উত্তর রাখাইনে মূল্যায়ন কার্যক্রম চালাতে অনুমতি পেল জাতিসংঘ

উখিয়া প্রতিনিধি

শনিবার , ১১ আগস্ট, ২০১৮ at ৪:০০ পূর্বাহ্ণ
143

সংকটাপন্ন উত্তর রাখাইনের ২৩ গ্রামে কার্যক্রম চালানোর অনুমোদন দিয়েছে মিয়ানমার। বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের লক্ষ্যে দুই মাস পূর্বে জাতিসংঘের দুইটি সংস্থার সাথে করা সমঝোতা চুক্তির অনুবলে এ অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। রোহিঙ্গা ফিরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে প্রস্তুতি সরজমিনে দেখতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী চারদিনের সফরে বর্তমানে মিয়ানমার রয়েছেন। দেশটির গণমাধ্যম মিয়ানমার টাইমস গতকাল শুক্রবার জানিয়েছে, মিয়ানমারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জাতিসংঘ কর্মীদের উত্তর রাখাইনে তাদের মূল্যায়ন কার্যক্রম চালানোর অনুমতি দিয়েছে। গত বুধবার জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর ও উন্নয়ন সংস্থা ইউএনডিপি যৌথভাবে দুই মাস পূর্বে সম্পাদিত সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী রাখাইনে কার্যক্রম চালানোর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিবৃতি দেন। গত ৬ জুন বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন কার্যক্রমের সহায়তায় মিয়ানমার জাতিসংঘের এ দুই সংস্থার সাথে সমঝোতা স্মারকপত্র স্বাক্ষর করে। ওইসময় ১৪ জুনের মধ্যে রাখাইনে জাতিসংঘ কর্মীদের কার্যক্রম চালানোর অনুমতি দিতে মিয়ানমারকে অনুরোধ জানিয়েছিল জাতিসংঘ।

চুক্তি স্বাক্ষরের দুই মাসের বেশী সময় পর মিয়ানমার জাতিসংঘ কর্মীদের উত্তর রাখাইনে কার্যক্রম চালানোর অনুমতি দিয়েছে। মিয়ানমারের শ্রম, অভিবাসন ও জনসংখ্যা মন্ত্রণালয়ের সাথে সহ অন্যান্য সংশ্লিষ্টদের সাথে সমম্বয় করার তাগিদও দিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। উত্তর রাখাইনের বুচিডংয়ে ১২টি ও মংডুতে ১১ টি নির্দিষ্ট গ্রামে জাতিসংঘ কর্মীরা তাদের মূল্যায়ন কার্যক্রম চালাতে পারবে। মিয়ানমারের পক্ষ থেকে এমন মুহূর্তে জাতিসংঘকে অনুমতি দিল যখন রোহিঙ্গাদের ফেরত নেওয়ার কার্যক্রমে মিয়ানমারের গৃহীত প্রস্তুতি সরজমিনে দেখতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী আবুল হাসান মোহাম্মদ আলী ও পররাষ্ট্র সচিব মোঃ শহিদুল হকের নেতৃত্বে উভয় দেশের গঠিত ৩০ সদস্যের যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বাংলাদেশের ১৫ সদস্যের প্রতিনিধি দলও মিয়ানমার সফরে রয়েছে।

x