আজাদী আমার বন্ধু

মঙ্গলবার , ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ at ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ
28

আজাদী আমার বড় বন্ধু। আমার প্রিয় পত্রিকা। সেই ছোটকাল থেকে তার সাথে গভীরভাবে সম্পর্কিত। আজাদীও আমি প্রায় সমবয়স্ক। একই সময়ে আমাদের জন্ম। তার সাথে পরিচয় আমার দাদা মিঞার মাধ্যমে। দাদা আজাদী পত্রিকার নিয়মিত গ্রাহক। ডাকযোগে তখন মফস্বলে পত্রিকা পেত। তিন দিন পর সেই পত্রিকা পাঠ করা হত। তখন পত্রিকা বলতে বুঝতাম আজাদী পত্রিকা। ছোটকালে আমি আজাদী দেখতাম পড়ার জন্য নয়, ডাকযোগে প্রাপ্ত আজাদীতে ৫ (পাঁচ) পয়সার ডাক টিকেট থাকতো, উদ্দেশ্য সেই ডাক টিকেট সংগ্রহ করা। কালের আবর্তে দাদা মারা গেলেন। আমিও বড় হয়েছি। ১৯৮০ সালে দাদার মৃত্যুর পর সেই আজাদী ধরেছি পড়ার জন্য আর ছাড়িনি। আজাদী আমার সমবয়স্ক বন্ধু হিসেবে সকালে ঘুম থেকে উঠে তার দেখা না পেলে মনটা খারাপ হয়ে যায়। মাঝে মধ্যে আজাদীর চিঠিপত্র কলামে লিখি। আমার সাথে আমার স্ত্রী ও মেয়েরা আজাদী পড়তে অভ্যস্ত হয়ে গেছে। আমি হয়তো বেঁচে থাকবো না, কিন্তু আজাদী থেকেই যাবে যুগ যুগান্তরে।
ভালবাসি আজাদীকে, দোয়া করি এবং আদেশ দিয়ে রেখেছি আমার পরিবারকে যেন আজাদী না ছাড়ে।
সশ্রদ্ধ সালাম আজাদী পরিবারের প্রতি।
– মুহাম্মদ হামিদ আলী চৌধুরী, ‘মাতৃনিবাস’
রসুলবাগ আবাসিক এলাকা, বাকলিয়া।

x