ইসমাইল চৌধুরী (‘মোহরানা’ বা ‘কাবিন’)

রবিবার , ২৯ এপ্রিল, ২০১৮ at ৫:৪০ পূর্বাহ্ণ
866

চট্টগ্রামে নতুন তামাশা শুরু হয়েছে। আগে অল্প কিছু ঘটনার দেখা মিললেও এখন কারো কারো হিসাবে এ জোচ্চুরির হার শতকরা ৮০ ভাগের কোটায়। ঘটনা, বিয়ের ‘মোহরানা’ বা ‘কাবিন’! শুনতে খারাপ লাগলেও বেশকিছু ক্ষেত্রে এটা এখন এক ধরনের ‘ফাটকা ব্যবসা’উচ্চহারে মোহরানা ধার্য্য হবে, আকদ হবে এরপর মাসখানেকের মাথায় ‘পাখি উড়াল দেবে’, আদালতে সত্যমিথ্যা যৌতুক ও নারী নির্যাতনের মামলা করে দেনমোহরসহ তালাক চাইবে। আরেক দল আছে যারা জানেও না মোহরানা কী এবং কেন! বরং, গালভরা পরিমাণ মোহরানা ধার্য্য করবে, ২০ লাখ, ৫০ লাখ, ১ কোটি, ৫ কোটিএ মোহরানা কেবলমাত্র বিয়ের অনুষ্ঠানের ‘টক অব দ্য টেবিল’, কাজের বেলায় ঠনঠনবিয়েতে দেয়া গয়না ছাড়া বাকি টাকা কখনও আদায় করা হয়না, করে না। দুঃখজনক হলেও এ দলের হার ৭০% এরও অধিক। আমার এক বন্ধু মজা করে বলে, ছেলেকে উল্টা করে ঝাড়লেও কোনদিন এতটাকা পাওয়া যাবে নাএমনকি বেছে দিলেও! হা হা হা তৃতীয় দল সংখ্যায় নগণ্য। এঁরা দেনমোহর কী তা যেমন বোঝেন তেমনি বোঝেন এটা পরিশোধ ব্যতিরেকে মরে গেলে হাশরের ময়দানে অপরাধী হিসেবে উত্থিত হবেন। এঁরা সাধ্যের বাইরে দেনমোহরে বিয়ে করেন না, করানও না। অনেক পরহেজগার রীতিমত ‘সুরা মুখস্ত’ করে তাই মোহরানা দেন এবং পাত্রীও সানন্দে মেনে নেন।

তৃতীয় দলের মানুষগুলোর সংসার সাধারণত সুখের হয়। সাংসারিক খুঁটিনাটি ঝামেলা থাকলেও তালাক বা ডিভোর্সে এঁরা তেমন জড়ান না বলেই আদালতের পরিসংখ্যান। প্রথম দলকে চিটিংবাটপার সব ডাকা যাবে। কিন্তু দ্বিতীয় দলকে করুণা করা ছাড়া কোন উপায় নেই। সামাজিক যাবতীয় অপরাধপ্রবণতা এ দলের লোকজনের মধ্যে সবচেয়ে বেশিপরকীয়া, ডিভোর্স, মারামারিখুনোখুনি, ব্যভিচার সব এ দলের ‘সাফল্য’! কী, আঁতকে উঠলেন? আমি বিগত কয়েকমাসে ঘটে যাওয়া কিছু প্রতারণার ঘটনার চাক্ষুস সাক্ষী হিসেবে রীতিমত শিউরে উঠি বার বারএটা কীভাবে সম্ভব! ইসলাম নারীর আত্মমর্যাদা ও সামাজিক নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় বিবাহে শর্ত হিসেবে ‘মোহরানা’ বা ‘কাবিন’ ধার্য্য করেছে। বলা হয়েছে– “আর তোমরা স্ত্রীদেরকে তাদের মোহর দিয়ে দাও খুশিমনে। তারা যদি খুশি হয়ে তা থেকে অংশ ছেড়ে দেয়, তবে তা তোমরা স্বাচ্ছন্দ্যে ভোগ কর।” [সূরা নিসা] মোহরানার পরিমাণ কত? কীভাবে আদায় করতে হবে এসবকিছু কমেন্টের লিংকে পাবেনআশা করি উপকৃত হবেন।

x