আমরা সব দিক দিয়ে পাকিস্তানকে পরাজিত করে চলেছি

কামরুন মালেক লায়ন্স জেলার নতুন গভর্নর ।। লায়ন্স সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে কাজী আকরাম

আজাদী প্রতিবেদন

রবিবার , ১৪ এপ্রিল, ২০১৯ at ৬:৫৩ পূর্বাহ্ণ
341

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা এবং উৎসবমুখর পরিবেশে লায়ন্স ক্লাবস ইন্টারন্যাশনাল ডিস্ট্রিক ৩১৫-বি৪ এর দুইদিন ব্যাপী বার্ষিক কনভেনশন গতকাল শনিবার শেষ হয়েছে। নগরীর টাইপার পাশ মোড়স্থ নবনির্মিত নেভি কনভেনশন হলে ডেলিগেট সেশনে অনুষ্ঠিত ভোটে লায়ন্স গভর্নর (২০১৯-২০) হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন লায়ন কামরুন মালেক। চট্টগ্রামের ৬০ বছরেরও বেশি সময়ের লায়নিজমের ইতিহাসে এই প্রথম নারী গভর্নর নির্বাচিত হলেন। সম্মেলনে প্রথম ভাইস গভর্নর নির্বাচিত হন লায়ন ডাক্তার সুকান্ত ভট্টাচার্য এবং সেকেন্ড ভাইস গভর্নর নির্বাচিত হন লায়ন আল সাদাত দোভাষ (সাগর)। বিপুল সংখ্যক লায়ন সদস্যদের উপস্থিতিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সাবেক কেবিনেট সেক্রেটারি লায়ন মোহাম্মদ জাফরুল্লাহ চৌধুরী ফলাফল ঘোষণা করলে নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দকে বিপুলভাবে সংবর্ধিত করা হয়। নবনির্বাচিত গভর্নর লায়ন কামরুন মালেক আগামী সেবা বর্ষের জন্য কেবিনেট সেক্রেটারি হিসেবে লায়ন জি কে লালা এবং কেবিনেট ট্রেজারার হিসেবে লায়ন আশরাফুল আলম আরজুর নাম ঘোষণা করে ডিজি টিম গঠন করেন। এই টিমই বিশ্বের সেবার জগতে অনন্য সংগঠন লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের আগামী সেবা বর্ষে চট্টগ্রামে নেতৃত্ব দেবে।
অনুষ্ঠানের সমাপনী পর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের ডিরেক্টর (আইডি) কাজী আকরামউদ্দিন আহমেদ বলেন, লায়নিজমে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে আছে। এই অগ্রগতিতে বিভিন্ন দেশ এখন বাংলাদেশকে হিংসা করে। এফবিসিসিআইয়ের সাবেক এই সভাপতি আরো বলেন, বাংলাদেশে এক সময় লায়নের সংখ্যা ছিলো ৭ হাজার। সেই সংখ্যা এখন ২১ হাজারে উন্নীত হয়েছে। এই যেমন পাকিস্তানের কথা ধরুন, পাকিস্তান বড় দেশ, মানুষও বেশি। অথচ পাকিস্তানের লায়নের সংখ্যা ৯ হাজারের মতো। একাত্তরে যুদ্ধে পরাজয় করে ক্রমাগতভাবে আমরা সব দিক দিয়ে পাকিস্তানকে পরাজিত করতে চলেছি। অর্থনীতির সব সূচকে পাকিস্তানকে আমরা অনেক আগে অতিক্রম করেছি।
লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনাল জেলা ৩১৫-বি৪ এর গভর্নর নাসিরউদ্দিন চৌধুরী বলেন, গত একটি বছর আমাদের কল ছিলো- ‘ইন টাইম, ইন সার্ভিস’। আমাদের লায়নদের সময়ের প্রতি সচেতন করে তোলার জন্যই এই কলটি দিয়েছিলাম। তারা সময়ের প্রতি আগের চেয়ে অনেক বেশি সচেতন। আগামী ২০১৯-২০ সালের নব নির্বাচিত গভর্নর আমাকে কথা দিয়েছেন, তিনি আমার কলের ওপরই কাজ করবেন। তিনি যে করবেন, ইতোমধ্যেই আমি সেটি অনুধাবন করছি।
লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনাল জেলা ৩১৫-বি৪ এর নব নির্বাচিত গভর্নর (ইলেক্ট) লায়ন কামরুন মালেক বলেন, আমরা সামনের এক বছর কয়েকটি বিষয়ের ওপর গুরুত্ব আরোপ করতে চাই। প্রতিটি কর্মকাণ্ডে সকলের প্রত্যক্ষ পরোক্ষ সমর্থন এবং আলোচনা প্রত্যাশা করি। বিনিময়ে লায়নিজমের প্রাতিষ্ঠানিক বুনিয়াদ সুদৃঢ় প্রচেষ্টা থাকবে আমার। প্রথম জেলা গভর্নর (ইলেক্ট), দ্বিতীয় জেলা গর্ভনর (ইলেক্ট) এবং সাবেক গভর্নরদের সাথে রেখে কাজ করার প্রত্যাশা করি। আমরা লায়ন ভাই বোনেরা আমাদের যেতে হবে বহুদূর। আমি বিশ্বাস করি আমার পূর্বসূরীদের অনুসরণ, বর্তমানের সান্নিধ্য এবং আগামী দিনের স্বতস্ফূর্ত সমর্থনের পথ নিঃসন্দেহে আমার পথচলাকে করবে গতিময়। যোগ্য নেতৃত্ব তৈরিতে সুদূর প্রসারী চিন্তা চেতনার প্রতিফলন ঘটানোর আহ্বান জানাই সব লায়ন ভাই বোনদের প্রতি। আমি মনে করি হাসির মধ্যেই রয়েছে সব উপকরণ। আমাদের এক চিলতে হাসি বদলে দিতে পারে অনেক দুস্থের জীবন। এই জেলার লায়নদের নিয়ে নব উদ্যোমে আমি পাড়ি দিতে বিপন্ন মানবতার লক্ষ্যে হাসি ফোটানের লক্ষ্যে। আগামী এক বছর আমার কল- ‘সেবার তরে হাসি বা সার্ভ ফর স্মাইল’।
প্রথম জেলা গভর্নর (ইলেক্ট) ডা. সুকান্ত ভট্টাচার্য্য বলেন, লায়ন জেলা ৩১৫-বি৪ এর সকল লায়নদের সাথে আগামী এক বছর আমরা মতভেদ ভুলে কাজ করবো। বিগত দিনের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে আমি বদ্ধপরিকর। আশা করি এতে আমি সকলের সহায়তা পাবো।
দৈনিক আজাদী সম্পাদক এবং সাবেক লায়ন গর্ভনর এম এ মালেক বলেন, শ্রেষ্ঠ মনিষী বিজ্ঞানী আলভার্ট আইনস্টাইন এই নশ্বর পৃথিবীর একজনকে মানুষকে মূল্যায়নের বিষয়ে বলেছেন, দ্যা ভেল্যু অফ এ ম্যান শুড বি সিন ইন হুয়াট হি গিবস, অ্যান্ড নট ইন হুয়াট হি ইজ অ্যাবল টু রিসিভ। আসলে তাই, নেয়া বা গ্রহণের সক্ষমতা দিয়ে মানুষকে বিচার করা হয় না। বিচার করা হয়, মানবতার জন্য মানুষের কল্যাণে একজন মানুষ কি ছিলো কতটা ছিলো তা দিয়ে। এই জন্য পবিত্র ইসলাম ধর্মসহ সকল ধর্মে সুপ্রাচীনকাল থেকে মানবসেবা মানবতার ধর্মাচারণের অন্যতম অঙ্গ হিসেবে শিক্ষা দিয়েছে।
তিনি আরো বলেন, আর্তপীড়িত বঞ্চিত মানুষের প্রতিটি মানুষের দায়িত্ব ও কর্তব্যের কথা ভেবে আজ থেকে ১০২ বছর আগে জন্ম নেয় লায়ন্স ক্লাব। লায়ন্স মনে করে মানবতার সেবায় শুধু ব্যক্তির দায় নয়, সকলের। তাই যত বেশি মানুষ আর্তপীড়িত সুবিধা বঞ্চিত মানুষের জন্য সেবার ব্রত হিসেবে গ্রহণ করবে ততই সমাজ উপকৃত হবে। মানব কল্যাণের পথ প্রশস্ত হবে। আন্তর্জাতিক লায়ন্স আজ নিছক সমাজ সেবা এবং মানবতার সেবার মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। আন্দোলনে পরিণত হয়েছে। এই আন্দোলন হলো, লায়ন্স সদস্যরা নিজেরা মানবতার সেবায় নিয়োজিত থাকবেন, অন্যদের এই সেবায় উদ্ধুব্ধ করবেন, অনুপ্রাণিত করবেন।
অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনাল জেলা ৩১৫-বি৪ এর নবনির্বাচিত দ্বিতীয় জেলা গভর্নর (ইলেক্ট) লায়ন আল সাদাত দোভাষ, সদ্যপ্রাক্তন জেলা গভর্নর লায়ন মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু, কাউন্সিল চেয়ারপার্সন আমিনুল ইসলাম লিটন, স্বদেশ রঞ্জন সাহা, লায়ন্স ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান রেজাউল হক ঝুনু, প্রাক্তন গভর্নর লায়ন এ কাইয়ুম চৌধুরী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কনভেনশন চেয়ারম্যান লায়ন ওসমান গণি।
দ্বিতীয় দিনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানেও প্রাক্তন জেলা গভর্নরদের মধ্যে লায়ন ইঞ্জিনিয়ার এম আই খান, লায়ন শফিউর রহমান, লায়ন মোহাম্মদ সামসুল হক, লায়ন নাজমুল হক চৌধুরী, লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া, লায়ন পি আর সিনহা, লায়ন আলহাজ রফিক আহমেদ, লায়ন আনোয়ার শওকত আফছার, লায়ন ডা. শ্রী প্রকাশ বিশ্বাস, লায়ন কবির উদ্দিন ভুঁইয়া, এম লায়ন এ.এস. এম ইসহাক, লায়ন শাহ এম হাছান, লায়ন এমডি নুরুল ইসলাম, লায়ন প্রফেসর এমডি. এম কামাল উদ্দিন, লায়ন লায়ন এস এম সামসুদ্দিন, লায়ন সিরাজুল হক আনছারী, লায়ন মোস্তাক হোসাইন, লায়ন শাহ আলম বাবুল উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া কেবিনেট সেক্রেটারি লায়ন জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী কেবিনেট ট্রেজারার লায়ন মোসলেহউদ্দিন খান, ২২তম কনভেনশন চেয়ারম্যান লায়ন ওসমান গণি, কনভেনশন সেক্রেটারী ও জেলা জয়েন্ট সেক্রেটারী লায়ন আশরাফুল আলম আরজু, কনভেনশন ট্রেজারার লায়ন আবু বক্কর সিদ্দিকী উপস্থিত ছিলেন।

x