আনোয়ারায় বোরো চাষ শুরু

উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ২ হাজার ৬শ মেট্রিক টন

এম.নুরুল ইসলাম, আনোয়ারা

মঙ্গলবার , ২২ জানুয়ারি, ২০১৯ at ৫:৫৬ পূর্বাহ্ণ
59

আনোয়ারায় ২ হাজার ৬ শ মেট্রিক টন খাদ্যশস্য উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে ৬ হাজার ৩শ হেক্টর জমিতে বোরো চাষ শুরু হয়েছে। উপজেলার ১১ ইউনিয়নের কৃষক পরিবার কৃষি জমিতে সেচ নিড়ানী ও বীজ রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছে। আনোয়ারা উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, উপজেলার ১১ ইউনিয়নে ৯৫০ হেক্টর জমিতে হাইব্রিড ও ৫২৫০ হেক্টর জমিতে উপশী চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরও ৩৩টি বিদ্যুৎ চালিত ও ৪২৫টি ডিজেল চালিত অগভরি সেচ প্রকল্প, ৭৫টি বিদ্যুৎ চালিত ও ৫৮টি ডিজেল চালিত এলএলপি সেচ প্রকল্প, অন্যান্য ২১০টি সহ মোট ৮০২ টি সেচ প্রকল্প বসানোর কাজ চলছে। কৃষি অফিস সূত্রে আরো জানা যায়, উপজেলার বৈরাগ ইউনিয়নের ১০০ হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৫২০ হেক্টর জমিতে উপশী, বারশত ইউনিয়নের ৩৫ হেক্টর হাইব্রিড ৪৭৫ হেক্টর জমিতে উপশী, রায়পুর ইউনিয়নে ৫ হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৮০ হেক্টর জমিতে উপশী, বটতলীতে ১৫৫ হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৪৭০ হেক্টর জমিতে উপশী, বরুমচড়ায় ১২০ হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৫৩৫ হেক্টর জমিতে উপশী, বারখাইন ইউনিয়নে ৯০হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৭৪০ হেক্টর জমিতে উপশী, আনোয়ারা সদর ইউনিয়নে ১০৫হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৩৩৫ হেক্টর জমিতে উপশী, চাতরী ইউনিয়নে ১৫০হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৪৮০ হেক্টর জমিতে উপশী, পরৈকোড়ায় ৫০হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৩৬৫ হেক্টর জমিতে উপশী, হাইলধরে ৯৫হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৭৮০ হেক্টর জমিতে উপশী ও জুইদন্ডী ইউনিয়নে ৫৫হেক্টর জমিতে হাইব্রিড, ৪৭০ হেক্টর জমিতে উপশী সহ মোট ৬ হাজার ৩ শ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।
সরেজমিনে গতকাল সোমবার সকালে উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নের শোলকাটা, দক্ষিণ তৈলারদ্বীপ, বারখাইন, বরুমচড়া ইউনিয়নের পশ্চিম বরুমচড়া, দীঘির পাড়, নলদিয়া, বটতলীর আইরমঙ্গল সহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে কৃষকদের মাঠে নিড়ানী-সেচ ও বীজ রোপণে ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা গেছে। শোলকাটা গ্রামের বাসিন্দা মোঃ মহিউদ্দিন জানায়, চলতি মৌসুমে ১ একর জমিতে বোরো চাষের পরিকল্পনা নিয়ে তিনি কাজ শুরু করেছেন। ইতিমধ্যে ৪০ শতক জমিতে তিনি বীজ রোপণ করেছেন। ধানপুরা এলাকায় আলাপ হয় শিলাইগড়া গ্রামের কৃষক মোস্তাক আহমদের সাথে। তিনি জানান, দৈনিক ৫০০ টাকা মজুরীতে ৪ জন লোক গত এক সপ্তাহ ধরে জমিতে বীজ রোপণের কাজ করছে। ২ একর জমিতে তার বোরো চাষের পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানায়। তাছাড়া বটতলী, জুইদন্ডী, বারশত, রায়পুর, চাতরী, পরৈকোড়া, হাইলধর, আনোয়ারায় বোরো চাষ শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে।
আনোয়ারা পল্লী বিদ্যুতের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার আখতার হোসেন জানায় বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বিদ্যুতের কোন ঘাটতি হবেনা। ইতিমধ্যে সেচ প্রকল্পগুলোতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আশা করছি সব প্রকল্পে বিদ্যুৎ সংযোগ কাজ শেষ হবে।আনোয়ারা উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ হাছানুজ্জামান আজাদীকে জানান, ২ হাজার ৬ শ মেট্রিক টন খাদ্য শস্য উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে বোরো চাষ শুরু হয়েছে। তার মধ্যে ৯৫০ হেক্টর জমিতে হাইব্রিড ও ৫২৫০ হেক্টর জমিতে উপশী চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

x