ইমার্জিং লংকানদের কাছে হার ইমার্জিং টাইগারদের

ক্রীড়া প্রতিবেদক

সোমবার , ১৯ আগস্ট, ২০১৯ at ৮:৪৫ পূর্বাহ্ণ
36

এইচ পি দল, ইমার্জিং দল, কিংবা ‘এ’ দল বা একাডেমি দল। এসব দলকে জাতীয় দলের ব্যাকআপ হিসেবে দেখা হয়। কারন এসব দলকে জাতীয় দলের ক্রিকেটারের পাইপ লাইন হিসেবে দেখা হয়। তেমনই দুটি ইমার্জিং দলের লড়াইয়ে স্বাগতিক টাইগারদের একে রকম উড়িয়ে দিল শ্রীলংকার ইমার্জিং দল। বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের সাথে তিন ম্যাচের ওয়ানডে এবং দুইটি টেস্ট খেলতে বর্তমানে ঢাকায় শ্রীলংকা দল। প্রথম ওয়ানডে’তে সাভারের বিকেএসপি মাঠে বড় ব্যবধানে হারতে হয়েছে টাইগারদের। লংকানদের কাছে ১৮৬ রানের বিশাল ব্যবধানে বিধ্বস্ত হয়েছে টাইগার ইমার্জিং দল। গতকাল সাভারের বিকেএসপি মাঠে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় লংকান অধিনায়ক চারিত আসারাঙ্কা। ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক আসারাঙ্কা আর ওয়ানিনডু হসারাঙ্গার দারুণ ব্যাটিংয়ে ৩০৪ রানের বড় স্কোর দাঁড় করায় লংকানরা। জবাব দিতে নেমে মাত্র ২৮.৩ ওভারে সব ক’টি উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ সংগ্রহ করে মাত্র ১১৮ রান। ফলে বিশাল হার দিয়ে সিরিজ শুরু করতে হলো সাঈফ হাসানের দলকে।
৩০৫ রানের পাহাড়সম রান তাড়া করতে নেমে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাইফ হাসান ছাড়া ব্যর্থ হয়েছেন সবাই। দলের সহ অধিনায়ক ইয়াসির আলি চৌধুরী রাব্বি রানের খাতাও খুলতে পারেনি। দলীয় রান ৫০ পূর্ণ হওয়ার পূর্বেই সাঁজ ঘরে ফিরে যায় স্বাগতিকদের টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান। আর শুরুর মত শেষ দিকে মাত্র ১৪ রানেই টাইগাররা হারায় ৫ উইকেট। উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান সাইফ করেন ৫০ রান। টপ অর্ডার, মিডল অর্ডার কিংবা লোয়ার অর্ডার টাইগার ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ তিন জায়গাতেই। সাইফ ব্যতীত বাকি ব্যাটসম্যানরা যেন আসা যাওয়ার মিছিলে যোগ দিয়েছিল। তাই তো কেবল তিনজন ব্যাটসম্যানই স্পর্শ করতে পেরেছে দুই অঙ্কের রানের ঘর। টাইগার ব্যাটসম্যানদের মধ্যে তিনজনই ফিরে যান শূণ্য রানে। আর দুইজন আউট হন নামের পাশে এক রান সংগ্রহ করার পর। দলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান আসে আফিফ হোসেনের ব্যাট থেকে। আফিফ করেন মাত্র ১৯ রান। ১০৪ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন মহিদুল ইসলাম। আর এরপর স্কোর বোর্ডে মাত্র ১৪ রান যোগ করতেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান বাকি চার ব্যাটসম্যান। লংকান ইমসার্জিং দলের পক্ষে মাত্র ১২ রানে ৪টি উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের মেরুদন্ড ভেঙ্গে দেন হাসারাঙ্গা । এছাড়া ২টি করে উইকেট নিয়েছেন ফার্নান্দো, তুষারা এবং আপন্সো। এর আগে ব্যাট করতে নেমে লংকান ইমার্জিং দলের আসালঙ্কা এবং হাসারাঙ্গার হাফ সেঞ্চুরির উপর ভর করে ৩০৪ রানের বিশাল স্কোর দাড় করায়। আসালঙ্কা করেন ৭১ রান। আর হাসারাঙ্গা করেন ৭০ রান। এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে নিসানকা ১৮, বিরাক্কডি ৩১, আশান ৩৩, মেন্ডিস ২৮, বান্দারা ২৯ রানে অপরাজিত থাকেন। টাইগারদের হয়ে শহিদুল ইসলাম আর শফিকুল ইসলাম দুইটি করে উইকেট নেয়। তবে অন্যান্য বোলারদের খরুচে বোলিংয়ে বড় সংগ্রহ করতে পারে লংকানরা। আফিফ, ইয়াসিন আর আমিনুল একটি করে উইকেট তুলে নিলে শেষ পর্যন্ত লংকানদের সংগ্রহ দাঁড়ায় নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩০৪ রান। সিরিজের দ্বিতীয় ওডিআই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২১ আগস্ট সাভারের বিকেএসপি মাঠে। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল নয়টায়।

x