আস্থা একাডেমি’র অনুষ্ঠান

জসিম উদ্দিন খান

বৃহস্পতিবার , ৯ আগস্ট, ২০১৮ at ৫:২৭ পূর্বাহ্ণ
3

২০১৬ সালের ২৬ জুলাই যখন আস্থা একাডেমি আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে, তখন সদ্য ঘটে যাওয়া গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গী হামলায় দেশবাসীর সাথে আমরাও স্তব্দ ছিলাম। আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত সচ্ছল পরিবারের কিছু বিপথগামী তরুণের সেই হামলায় প্রাণ হারায় বাংলাদেশ সহ বিশ্বের আরো কয়েকটি দেশের নাগরিক। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চৌকস অভিযানে জাতি সেদিন কলঙ্কমুক্ত হলেও ধর্মের অপব্যাখ্যার ফাঁদে পা দিয়ে তরুণ সমাজের এ অবক্ষয় সমাজের সকল শ্রেণির মানুষের জন্য ভাবনার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সেই ভাবনা থেকেই প্রতিষ্ঠা হয় আস্থা একাডেমি এবং শিল্পের একটি সমৃদ্ধ শাখা আবৃত্তিকে মাধ্যম হিসেবে নিয়ে যাত্রা শুরু করে। নিয়মিত সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রমিত উচ্চারণ শিক্ষা দেবার মিশন হাতে নেয় এই সংগঠন। এছাড়াও দলীয় ও একক পরিবেশনা নিয়ে বিভিন্ন দিবস সমূহে অপশক্তির বিরুদ্ধে আর মানবতার পক্ষে অবস্থান নিয়ে আসছে। এই পথচলা যদিও অতটা সহজ ছিলনা, তবুও তাদের একাগ্রতায় আর সকলের ভালোবাসায় দুই পেরিয়ে তিনে পা দিয়েছে আস্থা একাডেমি। তাদের স্বপ্ন হচ্ছে অসামপ্রদায়িক ও মানবিক সমাজের আর সকলকে সাথে নিয়ে সেই স্বপ্নের পথে সারথি হওয়া।

আস্থা একাডেমী ৩য় বর্ষ পদার্পণ উপলক্ষ্যে ‘কাব্য ছন্দে বর্ষা আনন্দে’ শীর্ষক শিরোনামে আবৃত্তি ও শ্রুতি সন্ধ্যা ২৭ জুলাই শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় হোটেল ফেভার ইন্টান্যাশনালে সংগঠনের সভাপতি সাহাব উদ্দিন মজুমদার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কথা সাহিত্যিক সৈয়দ মোহাম্মদ আবু দাউদ (বাদল সৈয়দ)। আবৃত্তি শিল্পী সাইমন শফিক ও নাহিদ নেওয়াজ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেনচট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানববিদ্যা অনুষদ এর ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সেকান্দর চৌধুরী। প্রধান বক্তা ছিলেনচট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের প্রফেসর ড. কুন্তল বড়ুয়া, আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেনচট্টগ্রাম জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এড. শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চট্টগ্রাম কর আইনজীবি সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক নিতাই চন্দ্র দাস, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক চারুশিল্পী তাসলিমা আক্তার বাঁধন, প্রত্যয় প্রবাসী কল্যাণ সংস্থার সাধারণ সম্পাদক লায়ন এম শফিউল আলম, ত্রিতরঙ্গ এর মহাসচিব শাওন পান্থ। বক্তারা বলেনসংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে তরুণ সমাজকে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ থেকে দূরে রাখা সম্ভব। শুধুমাত্র জিপিএ৫ পাওয়ার জন্য সন্তানদের উপর অভিভাবকরা যে হারে মানসিক চাপ সৃষ্টি করে এতে করে তারা তাদের সক্রিয়তা হারাচ্ছে। পাশ করছে ঠিকই, কিন্তু ক্রমাগত বিপদগামী হয়ে উঠছে। তাই কবিতা, সংগীত, নাটক, আবৃত্তি, লেখালেখি সহ সৃজনশীল কাজে তরুণ সমাজকে সম্পৃক্ত করতে পারলে আলোকিত সমাজ গঠন করা সম্ভব হবে।

অনুষ্ঠানে একক আবৃত্তি, গান, সংবর্ধনা, সম্মাননা, কর্মশালা সমাবর্তন, নৃত্য, শ্রুতি পরিবেশনা এবং আমন্ত্রিত আবৃত্তি শিল্পীদের আবৃত্তি পরিবেশন করা হয়। আস্থা একাডেমীর পক্ষ থেকে গীতিকার ও সাংস্কৃতিক সংগঠক আবছার উদ্দিন অলি’কে সম্মাননা এবং নাট্য শিল্পী মঈন উদ্দিন কোহেল, সংবাদ পাঠক জামিল আহমেদ চৌধুরী, আবৃত্তি শিল্পী নাজনীন হক, তাহমিনা মজুমদার’কে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত আবৃত্তি শিল্পী জামিল আহমেদ চৌধুরী, নাজনীন হক, সালমা জাহান ও হৈমন্তী শুক্লা মল্লিক, মনোয়ার হোসেন ও ফাতেমা ওয়াসিক সিমন। একক আবৃত্তি করেন সাহাব উদ্দিন মজুমদার, জাহাঙ্গীর আলম পাটওয়ারী, সাইমন শফিক তাহমিনা মজুমদার, নাহিদ নেওয়াজ, ফাহমিদা মজুমদার, সাদরে এলাহি পিয়াম, সাফওয়ান মুনতাসির, মাশুতরা মেহরীন স্নেহা। সংগীত পরিবেশন করেনমায়িশা মালিকা, নৃত্য পরিবেশন করেনসজিব সতেজ, লীজা দাস, শ্রুতি পরিবেশনা, দুজনে দেখা হলো, আবৃত্তি শিল্পী জামিল আহমেদ চৌধুরী ও নাজনীন হক, রচনা শাওন পান্থ, আবহ সুর মঈন উদ্দিন কোহেল, ছায়াচিত্র পরিচালনা সাইমন শফিক, প্রযোজনা আস্থা একাডেমী।

x