ইতালি যাওয়ার স্বপ্নে বাংলাদেশী যুবক নিহত লিবিয়ায়

আখি সীমা কাউসার, রোম (ইতালি) থেকে

শুক্রবার , ৫ জুলাই, ২০১৯ at ১১:১৯ অপরাহ্ণ
131
ইতালি যাওয়ার স্বপ্ন নিয়ে দালালের খপ্পরে পড়ে আবারও নিহত হলো বাংলাদেশী এক যুবক।
লিবিয়া থেকে ইউরোপ পাড়ি দেয়ার স্বপ্নে বিভোর এক বাংলাদেশী লিবিয়ায় বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন। তার নাম শাহজালাল কাজী (২৫) বলে জানা গেছে।
নিহত শাহজালালের বাড়িতে চলছে এখন শোকের মাতম।
খবর নিয়ে জানা গেছে লিবিয়ায় একটি অভিবাসী আটক কেন্দ্রে বিমান হামলায় নিহতদের মধ্যে শাহজালাল নামে এক বাংলাদেশি যুবকও রয়েছেন। তিনি মাদারীপুর সদর উপজেলার মস্তফাপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ খাকছাড়া গ্রামের ফজল কাজীর ছেলে।
লিবিয়ায় থাকা শাহজালালের চাচাতো ভাই জুয়েল বৃহস্পতিবার দুপুরে পরিবারের কাছে তার মৃত্যুর খবর জানিয়েছেন বলে সংবাদমাধ্যমে জানা গেছে।
শাহজালালের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর থেকেই বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। তার পরিবারকে সান্ত্বনা দিতে গ্রামের লোকজন ভিড় করছেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ইতালি যাওয়ার জন্য গত রমজান মাসে দালালের মাধ্যমে লিবিয়া যান মাদারীপুরের শাহজালাল কাজী, তার চাচাত ভাই জুয়েল ও শ্যালক শহিদুল। ইতালি যাওয়ার জন্য লিবিয়াতে অবস্থানকালে লিবিয়া পুলিশের হাতে আটক হন তারা। পরে তাদেরকে লিবিয়ায় অন্যদের সঙ্গে একটি অভিবাসী আটক কেন্দ্রে রাখা হয়।
মঙ্গলবার স্থানীয় সময় ভোররাতে লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির পূর্বাঞ্চলের ওই অভিবাসী আটক কেন্দ্রে বিমান হামলা চালানো হলে অর্ধশতাধিক মানুষ নিহত হন। আহত হন শতাধিক মানুষ। নিহতদের মধ্যে মাদারীপুরের শাহজালাল কাজীও রয়েছেন। নিখোঁজ রয়েছেন শহিদুল। আহত হয়েছেন নিহতের চাচাতো ভাই জুয়েল।
নিহত শাহজালালের বোন রুবি বেগম বলেন, ‘আমার ভাই ইতালি যাওয়ার স্বপ্ন নিয়ে দালালের পরামর্শে লিবিয়ায় গিয়ে মারা গেল। ভাইয়ের লাশটি যেন বাড়িতে আসে। শেষবারের মতো ভাইয়ের লাশটি দেখতে চাই আমরা। ইউরোপ পাড়ি দিয়ে এভাবে আর কত প্রাণ দিবে বাংলাদেশিরা? আমাদের দেশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কারো কি কিছু করার নেই? যারা উৎসাহ দিচ্ছে অবৈধভাবে ইউরোপ পাড়ি দেয়ার জন্য তারা নিজেরা লাভবান হচ্ছে কিন্তু ক্ষতি হচ্ছে কার? হাজারো মায়ের বুক খালি হচ্ছে। হাজারো ছেলেমেয়ে এতিম হচ্ছে, বিধবা হচ্ছে হাজারো স্ত্রী।’
কান্নাজড়িত কন্ঠে প্রতিবাদ ছিল স্থানীয় লোকদের মুখেও।
x