উত্তর চট্টগ্রামে ৪টিতে নতুন মুখ, ৩টিতে পুরনোরাই

বৃহত্তর চট্টগ্রামে ৩২ চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ঘোষণা আ.লীগের

শুকলাল দাশ

সোমবার , ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ at ৬:৫৫ পূর্বাহ্ণ
1281

দ্বিতীয় ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উত্তর চট্টগ্রামের ৭ উপজেলা, কক্সবাজারের চকরিয়া ও তিন পার্বত্য জেলার ২৪ উপজেলাসহ সর্বমোট ৩২ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ। বৃহত্তর চট্টগ্রামের এই ৩২ উপজেলায় দ্বিতীয় ধাপে আগামী ১৮ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
উপজেলাগুলো হলো- উত্তর চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড, রাঙ্গুনিয়া, ফটিকছড়ি, রাউজান, মীরসরাই, হাটহাজারী ও সন্দ্বীপ। এছাড়া রয়েছে কক্সবাজারের চকরিয়া। অন্যদিকে রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবন জেলার সব উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। চট্টগ্রামে ৭ উপজেলার মধ্যে ৪ উপজেলায় দলীয় চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন পেয়েছে নতুন মুখ। তবে সীতাকুণ্ড, রাউজান ও সন্দ্বীপ উপজেলায় বর্তমান চেয়ারম্যানদের আবারো মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে বৃহত্তর চট্টগ্রামের ৩২ উপজেলার মধ্যে অধিকাংশই নতুন মুখ। উত্তর চট্টগ্রামের ৭ উপজেলায় দলীয় মনোনয়ন পাওয়া চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন- হাটহাজারীতে উত্তর জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম রাশেদুল আলম, সীতাকুণ্ডে উত্তর জেলা যুবলীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম আল মামুন, সন্দ্বীপে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, রাঙ্গুনিয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খলিলুর রহমান, মীরসরাইয়ে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জসীম উদ্দিন, ফটিকছড়িতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. নাজিম উদ্দিন এবং রাউজানে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম এহেছানুল হায়দার চৌধুরী। রাঙামাটি জেলার ৯ উপজেলায় দলীয় চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। যারা মনোনয়ন পেয়েছেন তারা হলেন- রাঙামাটি সদর উপজেলায় শহীদুজ্জামান মহসীন, কাউখালী উপজেলায় শামসুদ্দোহা চৌধুরী, রাজস্থলী উপজেলায় উবাজ মার্মা, লংগদু উপজেলায় আবদুল বারেক সরকার, বিলাইছড়ি উপজেলায় জয় সেন তঞ্চঙ্গ্যা, কাপ্তাই উপজেলায় মফিজুল হক, বরকল উপজেলায় সাবির কুমার চাকমা, জুরাছড়ি উপজেলায় রূপ কুমার চাকমা ও বাঘাইছড়ি উপজেলায় ফয়েজ আহমেদ।
খাগড়াছড়ি জেলায় দলীয় চেয়ারম্যান পদে যারা মনোনয়ন পেয়েছেন তারা হলেন- খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার শানে আলম, মানিকছড়ি উপজেলায় জয়নাল আবেদীন, লক্ষ্মীছড়ি উপজেলায় বাবুল চৌধুরী, দীঘিনালা উপজেলায় মো. কাশেম, মহালছড়ি উপজেলায় ক্যজাই মার্মা, পানছড়ি উপজেলায় বিজয় কুমার দেব, মাটিরাঙ্গা উপজেলায় রফিকুল ইসলাম ও রামগড় উপজেলায় বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী।
বান্দরবান জেলায় দলীয় চেয়ারম্যান পদে যারা মনোনয়ন পেয়েছেন তারা হলেন- বান্দরবান সদর উপজেলায় সাংবাদিক এ কে এম জাহাঙ্গীর, রোয়াংছড়ি উপজেলায় চবাইমং মারমা, আলীকদম উপজেলায় জামাল উদ্দীন, থানছি উপজেলায় খোয়াই হলা মং মারমা, লামা উপজেলায় মো. ইসমাইল, রুমা উপজেলায় উহলাচিং মার্মা, লাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় মোহাম্মদ শফিউল্লাহ। এছাড়া কঙবাজারের চকরিয়া উপজেলায় মনোনয়ন পেয়েছেন গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী।
ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, দ্বিতীয় ধাপের মনোনয়ন দাখিলের শেষ সময় ১৮ ফেব্রুয়ারি, যাচাই-বাছাই ২০ ফেব্রুয়ারি, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৭ ফেব্রুয়ারি এবং ভোট গ্রহণ ১৮ মার্চ।
এপর্যায়ে ৫টি বিভাগের ১৭টি জেলার মোট ১২৯টি উপজেলায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে। গতকাল ১২২ উপজেলায় দলীয় চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ড।
নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তৃতীয় ধাপে ২৪ মার্চ ও চতুর্থ ধাপে ৩১ মার্চ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া পঞ্চম ও শেষ ধাপে ভোট হবে ১৮ জুন।
আমাদের প্রতিনিধি জানান, খাগড়াছড়ির আট উপজেলার মধ্যে নির্বাচনে নতুন মুখ এসেছে পাঁচ উপজেলায়। এবার প্রথমবারের মতো আওয়ামী লীগের ‘নৌকা’ প্রতীক নিয়ে লড়বেন এই ৫ জন। নবীন প্রার্থীরা হলেন- মানিকছড়ির মো. জয়নাল আবেদীন, মাটিরাঙ্গার মো. রফিকুল ইসলাম, লক্ষীছড়ির বাবুল চৌধুরী, পানছড়ির বিজয় কুমার দেব এবং মহালছড়ির ক্যজাই মারমা। অন্যদিকে বাকিরা আগে একাধিকবার নির্বাচনে উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন।
আমাদের বান্দরবান প্রতিনিধি জানান, বান্দরবানের সাতটি উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে ছয়টি উপজেলায় পুরনো প্রার্থীদের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। শুধুমাত্র নতুন প্রার্থী হিসেবে সদর উপজেলায় সাংবাদিক একেএম জাহাঙ্গীরকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক আবুল কালাম মুন্না বলেন, জেলা আওয়ামী লীগ সাতটি উপজেলা থেকে তিনজন করে প্রার্থীর নাম কেন্দ্রে পাঠিয়েছিল। তালিকা থেকে যাচাই বাছাই করে কেন্দ্রীয়ভাবে ৭ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীকে চূড়ান্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি ভাইস চেয়ারম্যানদের তালিকাও পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের বিষয়টি এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি।
আমাদের রাঙামাটি প্রতিনিধি জানান, রাঙামাটিতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১০ উপজেলার মধ্যে ৯টিতে চেয়ারম্যান প্রার্থী চূড়ান্ত হয়েছে। শুধুমাত্র নানিয়ারচর উপজেলায় এখনও প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়নি।
আমাদের চকরিয়া প্রতিনিধি জানান, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের সদ্য পদত্যাগী চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীকে। গতকাল রবিবার আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ঢাকাস্থ ধানমন্ডি কার্যালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দ্বিতীয় দফায় ১২২ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেন। সেখানে চকরিয়া উপজেলায় গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী নাম উল্লেখ করা হয়।

- Advertistment -