ইফতারে বৈচিত্র্য

রেসিপি দিয়েছেন রাফিয়া নাজনীন

রবিবার , ২৭ মে, ২০১৮ at ৪:৩৭ পূর্বাহ্ণ
133

খেজুরের লাচ্ছি

উপকরণ: খেজুর১৫/১৬টি, কাজু বাদামকয়েকটি, টক দই অথবা মিষ্টি দই১ কাপের কম, দুধআধা কাপ, বরফ কুচি১ কাপ, চিনি২ টেবিল চামচ অথবা স্বাদ মতো, কয়েকটি পেস্তাবাদাম কুচি (ঐচ্ছিক)

প্রণালি: খেজুরের বিচি ছাড়িয়ে ৪ ঘণ্টার জন্য দুধে ভিজিয়ে রাখুন। তবে খেজুর একদম নরম হলে ভিজিয়ে রাখার দরকার নেই। ভিজিয়ে রাখা খেজুর দুধসহ ব্লেন্ডারে নিয়ে নিন। এরপর টক দই, চিনি, কাজু বাদাম, বরফ ও দুধ দিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। ব্লেন্ড করার পর লাচ্ছি বেশি পাতলা মনে হলে দই দিতে পারেন আরও খানিকটা। আর যদি ঘনত্ব বেশি মনে হয় তবে সামান্য দুধ দিন। গ্লাসে ঢেলে পরিবেশন করুন স্বাস্থ্যকর খেজুরের লাচ্ছি।

ট্রায়ফল

উপকরণ : হুইড ক্রিম ২ কাপ, আপেল ১টি, আম ১টি, চেরি, আঙুর, স্ট্রবেরি, বেদানা এক কাপ,

ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামচ, কেক ১ কাপ, জেলি সিকি কাপ।

প্রণালি: সাধারণ কেক ছোট কিউব করে কেটে নিন। (অথবা আপনার পছন্দের সেপে কেটে নিতে পারেন)

পরিবেশন পাত্রে সব ফল ছোট ছোট করে কেটে রাখুন। তারপর জেলি দিন। এবার জেলির উপর পাত্রে কেক দিয়ে তার ওপর হুইড ক্রিম দিন। হুইড ক্রিমের ওপর আবার কাটা ফল, কেক ছিটিয়ে দিয়ে সাজিয়ে নিন। তারপর ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে পরিবেশন করুন।

স্মোকি চিকেন

উপকরণ: মুরগির রান নলাসহ৫ টুকরো(১ কেজি), টক দইআধা কাপ, আদা বাটা১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা১ টেবিল চামচ, গরম মসলা গুঁড়াআধা চা চামচ, চাট মসলা১ টেবিল চামচ, শুকনা মেথি পাতা১ টেবিল চামচ (হালকা টেলে নিলে ভালো হয়), লবণ স্বাদমতো, লেবুর রস২ টেবিল চামচ, লাল মরিচের গুঁড়া১ চা চামচ, পানিআধা কাপ, কয়লা১ টুকরা, তেল৩ টেবিল চামচ।

প্রণালি : প্রথমে একটি বাটির মধ্যে টক দই, আদা বাটা, রসুন বাটা, গরম মসলা গুড়া, চাট মসলা, শুকনা মেথি পাতা, লবণ, লেবুর রস, লাল মরিচের গুঁড়া নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এর মধ্যে কেচে নেওয়া মুরগির রান দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখবেন। এরপর এক টুকরা কয়লা ভালো করে জ্বালিয়ে মেরিনেট করা মাংসের উপর একটি বাটি দিয়ে এর মধ্যে কয়লার টুকরাটি রেখে এর উপর ১ টেবিল চামচ তেল দিয়ে মাংসের বাটিটি এক ঘণ্টার জন্যে ঢেকে রাখবেন। ১ ঘণ্টা পর কয়লার টুকরাটি ফেলে দিয়ে আবার ভালো করে মাখিয়ে নিন। এরপর একটি বড় ফ্রাইপ্যানে তেল দিয়ে এর মধ্যে মুরগির পিসগুলো দিয়ে মিডিয়াম আঁচে ৫ মিনিট ফ্রাই করে উলটে দেবেন। এরপর বাটিতে যা মসলা থাকবে মাংসের উপর ঢেলে দিয়ে আরো ৫ মিনিট ফ্রাই করবেন মিডিয়াম আঁচে। এরপর পানি দিয়ে ১০ মিনিটের জন্য ছোট আঁচে ঢেকে রাখবেন। ১০ মিনিট পর মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে আঁচ বড় করে দিয়ে পানি হাল্কা শুকিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

ফ্রাইড রাইস

উপকরণ: রান্না করা ভাত ২ কাপ (পোলাও বা বাসমতি চাল দিয়ে রান্না ভাত), পাকাআনারস কিউব করে কাটা আধা কাপ, রসুন কুচি ১ টেবিলচামচ (কিমার মতো কুচি), পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিলচামচ, কাঁচা মরিচ কুচি ১ টেবিলচামচ বা স্বাদ মতো, তেল ৩/৪ টেবিলচামচ, ফিশ সস ১/২ টেবিলচামচ, সয়া সস ১/২ টেবিলচামচ, চিংড়ি মাছ ৮/১০টি, গাজর, কিউব করে কাটা ২ টেবিলচামচ (সিদ্ধ করা), গোলমরিচ গুঁড়া আধা চাচামচ, কিসমিস ১ টেবিল চামচ, কাজুবাদাম ৭/৮টি (ভাজা), পেঁয়াজ পাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, ডিম ১টি, চিনি ১ চা চামচ।

প্রণালি: চিংড়ি মাছগুলোতে একটু সয়া সস, সামান্য রসুন বাটা ও একটু মরিচ কুচি দিয়ে মাখিয়ে রাখুন।

অন্য একটা বাটিতে সয়া সস, ফিশ সস, চিনি ও গোল মরিচ এক সঙ্গে মিশিয়ে রাখুন।

এবার একটি ননস্টিক প্যানে পরিমাণ মতো তেল গরম করে পেঁয়াজ, মরিচ ও রসুন কুচি একটু ভেজে, চিংড়ি মাছ দিয়ে আবারো একটু ভেজে নিন। চিংড়ি মাছ ও মসলাগুলো একপাশে সরিয়ে রাখুন। একটু তেল দিয়ে ডিম ঝুরি ঝুরি করে ভেজে নিন। এবার একে একে গাজর, মটরশুটি, বাদাম, কিসমিস দিয়ে মিশিয়ে ভাত দিন। একটু ভেজে সসের মিশ্রণ ও আনারস কিউব দিন। আরও একটু ভাজুন। নামিয়ে পরিবেশন করুন।

ওরিও কাস্টার্ড

উপকরণ: ওরিও কুকিজ১ প্যাকেট, পানি পরিমাণ মতো, চিনি ৫০ গ্রাম, গুঁড়া দুধ আধা কাপ, কর্নফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামচ, মাখন ১ টেবিল চামচ, ভ্যানিলা আধা চা চামচ, ডিম ১টা।

প্রণালি: ওরিও ভেঙে গুঁড়া করে রাখতে হবে। কাস্টার্ডের জন্য পানি ও চিনি জ্বাল দিতে হবে। আরেকটা বাটিতে গুঁড়া দুধ, কর্নফ্লাওয়ার, বাটার, ডিম ও ভ্যানিলা অল্প পানি দিয়ে আগে মিশিয়ে রাখুন। তারপর গরম পানিতে মিশিয়ে দিতে হবে। একটু ঘন হলে নামিয়ে ফেলতে হবে। গ্লাসে অল্প কাস্টার্ড ঢেলে ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। কিছুটা ঘন হয়ে এলে ফ্রিজ থেকে কাস্টার্ড বের করে তার উপর আবার ওরিও ঢেলে আবার ফ্রিজে রাখতে হবে।

একটু পর ফ্রিজ থেকে বের করে তারপর ওরিও গুঁড়া লেয়ার করে দিতে হবে। উপরে ওরিও গুঁড়া দিয়ে আপনারা ইচ্ছা মতো সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

রাইস পেপার ফিশ রোল

উপকরণ: সেদ্ধ মাছের কিমা ১ কাপ (আপনার পছন্দের যেকোনো কাটা ছাড়া মাছ নিতে পারেন), ডিম সেদ্ধ করা ১টা(ইচ্ছা), পালং শাক পরিমাণমতো, পেঁয়াজ কুচি ১/২ কাপ, কাঁচা মরিচ কুচি ৩/৪টা, আদা বাটা ১/২চা চামচ, জিরা, বাটা ১/২বাটা, রসুন বাটা ১/২চা চামচ গোল মরিচ ১/২ চা চামচ, ফিশ সস ১ চা চামচ, টমেটো সস ১ চা চামচ, লবণ পরিমাণ মতো, রাইস পেপার ৪টা (রাইস পেপার সুপার সপে কিনতে পারেন), তেল ২ চা চামচ, শশা পাতলা করে কাটা।

প্রণালি: প্যানে তেল দিয়ে তাতে পেঁয়াজ বাদামি করে ভাজুন। তাতে সব মসলা দিয়ে কষিয়ে মাছের কিমাটা দিয়ে দিতে হবে। এবার মিশ্রণটা ভাজা ভাজা হলে নামানোর ঠিক আগে পালং শাক দিয়ে নামিয়ে রাখুন। অন্য পাত্রে হাতে সহনীয় মাত্রার গরম পানিতে একটা করে রাইস পেপার ভেজালে তা নরম হয়ে যাবে। ভিজিয়ে ছড়ানো পাত্রে রাখুন। ডিম াইস করে ৪ পিস করে কাটুন। রাইস পেপার বিছিয়ে তাতে দু’পিস শশা, কিছুটা কিমা, একপিস ডিম দিয়ে রোল তৈরি করে নিন। এবার টমেটো সস অথবা পছন্দ অনুযায়ী চাটনির সাথে স্বাস্থ্যকর রাইস পেপার ফিস রোল সার্ভ করুন।

x