আফগানিস্তান যেখানে অস্ট্রেলিয়ার কাতারে

ক্রীড়া প্রতিবেদক

মঙ্গলবার , ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ৬:৩৭ পূর্বাহ্ণ
37

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সেরা আফগানিস্তান। ক্রিকেটের এই সংক্ষিপ্ত ভার্সনে র‌্যাংকিংয়ে তারা অনেক উপরে। ওয়ানডে ক্রিকেটাও মন্দ খেলেনা আফগানরা। মাঝে মধ্যে ছোবল মারে বড় দল গুলোকে। তাই বলে মাত্র তৃতীয় টেস্ট খেলতে নামা দলটির এ কেমন রূপ। গতকাল চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশকে লজ্জায় ডুবিয়ে নিজেদের অস্ট্রেলিয়ার কাতারে নিয়ে গেল আফগানরা। মাত্র তিন টেস্ট খেরতে নেমে দুটি জয় তুলে নিয়েছে আফগানরা। যেখানে অস্ট্রেলিয়া তাদের দ্বিতীয় জয় পেয়েছিল তিন টেস্টে খেলতে নেমেই। সে হিসেবে অস্ট্রেলিয়া এবং আফগানিস্তান যেন একই কাতারে। বাংলাদেশকে হারিয়ে ঐতিহাসিক জয় পেয়েছে আফগানিস্তান। শুধু তাই নয় চট্টগ্রাম টেস্ট যেন দু’হাত ভরে দিয়েছে আফগানদের। তেমনি দু’হাত ভরে দিয়েছে দলটির অধিনায়ক রশিদ খানকেও। এবার ইতিহাসে সর্ব কনিষ্ঠ অধিনায়ক হিসেবে টেস্ট জিতলেন তিনি। ২০ বছর বয়সে অধিনায়ক হিসেবে অভিষেকেই টেস্ট জয়ের রেকর্ড গড়লেন রশিদ।
চট্টগ্রাম টেস্টে প্রথম ইনিংসে দারুন এক হাফ সেঞ্চুরি করার পাশাপাশি নিয়েছিলেন ৫ উইকেট । আর দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেট নিয়েছেন বিশ্ব সেরা লেগ স্পিনার রশিদ খান। টেস্টে অধিনায়ক হিসেবে অভিষেকে ১০ উইকেট সঙ্গে হাফ সেঞ্চুরি করার কীর্তি নেই আর কোন ক্রিকেটারের। ম্যান অব দ্য ম্যাচও ওঠেছে রশিদের হাতে। এছাড়া টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় দল হিসেবে তৃতীয় ম্যাচ এসে দ্বিতীয় জয় তুলে নিল আফগানিস্তান। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে তারা হারায় আয়ারল্যান্ডকে। বাংলাদেশকে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ১৪০ বছরের পুরোনো রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছে আফগানরা। প্রথম কোনো দল হিসেবে প্রথম টেস্টেই জয় পেয়েছিল অসিরা। সেটা ১৮৭৭ সালে। এরপর ১৮৭৯ সালে এসে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে খেলতে নেমে দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। অপরদিকে ভারতের বিপক্ষে অভিষেক টেস্টে আফগানরা একেবারে বাজে ভাবে হারলেও দ্বিতীয় টেস্টে একই সাথে টেস্ট মর্যাদা পাওয়া আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে নিজেদের প্রথম টেস্ট জয়ের স্বাদ নিয়েছিল আফগানিস্তান। তবে তৃতীয় ম্যাচে এসেএই যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটি দিল সবচাইতে বড় চমক। হারিয়ে দিল বাংলাদেশের মত ১১৫ টেস্ট খেলা দলকে। তাও যেনতেন হারানো নয়। একেবারে উড়িয়ে দিয়েছে। ১৮৭৭ সালে ইতিহাসের প্রথশ টেস্টে ইংল্যান্ডকে হারিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু পরের টেস্টে হেরে বসে তারা। ১৮৭৯ সালে এসে তৃতীয় ম্যাচে সেই ইংল্যান্ডকে আবার পরাজিত করে অস্ট্রেলিয়া। তুলে নেয় দ্বিতীয় জয়। একই সমান ম্যাচ খেলে আফগানরা তুলে নিয়েছে দ্বিতীয় জয়। তবে তাদের জয় দুটি টানা। যেখানে ইংল্যান্ড দ্বিতীয় জয় পেয়েছিল চতুর্থ ম্যাচে এসে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় জয় পেয়েছিল ১২ ম্যাচে এসে। দক্ষিণ আফ্রিতা ১৩ তম ম্যাচে এসে পেয়েছিল দ্বিতীয় জয়ের দেখা। শ্রীলংকা ২০ তম ম্যাচে এসে পেয়েছিল দ্বিতীয় জয়। ভারতকে দ্বিতীয় জয় পেতে খেলতে হয়েছিল ৩০ ম্যাচ। জিম্বাবুয়ে দ্বিতীয় জয় পেয়েছিল ৩১ ম্যাচে এসে। সেদিক থেকে বেশ পিছিয়ে ছিল নিউজিল্যান্ড। তারা ৫৫ তম ম্যাচে এসে জিতেছিল দ্বিতীয় ম্যাচটি। আর বাংলাদেশকে দ্বিতীয় জয় পেতে খেলতে হয়েছিল ৬০টি ম্যাচ।

x