ঈদ আয়োজন

রেসিপি দিয়েছেন কানিজ ফারজানা

রবিবার , ১০ জুন, ২০১৮ at ৩:২৯ অপরাহ্ণ
13

চিকেন ললিপপ

উপকরণ: ডিম ১টি, কর্নফ্লাওয়ার আধা কাপ (প্রয়োজনে আরও বেশি দেওয়া যাবে), গোলমরিচগুঁড়ো ১ চা চামচ, আদাবাটা আধা চা চামচ, রসুনবাটা আধা চা চামচ, সয়াসস ১ টেবিল চামচ, লবণ সামান্য, তেল ভাজার জন্য।

প্রণালি: চিকেন ললিপপের সব উপকরণ দিয়ে কমপক্ষে ২ ঘণ্টা মাখিয়ে রাখুন। তার পর ডুবো তেলে সোনালি করে ভেজে নিন। এমনভাবে ভাজবেন যেন ভেতরে সিদ্ধ হয় আর বাইরে গোল্ডেন ব্রাউন হয়।

চিকেন ললিপপের সস : উপকরণ : বারবিকিউ সস আধা কাপ, ১ কোয়া রসুন সদ্য মিহি করে ছেঁচে নেওয়া, চিলিসস ১ টেবিল চামচ, টমেটো সস ১ টেবিল চামচ, চিনি স্বাদমতো, সামান্য একটু লেবুর রস, চিকেন স্টক অল্প।

প্রণালি : এসব উপকরণ খুব ভালো করে মিশিয়ে মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন। বেশি ঘন মনে হলে চিকেন স্টক মিশিয়ে পাতলা করুন। চুলায় দিয়ে ফুটে উঠলেই তৈরি আপনার সস। গরম গরম চিকেন ললিপপের ওপর এই সস ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

চিকেন সালাদ

উপকরণ: হাড় ছাড়া মুরগির মাংস ১ কাপ, ময়দা ২ টেবিল চামচ, অনিওন পাউডার ১ চা চামচ ( বাটা পেঁয়াজ দিয়েও করতে পারেন ), গারলিক পাউডার ১ চা চামচ, পাপরিকা পাউডার ১ চা চামচ / লাল মরিচ গুঁড়ো হাফ চা চামচ, গোল মরিচ গুঁড়ো ১ চা চামচ, অরিগানো হাফ চা চামচ ( সুপার শপে পাওয়া যাবে ) শুকনা মরিচ টালা গুঁড়ো অল্প, টমেটো কেচাপ ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমত, তেল ১ টেবিল চামচ।

সালাদের জন্য আরও লাগবে: শসা টুকরা / কুচি , গাজর, টমেটো ,লেটুস কুচি এবং ভাঁজা মচমচে নুডুলস (যেকোন নুডুলস ডুবো তেলে মচমচে করে ভেজে নিতে পারেন )আর ,লেবুর রস ,অল্প অলিভ অয়েল

প্রণালি: তেল ছাড়া মাংসের সব উপকরণ মাংসের সাথে মিশিয়ে মেরিনেট করে রাখুন ১০ মিনিট। এক ঘণ্টা হলে আরও ভালো।

প্রথমে প্যানে তেল দিয়ে তেল গরম হলে মেরিনেট করে রাখা মাংস দিয়ে মিডিয়াম আঁচে রান্না করুন। ভাজা ভাজা হলে নামিয়ে নিন।

এখন সালাদের জন্য কেটে রাখা শসা , গাজর, টমেটো ,লেটুস কুচিতে অল্প লবণ,ভাজা মচমচে নুডুলস ,লেবুর রস আর অল্প অলিভ অয়েল দিয়ে মেখে নিন। (লবণটা খেয়াল রাখতে হবে কারণ রান্না করা মাংসতেও লবণ দেয়া আছে )

প্লেটে পরিবেশনের সময় আগে মাখানো সালাদ সাজিয়ে নিন। এর উপর রান্না করা মাংস ছড়িয়ে দিন।

চাইলে কিছু ভাজা বাদাম উপরে ছিটিয়ে পরিবেশন করতে পারেন।

চিজ বল

উপকরণ: হাড়ছাড়া মুরগির মাংস ২ কাপ, ঢাকাইয়া পনিরকুচি আধা কাপ, আদাবাটা আধা চা চামচ, রসুনবাটা আধা চা চামচ, জায়ফল ও জয়ত্রী গুঁড়া ১ চিমটি, গরম মসলা গুঁড়া ১/৪ চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া ১/৪ চা চামচ, ময়দা আধা কাপ, কাঁচামরিচ মিহিকুচি ৪টি, পাউরুটি কিউব ২ কাপ, হোয়াইট সস আধা কাপ, ধনেপাতাকুচি ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, ডিম ১টি, লবণ পরিমাণমতো, তেল ভাজার জন্য।

প্রণালি: হাড়ছাড়া মুরগির মাংস ছোট কিউব করে কেটে নিন। চিকেন কিউবের সঙ্গে গোলমরিচ, আদাবাটা, রসুনবাটা, লবণ, জায়ফল ও জয়ত্রীগুঁড়া, গরম মসলাগুঁড়া, সামান্য পানি দিয়ে সিদ্ধ করে পানি শুকিয়ে নিন। ডিম ফেটিয়ে নেবেন। সিদ্ধ করা চিকেন কিউবের সঙ্গে ডিম ও ময়দা ছাড়া বাকি উপকরণ ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। ডোটি পাতলা হলে আরও পাউরুটি কিউব দেবেন। ডো দিয়ে বল বানিয়ে ভেতরে পনিরকুচি ভরে ময়দায় গড়িয়ে ফেটানো ডিমে ডুবিয়ে গরম তেলে মাঝারি আঁচে চিজ বল বাদামি করে ভেজে তুলুন।

খাসির মাংসের রেজালা

উপকরণঃ: খাসির মাংস ২ কেজি, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ২ চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা ১ কাপ, হলুদগুঁড়া ২ চা চামচ, মরিচের গুঁড়া ২ চা চামচ, জিরার গুঁড়া ২ চা চামচ, ধনেগুঁড়া ২ চা চামচ, পোস্তদানা বাটা ২ টেবিল চামচ, তেল ১ কাপ, ঘি ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদ অনুযায়ী, কাঁচা মরিচ ১০টি, তেজপাতা ২টি, দারচিনি ৩ টুকরা, এলাচ ৪টি, পেঁয়াজ কুচি ২ কাপ, আলু ৬টি, কেওড়া জল ১ টেবিল চামচ।

প্রণালি: খাসির মাংস টুকরো করে কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। হাঁড়িতে তেল গরম করে দারচিনি, এলাচ ও তেজপাতার ফোড়ন দিয়ে পেঁয়াজ বাদামি করে ভাজুন। এবারে মাংস ও লবণ দিয়ে ১০১৫ মিনিট ভেজে নিন। মাংস ভাজা হলে পোস্তদানা বাটা ও জিরার গুঁড়া বাদে অন্যান্য বাটা মসলা দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে ঢেকে দিন। ১০১৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে ১ কাপ গরম পানি দিয়ে মাঝারি আঁচে কিছুক্ষণ রান্না করুন ও ঢেকে দিন। আলুগুলো ছিলে লম্বালম্বি মাঝখান থেকে কেটে ২ টুকরা করে দিন। পানি শুকিয়ে এলে আরও ১ থেকে দেড় কাপ গরম পানি দিয়ে আলু এবং কাঁচা মরিচ দিয়ে নেড়ে ঢেকে দিন। ১০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে জিরাগুঁড়া ও পোস্তদানা বাটা দিয়ে নেড়ে আবারও ঢেকে দিন। আলু সেদ্ধ হয়ে গেলে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা খুলে প্রয়োজন হলে আরও সামান্য পানি ও কেওড়া দিয়ে হালকা নেড়ে ঢেকে দিন। মাংস মজে তেল অল্প ছাড়লে ১ টেবিল চামচ ঘি দিয়ে নেড়ে ঢেকে দিন। ১০ মিনিট পর চুলা বন্ধ করে দমে রাখুন কিছুক্ষণ। রান্না শেষ, পরিবেশন করুন।

কোল্ড বিফ সালাদ উইথ রাইস নুডলস

উপকরণ : রাইস নুডলস ১০০ গ্রাম, বিফ স্লাইস ১০০ গ্রাম, সয়াসস ১ চা চামচ, ওয়েস্টার সস ১ চা চামচ, জুকিনি কয়েক পিস, চাইনিজ ক্যাবেজ ১/৪ কাপ, রসুন কুচি ২ কোয়া, ক্যাপসিকাম ১/৪ কাপ, গাজর ১/৪ কাপ, শসা ১/৪ কাপ, সাদা গোল মরিচ গুঁড়া ১/৪ চা চামচ, লেবুর রস ১ চা চামচ, লেটুস পাতা কয়েকটা, লবণ স্বাদমতো, মাখন ১ চা চামচ, রাইস ভিনেগার ২ চা চামচ, লাল মরিচ কুচি ২ চা চামচ, চিনি ১ চা চামচ, সাদা তিল ১ চা চামচ (রোস্টেড)

প্রণালি : রাইস নুডলস সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে আলাদা করে রাখুন। প্যানে মাখন,রসুন কুচি দিয়ে সামান্য ভেজে বিফ াইস দিন। নেড়েচেড়ে সয়াসস ওয়েস্টার সস দিয়ে ঢেকে দিন। এতে জুকিনি, চাইনিজ ক্যাবেজ ক্যাপসিকাম ও গাজর দিন। কয়েক মিনিট নেড়েচেড়ে নামিয়ে নিন। বাকি উপকরণ টস করে মিশিয়ে নিন। উপরে রোস্টেড সাদা তিল ছড়িয়ে দিন। ঠাণ্ডা পরিবেশন করুন।

কালারফুল চিলি বিফ

উপকরণ : বিফ ৫০০ গ্রাম, লাল ক্যাপসিকাম ১৫০ গ্রাম, হলুদ ক্যাপসিকাম ১৫০ গ্রাম, সয়াসস ২ চা চামচ, ভিনেগার ১ চা চামচ, ওয়েস্টার সস ২ চা চামচ, টমেটো সস ১/২ কাপ, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, লাল মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ ১ চা চামচ, চিনি স্বাদমতো, গোল মরিচ গুঁড়া ১/২ চা চামচ, সাদা তেল ৩ চা চামচ।

প্রণালি : বিফ জুলিয়ান কাট করে কেটে নিন। এতে সয়াসস ও ভিনেগার দিয়ে মেরিনেট করুন। ক্যাপসিকাম জুলিয়ান কাট করুন। প্যানে তেল গরম করে এতে বিফ ও আদা রসুন বাটা দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজুন। পানি বের হলে ঢেকে দিন। ৫ মিনিট পর পানি শুকালে ক্যাপসিকাম ও বাকি উপকরণ দিন। সামান্য পানি দিন। আরও ৫ মিনিট অল্প আঁচে রাখুন। গরম গরম সাজিয়ে পরিবেশন করুন কালারফুল চিলি বিফ।

মালাই ক্ষীর

উপকরণ: দুধদেড় লিটার, চিনিপরিমান মতো, মালাইআধা কাপ, কাজু, কিসমিস, পেস্তা, কাঠবাদামআধা কাপ, সেমাইএক কাপ, এলাচ, দারুচিনি/৭টি ঘি২ টেবিল চামচ, জাফরানসামান্য।

প্রণালি: প্রথমে বাদাম গুলো খোসা ছাড়িয়ে মোটা কুচি করে নিন। এরপর দেড় লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে অর্ধেকের কম পরিমাণ করে রাখুন। এবার প্যানে ঘি দিয়ে গরম করুন। এরপর এলাচ দারুচিনি দিয়ে একটু ভাজুন। এবার বাদাম কুচি, কিসমিস ও সেমাই দিয়ে দিন। মৃদু আঁচে হালকা ভাজুন। ঘ্রাণ ছাড়লেই ঘন দুধ দিয়ে দিন। নেড়ে নেড়ে রান্না করুন। সেমাই সিদ্ধ হয়ে আসার সাথে সাথে দুধ ঘন হয়ে আসবে। সেমাই সিদ্ধ হয়ে গেলে মালাই দিয়ে দিন। জাফরান দিন। এরপর ভালো করে মিশিয়ে চুলা বন্ধ করে ফেলুন। এবার ছোট ছোট বাটিতে এই ক্ষীর সাজান। এরপর ফ্রিজে রেখে সেট হতে দিন। সেট হলে বাদাম ও কিসমিস ছিটিয়ে পরিবেশন করুন।

বোরহানি

উপকরণ: মিষ্টি দই ২ কাপ, টক দই ২ কেজি, কাঁচা মরিচ বাটা ২ চা চামচ, পুদিনা পাতা বাটা ২ চা চামচ, সরিষা বাটা ২ চা চামচ, বিট লবণ ২ চা চামচ, পানি পরিমাণমতো (পাতলা বা ঘন যেমনটি করতে চাইবেন), চিনি ৬ টেবিল চামচ, লবণ ২ চা চামচ, সাদা গোল মরিচের গুঁড়া ২ চা চামচ।

প্রণালি: কাঁচা মরিচ, পুদিনা পাতা, একসাথে বেটে নিন। বিট লবণ পাটায় গুঁড়া করে নিন। উপকরণগুলো একসাথে অল্প পানি দিয়ে গুলে দইএর মধ্যে দিন। এবার মিষ্টি দই, টক দইসহ সব উপকরণ ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন। বরফ কুচি ও পুদিনা পাতা দিয়ে ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা পরিবেশন করুন।

বিফ পাস্তা ইন হোয়াইট সস

উপকরণ : বিফ ১৫০ গ্রাম, পাস্তা ২৫০ গ্রাম, রসুন কুচি ১ চা চামচ, সয়া সস ২ চা চামচ, ভিনেগার ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, লাল হলুদ ক্যাপসি কাম ১/৪ কাপ। হোয়াইট সসের জন্য : মাখন ২ চা চামচ, ময়দা ২ চা চামচ, তরল দুধ ১ কাপ, সাদা গোলমরিচ গুঁড়া ১/৪ চা চামচ, লবণ ১/৪ চা চামচ।

প্রণালি : বিফ পাতলা স্লাইস করে কেটে নিন। সয়াসস ও ভিনেগারে মেরিনেট করে রেখে দিন ২ ঘণ্টা। ক্যাপসিকাম করে নিন। পাস্তা সিদ্ধ করে পানি ছেঁকে নিন। প্যানে মাখন গরম করে ময়দা ব্রাউন করে ভাজুন। এতে দুধ দিয়ে অনবরত নাড়তে থাকুন। ফুটে ঘন হয়ে এলে লবণ, গোল মরিচ গুঁড়া দিয়ে নামিয়ে নিন। এবার অন্য প্যানে মাখন গলান। রসুন কুচি দিন। মেরিনেটেড বিফ দিন। ভাজা ভাজা হলে এতে ক্যাপসিকাম কুচি ও পাস্তা দিন। তৈরি করা হোয়াইট সস দিয়ে নেড়ে নামিয়ে নিন লেটুস টমেটো দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার বিফ পাস্তা ইন হোয়াইট সস।

লাচ্ছা সেমাইয়ের কুনাফা

উপকরণ : লাচ্ছা সেমাই ১ প্যাকেট, তরল দুধ আধা কেজি, কর্ণফ্লাওয়ার ২টেবিল চামচ, ঘি আধা টেবিল চামচ, রোজ এসেন্স কয়েক ফোটা

চিনি স্বাদমত, পেস্তা গুড়া অথবা কাঠবাদাম কুচি, চেরি কুচি, সিরার জন্যচিনি আধা কাপ, পানি আধা কাপের কম, লেবুর রস আধা চা চামচ, সিরা বানিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন।

প্রণালি: দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন করে ৩০০গ্রাম পরিমাণে এনে কর্ণফ্লাওয়ার পানির সাথে মিশিয়ে দুধে দিন। চিনি, রোজ এসেন্স দিন। ঘন না হওয়া পর্যন্ত নাড়ুন ঘন ঘন নাড়বেন নয়তো পুড়ে যাবে নিচে। ক্ষিরসা হয়ে গেলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। একটা বেকিং ডিসে ঘি গরম করে সেমাই অর্ধেক বিছান এর উপর ক্ষিরসা দিয়ে আবার সেমাই দিন প্রিহিট ওভেনে ১৯০ ডিগ্রিতে বেক করুন ১৫মিঃ। উপরে সুন্দর কালার হলে নামিয়ে নিন উপরে পেস্তা গুড়া, বাদাম কুচি দিয়ে চিনির সিরা দিয়ে পরিবেশন করুন। ইচ্ছা হলে চিনির সিরা ছাড়াও খেতে পারেন।

আফগানি পোলাও

উপকরণ : মাংস ১ কেজি, টমেটো ৩টি (ব্লেন্ড করা), পোলাওয়ের চাল ৩ কাপ, রসুন ৪৫ কোয়া কুঁচি, পেঁয়াজ ৩টি (কুঁচি করা), আদা ১ চা চামচ (কুঁচি করা), ছোট এলাচ ৮টি, গোটা ধনে ১ চা চামচ, জিরা ১ চা চামট, লবঙ্গ ১/২ চা চামচ, লাল মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, দারুচিনি ৩টি ছোট টুকরো, কাঁচা মরিচ ২৩টি (কুঁচি করা), গরম পানি ৭ কাপ, সাদা তেল ২ টেবিল চামচ, ঘি ২ টেবিল চামচ, কিশমিশ ১৫২০টি, গাজর ১/৪ কাপ জুলিয়ান কাট।

প্রণালি : প্রথমে মাংস ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন আদা, রসুন, গোটা গরম মসলা, পেঁয়াজ, ধনে, জিরা ও স্বাদমতো লবণ দিয়ে ৭ কাপ পানিতে ৩০ মিনিট ধরে মাংস সিদ্ধ করে নিন। এবার মাংসের টুকরোগুলো আলাদা করে রেখে দিন। একটি পাত্রে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ দিয়ে সোনালি করে ভাজুন। এতে টমোটো, কাঁচা মরিচ, লাল মরিচ গুঁড়া দিয়ে ভালো করে কষান। মসলা কষানো হয়ে এলে তাতে মাংসের টুকরোগুলো যোগ করুন। এর মধ্যে আগে থেকে বানিয়ে রাখা চিকেন স্টক ভালো করে ছেঁকে ঢেলে দিন। এতে চাল মিশিয়ে ফুটতে দিন। যতক্ষণ না চাল সমস্ত স্টক শুষে নিয়ে সিদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। এতে কিশমিশ ছড়িয়ে আরও ২৩ মিনিট হালকা আঁচে ঢাকনা দিয়ে রান্না করুন। অল্প ঘিয়ে গাজর ভেজে নিন নরম হওয়া পর্যন্ত। পোলাওয়ের উপর ছড়িয়ে দিন। তৈরি হয়ে গেল আফগানি পোলাও।

মোরগ পোলাও

উপকরণ: চাল আধা কেজি, ২টি মুরগি (চার টুকরো করা), ঘি ১ কাপ, পেঁয়াজ বাটা১ কাপ, আদা বাটা২ চা চামচ, রসুন বাটা২ চা চামচ, এলাচ৬ টি, দারচিনি৪ টুকরো, জয়ত্রি, জায়ফল, লবঙ্গ, শাহি জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, পেস্তাবাদাম, আলুবোখারা, তেলআধা কাপ, টকদই১ কাপ, কাঁচামরিচ, গোলমরিচ, লবণ পরিমাণ মতো, শুকনা মরিচ কয়েকটি, পেঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপ।

প্রণালি: মুরগি চার টুকরা করে নিন। মাংসের টুকরোগুলো আধা ঘণ্টা লবণ পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এরপর মুরগির টুকরোগুলো তুলে নিয়ে পেঁয়াজ, আদারসুন বাটা, গরম মসলা গুঁড়া ও টকদই মেখে কিছু সময় রেখে দিন। মেরিনেট করা মাংস পাত্রে জায়ফলসহ বিভিন্ন মসলা দিয়ে চুলায় দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে এলে, মাংসগুলো তুলে রেখে সেই পাত্রের তেল ও মসলায় চাল আধা সেদ্ধ করে রাখুন। এবার পোলাও এবং মাংস কয়েক স্তরে সাজিয়ে ওপরে বেরেস্তা দিয়ে চুলার তাপ কমিয়ে আধা ঘণ্টা পাত্রে ঢাকনা দিয়ে রেখে দিন। খাওয়ার ঠিক আগে ঢাকনা খুলে পাত্রে সাজিয়ে সালাদসহ গরম গরম পরিবেশন করুন।

x