ঈদ স্পেশাল আয়োজন

রেসিপি দিয়েছেন তামান্না আহমেদ

রবিবার , ৪ আগস্ট, ২০১৯ at ৮:৫১ পূর্বাহ্ণ
184

থাই চিলি বিফ
উপকরণ : গরুর মাংস (হাড় ছাড়া) ৩৭৫ গ্রাম। কাঁচামরিচ ফভলি ২টি। শুকনা-মরিচ ফালি ১টি। গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ। চিনি ১ চা-চামচ। সয়াবিন তেল ২ টেবিল-চামচ। ফিশ সস ১ টেবিল-চামচ। রসুন ছেঁচা ৬ কোয়া। ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ। ওয়েস্টার সস ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।
প্রণালী : হাড় ও চর্বি ছাড়া মাংস নিন। ১ আঙুল সমান লম্বা ও মোটা করে টুকরা করুন। মাংসে লবণ, গোলমরিচ মাখিয়ে রাখুন। ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে রসুন দিয়ে ভাজুন। রসুন হালকা ভাজা হলে মাংস দিন। নেড়ে নেড়ে মাংস হালকা বাদামি রং হওয়া পর্যন্ত ভাজুন। মাংস সেদ্ধ না হলে ১ কাপ পানি দিন, না ফুটে ওঠা পর্যন্ত রাখুন। মরিচ, চিনি, ফিশসস, সয়াসস ও ওয়েস্টার সস দিন। নেড়ে মাঝারি আঁচে ৫ মিনিট সিদ্ধ করুন। মাঝে মাঝে মাংস উল্টে দেবেন। ধনেপাতা দিয়ে নেড়ে নামান। গরম গরম পরিবেশন করুন।

রোজমেরি বিফ স্টেক

উপকরণ: হাড় চর্বি ছাড়া মাংসের স্টেক পিস ২টি, বালসামিক ভিনেগার- আধ চা চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া- আধ চা চামচ, রোজমেরি- আধ চা চামচ, লবণ- স্বাদ মতো (বালসামিক ভিনেগারে লবণ থাকে। অল্প দিলেও হয়), তেল- ১ চা চামচ।
প্রণালি : মাংস ধুয়ে একদম পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। পানি ঝরানো শেষে তেল ছাড়া সব উপকরণ দিয়ে একসঙ্গে মেখে ৩০ মিনিট ডিপ ফ্রিজে রাখুন। এবার একটি ফ্রাই প্যানে তেল দিয়ে গরম করে তাতে দুপিঠ উলটে পালটে ১২ মিনিট ভাজুন। স্টেক ভাজার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে তাপমাত্রা। এই তাপমাত্রা ৫৫ থেকে ৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা হতে হবে। রেয়ার বা মিডিয়াম রেয়ার স্টেক খেতে চাইলে ৫৫ ডিগ্রি তাপে উভয় পাশে ৫-৭ মিনিট ভাজতে হবে। স্টেক পরিবেশন করুন ফল কিংবা সবজির সালাদ দিয়ে।

মাসালা মাটন লেগ
উপকরণ : খাসির রান একটা, টকদই এক কাপ, টমেটো সস্‌ দুই টেবিল চামচ, মরিচ গুঁড়া এক চা চামচ, ধনিয়া ও জিরা গুঁড়া এক চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, বাদাম ও পোস্ত বাটা দুই টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা এক কাপ, পেঁয়াজ বাটা এক চামচ, গরম মসলা গুঁড়া এক চা চামচ, ঘি দুই টেবিল চামচ, তেল এক কাপ, চিনি সামান্য, কিশমিশ বাটা এক চা চামচ, আদা বাটা এক টেবিল চামচ, রসুন বাটা এক চা চামচ, ঘন দুধ এক কাপ।
প্রণালি : খাসির রান ধুয়ে কাঁটা চামচ দিয়ে কেঁচে নিতে হবে। এবার এর সঙ্গে গুঁড়া ও বাটা মসলা, টকদই দিয়ে মেখে এক ঘণ্টা ম্যারিনেট করে রাখতে হবে। প্যানে ঘি ও তেল দিয়ে তাতে ম্যারিনেট করা রান দিয়ে সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করতে হবে। এবার অন্য একটি পাত্রে ঘি গরম করে তাতে রানটা ভাজতে হবে। এর মধ্যে পেঁয়াজ বেরেস্তা, ঘন দুধ, চিনি ও কাঁচামরিচ, গরম মসলা গুঁড়া দিয়ে ঢেকে রাখতে হবে দশ মিনিট। এরপর নামিয়ে বাদাম ও কিশমিশ ওপরে দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

গরুর মাংসের কালো ভুনা
উপকরণ : মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ২ কাপ, আদা-রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ, হলুদ-মরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ, কালো গোলমরিচ গুঁড়া ২ চা চামচ, কাবাব চিনি ৪-৫টি, শাহিজিরা টালা ২ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া ২ চা চামচ, জায়ফল-জয়ত্রী বাটা আধা চা চামচ, শুকনা মরিচ ৪-৫টি, ধনিয়া-জিরা গুঁড়া ২ চা চামচ, লবঙ্গ ৩-৪টি, টকদই ১ কাপ, তেজপাতা ২টি, কাঁচামরিচ ৮-১০টি, আস্ত রসুন কোয়া ৪-৫টি, সয়াবিন তেল আধা কাপ, সরিষার তেল ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো।
প্রণালি : মাংস ছোট টুকরা করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। সয়াবিন তেল, রসুন, পেঁয়াজ কুচি ও শুকনা মরিচ আলাদা করে রাখুন। হাঁড়িতে মাংস ও সব উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে ২ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে ভালোভাবে কষিয়ে মাঝারি আঁচে রান্না করুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে এলে নামিয়ে রাখুন। একটি কড়াইতে সরিষার তেল গরম করে পেঁয়াজ হালকা বাদামি করে শুকনা মরিচ, রসুন কোয়া ভেজে রান্না করা মাংস দিয়ে ক্রমাগত নেড়ে ভাজতে থাকুন। মাংস হালকা কালো হয়ে এলে গরম মসলা, ধনিয়া গুঁড়া ছিটিয়ে ২-৩ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

শাহী মাটন লেগ বিরিয়ানি
উপকরণ : খাসির রান একটা, বাসমতী চাল ৫০০ গ্রাম, টকদই এক কাপ, বাদাম ও পোস্ত বাটা দুই টেবিল চামচ, ফ্রেশ ক্রিম এক কাপ, ঘি এক কাপ, মরিচ গুঁড়া দুই চা চামচ, আদা ও রসুন বাটা এক টেবিল চামচ, গরম মসলা গুঁড়া এক চা চামচ, ভাজা আলু ছয় টুকরা, জাফরান পরিমাণমতো, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, কাঁচামরিচ ছয়টি, কেওড়া জল এক টেবিল চামচ, আলুবোখারা পাঁচটি, লবণ স্বাদমতো, চিনি স্বাদমতো, টমেটো সস্‌ দুই টেবিল চামচ।
প্রণালি : সব মসলা দিয়ে খাসির রান মেখে এক ঘণ্টা ম্যারিনেট করতে হবে। প্যানে তেল দিয়ে পেঁয়াজ ও অন্যসব উপকরণ দিয়ে রানটা সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করতে হবে। বাসমতী চাল ৩০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে লবণ দিয়ে সিদ্ধ করে নিতে হবে। এবার চাল ও মাংস একসঙ্গে করে ওপরে ঘি, ক্রিম, কাঁচামরিচ ও বেরেস্তা দিয়ে ঢেকে দমে রেখে হয়ে গেলে পরিবেশন করতে হবে।

মেজবানি মাংস
উপকরণ : গরুর মাংস ২ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, হলুদ ও লাল মরিচ গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ, ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ১ কাপ, মাংসের মসলা ১ চা চামচ, টক দই ১ কাপ, কাঁচামরিচ ১০/১২টি, গোলমরিচ ১ চা চামচ, দারুচিনি ও এলাচ ৫/৬টি, জয়ফল ও জয়ত্রী আধা চা চামচ, মেথি গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো।
প্রণালি : গরুর মাংস ধুয়ে নিয়ে একটি চালুনি পাত্রে রেখে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার একটি পাত্রে মাংস, তেল, টক দই, হলুদ, মরিচ, আদা, রসুন, পেঁয়াজ, লবণ সহ সব মসলা নিয়ে ঘণ্টা খানিক মেরিনেট করে রাখুন। অর্ধেক পেঁয়াজ তেলে ভেজে বেরেস্তা করে নিন। চুলায় হাঁড়ি বসিয়ে মেরিনেট করা মাংস কষিয়ে নিন। হাঁড়িতে ২ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে আরো কিছুক্ষণ কষাতে হবে। মাংস থেকে পানি ঝরে গেলে মৃদু আঁচে মাংস সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত জ্বাল দিন। মাংসের পানি শুকিয়ে গেলে কাঁচামরিচ, ধনে, জিরা গুঁড়া দিয়ে মৃদু আঁচে ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে তারপর পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন সুস্বাদু গরুর মেজবানি মাংস। মেজবানি মাংস রান্নার জন্য বাজারের লাল মরিচের গুঁড়া পাওয়া যায় যেটা খেতে খুব একটা ঝাল না কিন্তু মাংসের লাল রং করার জন্য এই ঝালের গুঁড়া ব্যবহার করা হয়।

কোফতা বিরিয়ানি

উপকরণ: পোলাওয়ের চাল সেদ্ধ- ২ কাপ, মাংসের কিমা- ৩ কাপ, আদা বাটা- ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা- ২ টেবিল চামচ, জিরা গুঁড়া- ২ টেবিল চামচ, ধনিয়া গুঁড়া- ২ টেবিল চামচ, মরিচের গুঁড়া- ২ টেবিল চামচ, টমেটো সস- ২ টেবিল চামচ, গরম মসলা গুঁড়া- ২ টেবিল চামচ, টক দই- ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কিমা- ৩ টেবিল চামচ, ধনেপাতা- ১ কাপ, কাঁচামরিচ- ৮/১০টি, পেঁয়াজ বেরেস্তা- ১ কাপ, তেল- চার ভাগের এক কাপ, ঘি- চার ভাগের এক কাপ, নারকেলের দুধ- ১ কাপ, জর্দার রং- সামান্য।
প্রণালি: একটি পাত্রে কিমার সঙ্গে অর্ধেক পরিমাণ বাটা ও গুঁড়া মসলা মেখে কোফতা বানিয়ে রাখতে হবে। হাঁড়িতে তেল ও ঘি গরম করে বাটা ও গুঁড়া মসলা কষিয়ে কোফতা দিয়ে কষাতে হবে। টক দই, কাঁচামরিচ, টমেটো সস ও ধনেপাতা দিয়ে রান্না করে নামিয়ে রাখতে হবে। আরেকটি হাঁড়িতে ঘি দিয়ে চাল, বেরেস্তা, ধনেপাতা রান্না করা কোফতা এইভাবে লেয়ারে সাজিয়ে উপরে তরল দুধ, রং ও ঘি দিয়ে ১৫ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

বিফ উইথ নাটস
উপকরণ : গরুর মাংস এক কেজি, বাদাম বাটা এক কাপ, কাজু বাদাম ভাজা মনমতো, কাঠ বাদাম আস্ত কয়েকটি, টক দই এক কাপ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, রসুন বাটা এক টেবিল চামচ, আদা বাটা এক টেবিল চামচ, জিরা বাটা এক চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া এক চা চামচ, পিনাট অয়েল ৩-৪ কাপ, ৩-৪ কাপ সয়াসস, স্বাদমতো লবণ।
প্রণালি : মাংস একটু বড় বড় টুকরা করে কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। দই, পেঁয়াজ বাটা, আদা-রসুন বাটা, জিরা বাটা, সব গরম মসলা, অল্প বাদাম বাটা, লবণ এবং এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ তেল দিয়ে মাংস মাখিয়ে দুই ঘণ্টা রেখে দিন। তারপর মাংস ঢেকে ভালো মতো কষিয়ে রান্না করুন। অল্প অল্প পানি দিয়ে মাংস সিদ্ধ করুন। লক্ষ্য রাখুন পুড়ে যেন না যায়। এবার অন্য একটি হাঁড়িতে আরও কিছু তেল গরম করে কষানো মাংস এবং বাকি বাদাম বাটা দিয়ে ৪-৫ মিনিট পর সয়াসস দিতে হবে। এরপর ভাজা কাজু বাদাম, কাঠবাদাম দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

থাই বিফ সালাদ
উপকরণ: হাড় ছাড়া গরুর মাংস ২৫০ গ্রাম, লেটুস পাতা পরিমাণমতো, শসা মাঝারি আকারের ১টি, টমেটো ২টি, সবুজ, লাল আর হলুদ কাপসিক্যাম (প্রতিটির ৪ ভাগের এক ভাগ), পুদিনা পাতা ৮ থেকে ১০টি, ধনেপাতা ৮ থেকে ১০টি, লাল রঙের মরিচ ৩টি, রসুনের ২ কোয়া, আদা ৫ গ্রাম, লাল পেঁয়াজ অর্ধেক ও সেসিমি সিডস্‌। ড্রেসিংয়ের জন্য লাগবে: ২ টেবিল-চামচ লেবুর রস, সেসিমি অয়েল ১ টেবিল-চামচ, অয়েস্টার সস ১ টেবিল-চামচ, অলিভ অয়েল ২ টেবিল-চামচ, লবণ, চিনি, মরিচ গুঁড়া স্বাদের জন্য।
প্রণালি: মাংস ছোট ছোট করে কেটে নিন (৫ মি.মি. সাইজের)। ড্রেসিংয়ের অর্ধেক অংশ নিয়ে মাংস ২-৩ ঘন্টা ধরে মেরিনেইট করুন। ক্যাপসিকাম, টমেটো আর শসা ধুয়ে কেটে একটি পাত্রে ড্রেসিংয়ে মিলিয়ে নিন। ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে মাংস ভালোভাবে ভেজে নিন। একটি প্লেটে সালাদ সাজিয়ে তার উপর মাংস দিয়ে তাতে সেসিমি সিডস ছড়িয়ে দিয়ে পরিবেশন করুন।

পোস্ত সরিষায় গরুর মাংস
উপকরণ : গরুর মাংস দুই কেজি, পোস্ত বাটা দুই টেবিল চামচ, সরিষা বাটা দুই চা চামচ, হলুদ গুঁড়া দেড় চা চামচ, মরিচ গুঁড়া দুই চা চামচ, মেথি সামান্য, ধনিয়া ও জিরা গুঁড়া দুই চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া এক চা চামচ, তেল এক কাপ, লবণ স্বাদমতো, পেঁয়াজ কুচি দুই কাপ, আদা বাটা দুই টেবিল চামচ, রসুন বাটা দুই চা চামচ, রসুন কোয়া দশ-বারোটি।
প্রণালি: গরুর মাংস ছোট করে কেটে নিতে হবে। মাংসের সঙ্গে সব উপকরণ মেখে ৩০ মিনিট রেখে দিতে হবে। এবার প্যানে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে লাল করে ভেজে এতে মাংস দিয়ে কষিয়ে রান্না করতে হবে। মাংস সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করতে হবে এবার অন্য পাত্রে সরিষার তেল দিয়ে তাতে সরিষা, মেথি, শুকনা মরিচ ফোঁড়ন দিয়ে মাংসে ঢেলে দিতে হবে। কিছুক্ষণ ঢেে

মোগলাই বিফ বিরিয়ানি
উপকরণ : গরুর মাংস দেড় কেজি, বাসমতী চাল ৫০০ গ্রাম, বাদাম ও পোস্ত বাটা দুই টেবিল চামচ, আস্ত বাদাম ও কিশমিশ পরিমাণমতো, পেঁয়াজ কুচি এক কাপ, আদা ও রসুন বাটা এক টেবিল চামচ, জাফরান পরিমাণমতো, ঘি এক কাপ, মরিচ গুঁড়া এক চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া অল্প ধনিয়া ও পুদিনাপাতা বাটা এক চা চামচ, কেওড়া ও গোলাপ জল দুই চা চামচ, লবণ, টকদই, পেঁয়াজ বেরেস্তা, আলুবোখারা, ধনিয়া, জিরা গুঁড়া, ঘন দুধ এক কাপ।
প্রণাালি : গরুর মাংসের সঙ্গে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা দিয়ে মেখে সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত রান্না করতে হবে। বাসমতী চাল ধুয়ে ৩০ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে। গরম পানিতে গরম মসলা দিয়ে তাতে চাল দিয়ে আধা সিদ্ধ করে নিতে হবে। এবার চালের পানি ঝরিয়ে ঠাণ্ডা করে মাংস ও ভাত লেয়ার করে তাতে বাদাম, আলুবোখারা, বেরেস্তা, দুধ, জাফরান, ঘি দিয়ে গোলাপ ও কেওড়া জল ছিটিয়ে দমে রেখে হয়ে গেলে পরিবেশন করতে হবে।ক রেখে পরিবেশন করতে হবে।

ক্যাপসিকাম বিফ ভুনা
উপকরণ : মাংসের চাপ ১ কেজি, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, হলুদ-মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামাচ, আদা-রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ, ধনিয়া-জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, কাবাব মসলা ১ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, জায়ফল-জয়ত্রী বাটা আধা চা চামচ, টমেটো সস ১ টেবিল চামচ, বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, টকদই আধা কাপ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, ক্যাপসিকাম বাটা ১ কাপ, সরিষার তেল ভাজার জন্য, লবণ স্বাদমতো।
প্রণালি : মাংসের চাপগুলো ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে হালকা থেঁতলে নিন। একটি পাত্রে মাংসের চাপ, টকদই, লেবুর রস ও বাটা গুঁড়া মসলা ভালোভাবে মেখে ১ ঘণ্টা ম্যারিনেট করে রাখুন। ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে ম্যারিনেট করা মাংসের চাপগুলো এপিঠ-ওপিঠ বাদামি করে ভেজে তেল ঝরিয়ে রুটি বা পরোটার সঙ্গে পরিবেশন করুন মুখরোচক ক্যাপসিকাম বিফ ভুনা।

ক্রিসপি কলিজা

উপকরণ: কলিজা- আধা কেজি (কিউব করে কাটা), আদা-রসুন পেস্ট- ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া- আধা চা চামচ, সয়া সস- দেড় টেবিল চামচ, চালের গুঁড়া ৩ টেবিল চামচ, লবণ- পরিমাণ মতো, ভাজার জন্য তেল।
প্রণালি: কলিজা কিউব করে কেটে ফুটন্ত পানিতে ছেড়ে দিন। পানিতে দুই মিনিট ফুটিয়ে পানি ঝরিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। এরপর তেল ছাড়া সব উপকরণ দিয়ে কলিজা মেখে রাখুন ৩০ মিনিট। কড়াইয়ে ডুবো তেল দিন। ডুবো তেলে চালের গুঁড়া মাখানো কলিজা মাঝারি আঁচে মুচমুচে করে ভেজে তুলুন। এমনি এমনি বাটি ভরে খাওয়া যায় এই ক্রিসপি কলিজা।

গরুর পায়ার নেহারি
উপকরণ : গরু বা খাসির পায়া ৪টি, পেঁয়াজ স্লাইস ১ কাপ, আদা-রসুন ছেঁচা ২ টেবিল চামচ, হলুদ-মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, মৌরি ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, শাহিজিরা আধা চা চামচ, দারুচিনি এলাচ ৩-৪টি, লবঙ্গ ৪-৫টি, জায়ফল-জয়ত্রী বাটা আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ ৬-৭টি, তেজপাতা ২টি, শুকনামরিচ ১০-১২টি, রসুন কুচি ১ টেবিল চামচ, তেল পরিমাণমতো, লবণ স্বাদমতো।
প্রণালি : প্রথম পর্যায়ে : পায়া ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। হাঁড়িতে তেল গরম করে পেঁয়াজ, আদা-রসুন, হলুদ-মরিচ গুঁড়া, দারুচিনি-এলাচ, লবঙ্গ, তেজপাতা হালকা ভেজে ৫ লিটার পানিতে পায়া, জায়ফল-জয়ত্রী বাটা, মৌরি, শাহিজিরা দিয়ে ভালো করে নেড়ে সারা রাত অল্প আঁচে রান্না করুন। এতে স্বাদমতো লবণ, কাঁচামরিচ দিন। ঝোল ঘন হয়ে এলে নামিয়ে রাখুন। দ্বিতীয় পর্যায়ে : কড়াইতে ১ টেবিল চামচ তেল গরম করে রসুন, শুকনামরিচ বাদামি করে নেহারির হাঁড়িতে ঢেলে বাগার দিন। এবার পরিবেশন বাটিতে ঢেলে পেঁয়াজ, আদা, কাঁচামরিচ পুদিনাপাতা কুচি ছিটিয়ে লেবুর রস দিয়ে তন্দুরি রুটির সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন।

ঝুরা মাংস
উপকরণ: গরুর মাস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি দেড় কাপ, ১ চা-চামচ আদা বাটা, ১ চা-চামচ রসুন বাটা, লবণ স্বাদমতো, ১ চা-চামচ গোলমরিচ বাটা, ১ চা-চামচ জিরা বাটা, ধনে বাটা ১ চা-চামচ, বাদাম বাটা ১/২ চা-চামচ, হলুদ গুঁড়া ১/২ চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া ১/২ চা-চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, সরষে বাটা ১/২ চা-চামচ, এলাচি-দারুচিনি-লবঙ্গ কয়েকটা, তেজপাতা ৩-৪টা, তেল ১ কাপ ও গরম মসলা গুঁড়া ১/২ চা-চামচ।
প্রণালি: পেঁয়াজকুচি আধা কাপ তেলে বাদামি করে ভেজে সব মসলা কষিয়ে নিয়ে মাংস দিয়ে দিতে হবে। পরিমাণ মতো পানি দিয়ে মাংস সেদ্ধ করে নিতে হবে। অনেকক্ষণ জ্বাল দিয়ে মাংসের পানি শুকিয়ে গেলে নামিয়ে নিয়ে মাংস নেড়েচেড়ে ঝুরা করে নিতে হবে। অল্প তেলে ১ কাপ পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে ঝুরা মাংস দিয়ে নাড়তে হবে। ভাজা ভাজা হয়ে গেলে গরম মসলা ও গোলমরিচের গুঁড়া দিয়ে মাংস নামিয়ে নিতে হবে । ব্যাস হয়ে গেল ঝুরা মাংস রান্না। এর পর খাওয়ার আগে গরম করে পরিবেশন করতে হবে।

x