‘আধুনিকতার অগ্রযাত্রায় বিকল্প বিদ্যুৎ-সোনার প্যানেল’

বুধবার , ১১ জুলাই, ২০১৮ at ১২:৫৩ অপরাহ্ণ
70

একসময় ভয়াবহ বিদ্যুৎ সংকট মোকাবেলা করছে বাংলাদেশ। অনবায়নযোগ্য জ্বালানি বিশেষ করে গ্যাস সংকটের কারণে বিদ্যুৎ সংকট আরও তীব্র আকার ধারণ করেছিল। বিদ্যুতের উৎপাদন বাড়াতে সরকারিভাবে বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে সেগুলোর ফল পেতে শুরু করেছে দেশের জনগণ। বিদ্যুৎ বিপ্লরে চূড়ান্ত সাফল্য অর্জনে হয়তো আর কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে। এক্ষেত্রে বিদ্যুৎ বিপ্লবে জন্য অনবায়নযোগ্য জ্বালানির মধ্যে সৌরবিদ্যুৎ একটি বড় ভূমিকা পালন করতে পারে।

বাংলাদেশে বছরে গড়ে ২৫০ থেকে ৩০০ দিন সূর্যালোক থাকে। প্রতিদিন প্রায় পাঁচ কিলোওয়াট ঘণ্টা শক্তি এদেশের প্রতি বর্গমিটার জমিতে আচড়ে পড়ছে। ভূপতিত এই সৌরশক্তির মাত্র ০.০৭% শক্তিতে রূপান্তর করা গেলেই বাংলাদেশের সব বিদ্যুেেতর চাহিদা মিটিয়ে ফেলা সম্ভব হবে।

সমপ্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন, ২৮০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্য স্থির করেছে তাঁর সরকার। ইতোমধ্যে এরই ধারাবাহিকতায় সংসদ সদস্য সাবিহা নাহার বেগম সৌর বিদ্যুতের ব্যবহারে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের পাশাপশি চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংক লিঃকে ১২০০ওয়াট সমৃদ্ধ একটি সোলার সিস্টেম মঞ্জুরি প্রদান করেছেন। এস এম আহসানুল কবীর চৌধুরী (টিটু) এর সহায়তায় সোলার প্যানেল ও আইপিএস সেটআপ করা হয়। সাংসদ সাবিহা নাহার বেগম মঞ্জুরীকৃত সোলার প্যানেলটি গত ৫ জুলাই যৌথভাবে উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম বিভাগের যুগ্মনিবন্ধক দিদার উদ্দিন আহ্‌মেদ এবং ব্যাংকের চেয়ারম্যান এ এম এম সাহাবুদ্দিন। উদ্বোধনী সভায় উপস্থি ছিলেন জেলা সমবায় অফিসার, চট্টগ্রামশেখ কামাল হোসেন, উপনিবন্ধক আশীষ কুমার বড়ুয়া, ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, পরিচালক মোঃ মোজাম্মেল হক, আনোয়ারুল ইসলাম এবং রোখসানা চৌধুরীসহ জেলা সমবায় কার্যালয়ের উপ সহকারী নিবন্ধক এবং মেট্রোপলিটন থানা সমবায় অফিসারবৃন্দ। সভা সঞ্চালনা করেন ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিজয় কৃষ্ণ নাথ। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম সমবায় বিভাগের যুগ্মনিবন্ধক দিদার উদ্দিন আহ্‌মেদ ব্যাংকের কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং উপস্থিত সকলকে বিদ্যুৎ ব্যবহারে মিতব্যায়ী হওয়ার পরামর্শ দেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

x