ইংরেজি বিভাগের নতুনরা ঘুরে দেখলেন সিআইইউ

বৃহস্পতিবার , ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৬:৪২ অপরাহ্ণ
130

ইংরেজি সাহিত্য আমার দারুণ লাগে! শেক্সপিয়রের গল্প শুনেছিলাম ছোটবেলায়। একটু একটু করে যখন কলেজের গন্ডি পেরুলাম তখন এই সাহিত্যের শব্দ, লেখনি আর ইতিহাস সমৃদ্ধ চমকপ্রদ লেখাগুলো আলাদা ভালোলাগা তৈরি করে।
কথাগুলো বলছিলেন চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি (সিআইইউ)-এর ইংরেজি বিভাগের প্রথম সেমিস্টারের ছাত্রী সামিরা নওশীন। এবার ২০১৯-এর অটাম সেমিস্টারে স্কুল অভ লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস-এর অধীনে ইংরেজি বিভাগে ভর্তি হয়েছেন নওশীন।
ভর্তি হয়েই ভীষণ উচ্ছ্বসিত তিনি। তবে কেবল নওশীন নন, তার মতো দিলরুবা, ফাতেমা, চৈতি, শেফায়েত, সুমিত, ইমাদসহ আরও প্রচুর শিক্ষার্থী এবার ভর্তি হয়েছেন সিআইইউ’র ইংরেজি বিভাগে।
বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের প্রথম দিনটি আনন্দে কেটেছে তাদের। ক্যাম্পাসে পা রেখেই ঘুরে বেড়িয়েছেন ক্লাসরুম, ক্যান্টিন, লাইব্রেরি থেকে আমেরিকান কর্ণার। পরিচিত হয়েছেন নতুন পুরোনো সব বন্ধুদের সঙ্গে। কথা বলেছেন প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সঙ্গেও।
নতুন শিক্ষার্থীদের পাশে এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রভাষক নাসিহ-উল-ওয়াদুদ আলম, সানজিদা আফরীন ও তাফরিহা তারান্নুম। তারা সিআইইউ’র বিভিন্ন দপ্তরের কাজ, ক্যাম্পাসের নানামুখী কর্মকাণ্ড, ইংরেজি বিভাগে পড়ার আনন্দের বিষয়গুলো ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে তুলে ধরেন।
সিআইইউ’র চারটি স্কুলের ভেতর স্কুল অভ লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস অন্যতম। এখানে ইংরেজি সাহিত্যের ওপর রয়েছে বিএ (অনার্স)। মাস্টার্স রয়েছে এমএ ইন ইংলিশ লিটারেচার (ইএল) ও এমএ ইন ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টিচিং (ইএলটি)- দুটো বিষয়ের ওপর।
দেশ বিদেশের খ্যাতনামা শিক্ষক, ডক্টরেট ও পিএইচডি অর্জনকারী চৌকস মেধাবীরা জড়িত রয়েছেন ক্লাসের পাঠদানে। বর্তমানে এ স্কুলের ডিনের দায়িত্ব পালন করছেন ইংরেজি সাহিত্যে সুনাম কুড়ানো অভিজ্ঞ শিক্ষক অধ্যাপক কাজী মোস্তাইন বিল্লাহ। চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছেন সার্মেন রড্রিক্স।
পড়ালেখার পাশাপাশি এখানে রয়েছে নানা ধরনের সৃষ্টিশীল কর্মকান্ড। চালু রয়েছে ইংলিশ ক্লাব, স্ল্যাস ডিবেটিং সোসাইটি, ক্রিয়েটিভ রাইটার্স ক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠনভিত্তিক সৃজনশীল কার্যক্রম। ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা বৃদ্ধি ও নিজেকে আরও এগিয়ে নিতে চালু করা হয়েছে ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ সেন্টার।
মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে নানা ধরনের স্কলারশীপ, বইয়ের অবাধ ভান্ডার, গুণগত ধারার পড়ালেখার পরিবেশ সহ অনেক কিছু।
সিআইইউ’র স্কুল অভ লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস-এর ডিন অধ্যাপক কাজী মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, ‘ইংরেজি সাহিত্য মানেই মোটা মোটা বই এ ধারণা ভুল। আমরা এমন একটি সিলেবাস প্রণয়ন করেছি যার মাধ্যমে ইংরেজি সাহিত্যে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা বিশ্বায়নের এ যুগে নিত্যনতুন জ্ঞানের মাধ্যমে আলো ছড়াবেন আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে।’

x