উৎপাদনে এল ৪০৫ মেগাওয়াটের দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র

শুকলাল দাশ

বুধবার , ১২ জুন, ২০১৯ at ৫:০৮ পূর্বাহ্ণ
408

চট্টগ্রামের শিকলবাহা ও আনোয়ারায় উৎপাদনে এসেছে ৪০৫ মেগাওয়াটের দুটি বিদ্যুৎকেন্দ্র। এর মধ্যে শিকলবাহা পাওয়ার লিমিটেড থেকে ১০৫ মেগাওয়াট এবং আনোয়ারায় সিইউএফএল সার কারখানার পাশে ইউনাইটেড পাওয়ার থেকে ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। এছাড়া আগামী মাসে ২৫৫ মেগাওয়াটের আরো ৩টি কেন্দ্র উৎপাদনে আসছে।
শিকলবাহা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান প্রকৌশলী ভূবন বিজয় দত্ত আজাদীকে জানান, শিকলবাহা ও জুলধায় অনেকগুলো বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মিত হচ্ছে। এর মধ্যে কয়েকটি উৎপাদনে এসেছে। আগামী এক-দুই মাসের মধ্যে উৎপাদনে আসবে আরো কয়েকটি। বেশ কয়েকটির নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে।
তিনি জানান, ঈদের কয়েকদিন আগে বারাকা শিকলবাহা পাওয়ার লি. থেকে ১০৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়েছে। একই গ্রুপের কর্ণফুলী পাওয়ার লিমিটেড নামে আরেকটি কেন্দ্র থেকে আগামী ২ মাসের মধ্যে ১১০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে। জুলধা ২ নং ইউনিট থেকে ১০৮ মেগওয়াট বিদ্যুৎ আগামী মাসে জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে। এদিকে, একই স্থানে জডিয়াক পাওয়ার চট্টগ্রাম লিমিটেডের ৫৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাজ শেষে এখন উৎপাদনের অপেক্ষায় আছে। যেকোনো মুহূর্তে এই কেন্দ্রের বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে।
আনোয়ারায় নির্মিত ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী কামরুদ্দিন আহমেদ আজাদীকে জানান, সিইউএফএল এবং কাফকোর পাশে ইউনাইটেড গ্রুপ ৩০০ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎকেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ শেষ করেছে। এখন কমিশনিং চলছে। এ মাসের শেষের দিকে এই কেন্দ্রের ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে। পরীক্ষামূলক উৎপাদন চলছে বেশ কয়েকদিন ধরে।
আনলিমা এনার্জি লিমিটেডের ১১৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক ও পিডিবির প্রকৌশলী অসীম ব্যানার্জী আজাদীকে জানান, কেন্দ্রটি চলতি বছরের ২৪ নভেম্বর জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে। এখন শেষ মুহূর্তের কাজ চলছে। কেন্দ্রের মেইন মেশিন বসে গেছে। ধাপে ধাপে অন্যান্য মেশিনারিজ বসছে। ট্রান্সফর্মার, ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট এসবের কাজ চলছে।
পটিয়ার শিকলবাহা, কর্ণফুলীর জুলধা এবং আনোয়ারার একটিসহ মোট ৬টি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাজ শুরু হয়েছিল গত বছর। এর মধ্যে একটি কেন্দ্র উৎপাদনে এসেছে কয়েক মাস আগে। পিডিবির সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা জানান, বেসরকারি পর্যায়ে এসব বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মিত হলেও পিডিবির প্রকৌশলীদের তত্ত্বাবধানেই এগুলো বাস্তবায়িত হচ্ছে।

x