(আর -নয়- ধর্ষণ, হোক ধর্ষকের- মৃত্যু)

মর্জিনা হক চৌধুরী পপি

রবিবার , ২১ জুলাই, ২০১৯ at ৩:৩৫ পূর্বাহ্ণ
27

: যে দেশে সূর্যোদয় হয় শিশু,নারী, যুবতী, কিশোরীদের হত্যার খুনে রাঙা লালে।যে দেশে ধর্ষণ পান্তাভাতের মতো সহজপাচ্য, যে দেশে ক্ষমতার প্রভাব রাতকে দিন দিনকে রাত বানায় চোখের ইশারায়। সে দেশে সুস্থ সুন্দর ভাবে বেঁচে থাকাটা এখন দায়। প্রতিদিন পত্রিকার পাতায় ধর্ষণের খবর ঘটনা নিত্যকার সাধারণ একটি সংবাদ শিরোনাম। বছর পার না হওয়া শিশু ধর্ষণের শিকার হচ্ছে, শিকার হচ্ছে নিজেকে আবৃত করা নারীটিও।পোশাকের দোহাই এখানে একেবারেই খাটছে না। মসজিদ, মন্দির, বিদ্যাপীঠ কোথাও কন্যা শিশুটি আজ নিরাপদ নয়। মোল্লা, মৌলবি হতে শুরু করে পিতা, সর্বোচ্চ শিক্ষিত বলে উপসচিবের হাত হতেও রেহায় পায় না কন্যা শিশুটি। ধর্ষণের পর ঢেকে রাখতে ধর্ষণের শিকার মেয়েটিকে ধর্মীয় গ্রন্থ ছুঁয়ে কসম কাটানো হয় বেহেস্তের টিকেট দিবে বলে। কতটুকু নিচে নামলে এমন ভাবনা মনে আসে।
আমরা দর্শক তাই হয়ত ধর্ষকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে পারি না। পারি না একটু শান্তি মতে ঘুমুতে। প্রতিদিন আতঙ্কের মধ্যে দিনযাপন করতে হয়।কোথাও বের হলে কন্যা শিশুটির জন্য আতঙ্কিত হয়ে থাকতে হয়। আমার শিশুটি নিরাপদে আছে তো? ছোট্ট নীড়টিকেও আজকাল নিরাপদ মনে হয়না। এটা কী ধরনের শাস্তি পাচ্ছি মনে ? কন্যা শিশু জন্ম দিয়ে কি বাবা – মায়েরা অপরাধ করেছে? যে কিনা একটু শান্তিতেও ঘুমাতে পারছে না। সারাক্ষণ এক অজানা আতঙ্কে আতঙ্কিত হয়ে থাকতে হয়। যে শিশুটি জীবনের মানে কি বুঝতে শিখেনি অথচ তাকে কি না মেনে নিতে হয় এমন নির্মম মৃত্যু। মৃত্যুর আগে সহ্য করতে হলো পৃথিবীর নিকৃষ্টতম অত্যাচার। একটা বিকৃত রুচির নরপশু এই শিশুগুলোর শৈশব, কৈশোর সব কেড়ে নিলো। কি অপরাধ ছিলো ঐ শিশু গুলোর? যার জন্য তাকে এতো বড় শাস্তি পেতে হলো? কোথায় আজ মানবতা? মানবিকতা আজ লুণ্ঠিত, তাই আতঙ্কিত হয়ে দিনাতিপাত করাই আমাদের প্রাপ্য। আমরা কি পারি না ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি জনসম্মুখে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করাতে,যাতে ধর্ষক নামক পশুগুলোর মনে সে স্পৃহা কখনো জেগে না ওঠে। তাহলে বাঁচবে আমার কন্যাশিশুটি। আমি বিচলিত সেইসব অমানুষদের নিয়ে যারা সমাজে ভদ্র চেহেরার মুখোশ পরে ঘুরে বেড়াচ্ছে। কঠিন আইনের পাশাপাশি সমাজকে বুঝতে হবে মানতে হবে লজ্জা ধর্ষণের শিকার নারী বা শিশুর নয়, এই লজ্জা ধর্ষকের। তা না হলে সমাজে ধর্ষণের মত অপরাধ থামানো কঠিন হয়ে পড়বে। আর নয় ধর্ষণ, হোক ধর্ষকের মৃত্যু।

x