, ওমর ফারুক পারভেজ, সালাউদ্দিন রকি, মো. জাবেদ হোসেন, মো. জয়নাল, মো. মামুন, মো. নাসিম, মো. নাঈম, মো. জুয়েল, মো. হৃদয়, তানভির, কৃষাণ প্রমুখ।
সৃজন সাংস্কৃতিক পরিষদ

সৃজন সাংস্কৃতিক পরিষদের উদ্যোগে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার নিহতদের স্মরণে সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি অভিষেক চৌধুরী। প্রধান অতিথি ছিলেন নিউজ চাটগাঁ পত্রিকার সম্পাদক হারাধন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপদেষ্টা সলিল আচার্য্য। রীমন দে’র সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন ওয়াসিম রেজা জাওয়াদ, সুস্মিতা চৌধুরী, দুর্জয় দে, মো. মেহেদী হাসান।
প্রধান অতিথি বলেন, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট শেখ হাসিনাকে হত্যার অপচেষ্টা চালানো হয়েছিল। নারীনেত্রী আইভি রহমানসহ ২৪টি প্রাণ ঝরে গেলেও শেখ হাসিনা অলৌকিকভাবে রক্ষা পেয়েছিলেন। একাত্তরের পরাজিত শক্তিকে সমূলে নির্মূল না করা পর্যন্ত বাঙালির জাতিসত্তা কখনো নিরাপদ নয়।
পাঠানটুলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ

আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগ ২৮ নং পাঠানটুলী ওয়ার্ড শাখার উদ্যোগে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা সরকারি কমার্স কলেজের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ২৮ নং পাঠানটুলী ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আব্দুল কাদের। ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি হাজী মো. আব্দুল মান্নানের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য শেখ মো. ইসহাক। প্রধান বক্তা ছিলেন প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় শ্রমিকলীগ মহানগরের সভাপতি বখতিয়ার উদ্দিন খান, বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রশিদ, শেখ মোহাম্মদ জাহেদ, মহানগর যুবলীগ নেতা সাহিদুল ইসলাম সাহেদ প্রমুখ।
বক্তব্য রাখেন হারুন বাবর, এম এ হাই রুবেল, মুজিবুর রহমান, সাব্বির চৌধুরী, আব্দুল গণি রিপন, অভিউর রহমান কামাল, রাজা মিয়া, আলমগীর হোসেন, ইমরান হোসেন ডলার, আলমগীর কবির, সজিব উল্ল্যাহ অভি, রাকিব রাহি, আরমান আলী ও ফারহান আসিফ।
উপস্থিত ছিলেন মহিলা কাউন্সিলর ফেরদৌসি আকবর, সিরাজউদ্দৌল্লাহ সিরু, মুন্সি মিয়া প্রদীপ, লিয়াকত আলী, শাহজাহান সাজু, তোফাজ্জল হোসেন অপু, এ কে এম ফজলুল হক, ওবায়দুল কবির মিন্টু, আব্দুর রহিম রাজু, হেলাল উদ্দিন, আব্দুল নবী, সাইফুল ইসলাম, মহিউদ্দিন আহম্মেদ, জবরুত খান, আব্দুল মান্নান, অলি আহম্মদ, সাইদুল আলম বুলবুল, মোহাম্মদ হোসেন, সোলায়মান মিয়া, মোহাম্মদ হোসেন, আব্দুল আলী, হারুনুর রশিদ, আব্দুল জাব্বার, কোহিনুর বেগম, আহমেদ আব্দুর রহিম চৌধুরী, মাসুদ খান খোকন, জানে আলম, দেলোয়ার রশিদ, ইদ্রিস মিয়া, আব্দুল ওয়াদুদ রিপন, হুমায়ুন রশিদ, তসলিম জামিল খান, ইফতেখার উদ্দিন রুবেল, আব্দুল হক বাবুল, লোকমান হোসেন, আলমগীর চৌধুরী আলো, মো. জাফর ইকবাল, বাবুল দাশ তনয়, সাইফুল ইসলাম, মুজিব উল্ল্যাহ মাতাব্বর, মো. জমির উদ্দিন বাবুল, শফিক আহম্মেদ, আব্দুর রহিম, ইসমাইল হোসেন, ফয়সাল জামিল খান, আলমগীর আলম, মো. ইসলাম, মো. খায়ের, সাদ্দাম হোসেন, শামসুল আরেফীন, আসাদ রায়হান, শফিকুল হক অপু, আলাউদ্দিন অভি, সীমান্ত চৌধুরী, জাহেদ হোসেন, ইয়াছিন ফরহাত, হেলাল খান ফাহিম, মো. জিদান গাজী, তানজিদ আহমেদ শাওন, আফ্রিদী, নিলয় বড়ুয়া, নাঈম হাসান আকাশ, মো. ইরফান, মো. শান্ত, সাজ্জাদ হোসেন আলভী প্রমুখ।
মহানগর মৎস্যজীবী লীগ

মহানগর মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভা সংগঠনের মহানগর মৎস্যজীবী লীগের আহ্বায়ক আমিনুল হক বাবুল সরকারের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ গাফফার কুতুবীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামী মৎসজীবী লীগের সদস্য সচিব এম এ মোতালেব তালুকদার। বক্তব্য বাখেন মহানগর মৎস্যজীবী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ আজিজ, হেমায়েত হোসেন মিঠু, মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, ওয়াহিদুর রহমান, রিমন মুহুরী, মোহাম্মদ মুসা, এম এ জামান, মো. সেলিম, কাউসার উজ জামান, শামসুল আলম, এন এম রাজু চৌধুরী, আলমগীর জামান, রিমন বড়ুয়া, মো. আমিন, সিরাজুল ইসলাম, মো. আলমগীর মিয়া, আবুল বাশার প্রমুখ।
যুবলীগ মহানগর আওতাধীন ওয়ার্ডসমূহ

যুবলীগ মহানগর আওতাধীন ওয়ার্ডসমূহের সমাবেশ গত ২১ আগস্ট পাহাড়তলী সাগরিকা মোড়ে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন যুবলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য দেবাশীষ পাল দেবু। যুবলীগ নেতা প্রফেসর নুরুন্নবী পারভেজের সভাপতিত্বে ও মো. নজরুল ইসলাম ভূইয়ার সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সেকান্দর আলম, জাকের আহমেদ খোকন, নায়েবুল ইসলাম ফটিক, আনিফুর রহমান লিটু, রঞ্জিত শীল, মো. লোকমান, রায়হান নেওয়াজ সজীব, মারুফ আহম্মেদ, ইসকান্দর আলম, ইমতিয়াজ আহমেদ বাবলা, ইকবাল হোসেন, রাশেদ চৌধুরী, জাহেদ হোসেন খোকন, হোসেন মনির টিটু, মো. রাসেল, মো. শরীফ, ইব্রাহীম খলিল লিটন, বাবর উদ্দিন সাগর, মো. দিদার, ফরহাদ আব্দুল্লাহ, মো. সাজ্জাদ আলী, সাজিবুল ইসলাম সজীব, জুবায়ের হোসেন অভি, আবু নাছের জুয়েল, মাহমুদুর রহমান বাপ্পী, মো. এমরান, মো. ইসমাইল, সায়েম, খোকন, নিজাম উদ্দীন লিটন, মো. টিটু, জাহাঙ্গীর, স্বপন, সুজন, শরীফ, রাহাত, আরাফাত, জুম্মান, ইউসুফ, রাব্বি, প্রান্ত, রিয়াজ, পারভেজ, সাইফুল প্রমুখ।
হযরত আলী শাহ (র.) ইনস্টিটিউট মহল্লা কমিটি

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে এক দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা গত বুধবার উত্তর পতেঙ্গার পূর্ব হোসেন আহমদ পাড়া হযরত আলী শাহ (র.) ইনস্টিটিউট মহল্লা কমিটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়। ইনস্টিটিউটের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি শীলের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ৪০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল বারেক কোম্পানি। আমিনুল হক শাহীনের উপস্থাপনায় সভার শুরুতে পবিত্র কোরান থেকে তেলাওয়াত করেন হাফেজ আতিক। মাজার গলি মহল্লা কমিটি আয়োজিত সভায় উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা নারী শক্তির পরিচালক হালিমা বারেক, ৪০নং ওয়ার্ড যুব মহিলা লীগের সভাপতি সুরমা আজিজ, সাধারণ সম্পাদক শারমিন আক্তার, সাংগঠনিক সম্পাদক পারভিন বেগম। প্রধান অতিথি বলেন, সেদিনের হামলায় আইভি রহমানসহ আওয়ামী লীগের ২৪ জন নেতাকর্মী প্রাণ হারালেও আল্লাহর রহমতে শেখ হাসিনা বেঁচে যান। খুনিরা তাকে হত্যা করে বাংলার মাটি থেকে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের নাম-নিশানা মুছে ফেলতে চেয়েছিল। কিন্তু তাদের অসৎ উদ্দেশ্য সফল হয়নি, ভবিষ্যতেও হবে না। বক্তারা গ্রেনেড হামলার ঘটনায় সাজাপ্রাপ্ত বিদেশে পলাতক ১৯ আসামিকে দেশে ফিরিয়ে এনে দ্রুত বিচারের রায় কার্যকর করার দাবি জানান। সভা শেষে নিহতদের স্মরণে বিশেষ মোনাজাত করেন মাওলানা রবিউল হোসেন।

x