আরো ৭ বিষয়ে অনার্স কোর্স চালুতে মন্ত্রণালয়ের অনুমতি

চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ ।। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষা

রতন বড়ুয়া

শুক্রবার , ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৪:৪১ পূর্বাহ্ণ
556

চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজে মোট ৯টি বিষয়ে অনার্স (সম্মান) চালু রয়েছে। এই ৯টি বিষয়ে সহস্রাধিক ছাত্রী উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাচ্ছে এখানে। তবে মানবিক ও সমাজ বিজ্ঞানের এসব বিষয়ে অনার্স অধ্যয়নের সুযোগ থাকলেও বিজ্ঞান ও বাণিজ্যের একটি বিষয়েও উচ্চ শিক্ষার সুযোগ নেই চট্টগ্রাম শহরের একমাত্র সরকারি এই মহিলা কলেজে। এতে করে কলেজটিতে বিজ্ঞান ও বাণিজ্যের বিষয়গুলোতে অনার্স ও মাস্টার্স অধ্যয়নের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়ে আসছিল ছাত্রীরা। তবে দেরিতে হলেও সে-ই প্রতীক্ষার অবসানে আশার সঞ্চার হয়েছে। বিজ্ঞান ও বাণিজ্যের ৭টি বিষয়ে অনার্স চালুতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পেয়েছে কলেজটি। তবে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের পর এখন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতির অপেক্ষায় রয়েছে কলেজ প্রশাসন। কারণ, অনার্স কোর্স চালুতে চূড়ান্ত অনুমতি দিয়ে থাকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়।
কলেজ প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, কলেজ কর্তৃপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রথম দফায় বিজ্ঞান ও বাণিজ্যের দুটি করে মোট ৪টি বিষয়ে অনার্স চালুর অনুমতি দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। গত বছরের (২০১৮ সালের) ১৪ আগস্ট মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের উপসচিব মুর্শিদা শারমিন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বিজ্ঞানের উদ্ভিদবিজ্ঞান ও প্রাণীবিজ্ঞান এবং বাণিজ্য বিভাগের ব্যবস্থাপনা ও হিসাববিজ্ঞান বিষয়ে নতুন করে অনার্স চালুর অনুমতি দেওয়া হয়। তবে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের এক বছর পরও এই চার বিষয়ে অনার্স চালুতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি মেলেনি। এরইমধ্যে সমপ্রতি (চলতি বছরের ৭ আগস্ট) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মুর্শিদা শারমিনের স্বাক্ষরে জারিকৃত অপর এক আদেশে বিজ্ঞানের আরো তিনটি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালুর অনুমোদন দেয়া হয়েছে। বিজ্ঞানের এই তিনটি বিষয়ের মধ্যে রয়েছে রসায়ন, গণিত ও পদার্থবিদ্যা। সবমিলিয়ে বিজ্ঞানের ৫টি ও বাণিজ্যের ২টিসহ মোট ৭টি বিষয়ে অনার্স চালুর অনুমতি দিয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর চিঠি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। চিঠিতে কলেজের কর্মসংস্থানের সুবিধা, জনবল কাঠামো, অবকাঠামোসহ অন্যান্য সুবিধাদি বিবেচনা করে বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।
মন্ত্রণালয়ের অনুমতির পর এখন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতির অপেক্ষায় আছেন বলে জানালেন চট্টগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর স্বপন চৌধুরী। অধ্যক্ষ বলেন, অনুমতি প্রদানের প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে আগে কলেজ পরিদর্শন করা হবে। ওই পরিদর্শন রিপোর্টের ভিত্তিতে চূড়ান্ত অনুমতির বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সিদ্ধান্ত নেবে। তবে মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পাওয়ায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতিও পাওয়া যাবে আশাবাদ ব্যক্ত করে কলেজ অধ্যক্ষ বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি পাওয়া গেলে এখানে নারী শিক্ষার সুযোগ আরো তরান্বিত হবে। কলেজ প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে- বর্তমানে বাংলা, ইংরেজি, অর্থনীতি, দর্শন, রাস্ট্রবিজ্ঞান, ইসলামের ইতিহাস, সমাজ বিজ্ঞান, সমাজকর্ম ও মনোবিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স চালু রয়েছে কলেজটিতে। নতুন করে ৭টি বিষয়ের অনুমতি মিললে অনার্স বিষয়ের সংখ্যা ১৬টিতে উন্নীত হবে। আর নতুন এসব বিষয় চালু হলে আরো প্রায় এক হাজার ছাত্রী উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাবে কলেজটিতে। এদিকে, কলেজটিতে মাস্টার্স চালু রয়েছে মাত্র ৪টি বিষয়ে। বাংলা, অর্থনীতি, দর্শন ও ইসলামের ইতিহাস, এই চারটি বিষয়ে মাস্টার্স অধ্যয়নের সুযোগ রয়েছে ছাত্রীদের। অবশ্য, ইংরেজি, রাস্ট্রবিজ্ঞান, সমাজকর্ম, সমাজতত্ত্ব ও মনোবিজ্ঞান, এই ৫ বিষয়ে মাস্টার্স চালুকরণে মন্ত্রণালয়ে আবেদন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন অধ্যক্ষ প্রফেসর স্বপন চৌধুরী। এছাড়াও উচ্চ মাধ্যমিক ও ডিগ্রী (পাস কোর্স)সহ সবমিলিয়ে কলেজটিতে বর্তমানে প্রায় ৮ হাজার (৭ হাজার ৯৮১ জন) ছাত্রী অধ্যয়ন করছে। অন্যদিকে, মোট ৭২টি পদের বিপরীতে কলেজে বর্তমানে ৬৫ জন শিক্ষক কর্মরত আছেন। যদিও শিক্ষকের এই সংখ্যা অপর্যাপ্ত বলছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি- সময়ের সাথে সাথে বিষয় ও ছাত্রী সংখ্যা বাড়লেও জনবল বাড়েনি। ফলে দিনে দিনে শিক্ষক স্বল্পতা প্রকট আকার ধারণ করেছে।

x