আজকের কাজটা সঠিকভাবে করা গেলে আগামী দিন হবে সুন্দর ও উজ্জ্বল

মহামুনি তরুণ সংঘের বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে এম এ মালেক

রাউজান প্রতিনিধি

মঙ্গলবার , ১৬ এপ্রিল, ২০১৯ at ৬:৩৩ পূর্বাহ্ণ
41

দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক বলেছেন, আজকের বাস্তবতার উপর আমাদের দাঁড়াতে হবে। আজকের কাজটা যদি আমারা সঠিকভাবে সম্পাদন করতে পারি তাহলে সুন্দর হবে আগামী দিনগুলো, ভবিষ্যত হবে উজ্জ্বল। তিনি গতকাল রাতে রাউজানের মহামুনি গ্রামের প্রাচীন সংগঠন তরুণ সংঘ আয়োজিত বর্ষবরণ ও ড. বেণীমাধব স্মৃতি তর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখছিলেন। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন প্রাক্তন লায়ন্স জেলা গভর্নর লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া। অনুষ্ঠানে সদ্য নির্বাচিত লায়ন্স জেলা গভর্নর কামরুন মালেককে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।
প্রধান অতিথি এম এ মালেক বলেন, সমাজ থেকে অপরাধ প্রবণতা দূর করা এবং অপসংস্কৃতি রোধে ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করতে হবে। এটা করতে ব্যর্থ হলে আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে অনিরাপদ অবস্থার দিকে ঠেলে দেয়া হবে। তিনি বলেন, মানুষ হিসাবে নিজেদের পরিচিত করতে হলে মানবিক হতে হবে। সমাজের দুস্থ মানুষের সুখ দুখের সাথী হয়ে তাদের কল্যাণে কাজ করতে হবে।
সংবর্ধিত অতিথি কামরুন মালেক বলেন, কর্মক্ষেত্রে নারী পুরুষের মধ্যে কোনো ভেদাভেদ রাখা উচিত নয়। কর্মে নিয়োজিত সকলেই পরিচয় মানুষ হিসাবে। তিনি লায়নিজমের নীতি ও আদর্শ ব্যাখ্যা করে বলেন, মানবতা ও দুস্থ মানুষের সেবাই এই প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য। এই লক্ষ্য নিয়ে দুর্গত মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে কাজ করে যাচ্ছে লায়ন্স ক্লাব। তিনি বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা, নারী নির্যাতন, মাদকের অভিশাপ এখন দেশে ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। এ তিন অভিশাপ থেকে সমাজ ও দেশকে রক্ষায় অঞ্চল ভিত্তিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। সচেতন মানুষকে নিয়ে জনপ্রতিনিধিরা এ কাজে এগিয়ে এলে দেশ জাতি এ তিন অভিশাপ থেকে মুক্তি পাবে, আগামী প্রজন্মকেও নিরাপদ করা যাবে। তিনি লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়ার মানবিক কর্মকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে বলেন, মানবতাবাদী এই মানুষটির উদ্যোগে শত শত অনাথ ছেলেমেয়ে এখন নিরাপদ আশ্রয় পেয়েছে। জীবন গঠনের সুযোগ পেয়েছে।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধক লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া বলেন, এ অঞ্চলে লায়ন্স ক্লাবের ইতিহাসে আমরা প্রথমবারের মত নারী গভর্নর পেয়েছি। কামরুন মালেকের মাধ্যমে একটি ইতিহাস রচিত হয়েছে। তার মেধা ও কর্মকাণ্ডে লায়ন্সের সেবাদান কর্মসূচি আরো সমৃদ্ধ ও গতিশীল হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। মহামুনি বৌদ্ধ মন্দিরের মাঠে আয়োজিত এ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রাজেশ মুৎসুদ্দি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন রম্য লেখক সত্যব্রত বড়ুয়া, পাহাড়তলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রোকন উদ্দিন, মহামুনি এ্যাংলো পালি স্কুলের প্রধান শিক্ষক অঞ্জন বড়ুয়া। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মহামুনি উন্নয়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার বড়ুয়া। অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন মহামুনি সংস্কৃতিক সংঘের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুজিত বড়ুয়া, স্বপ্না বড়ুয়া। প্রতিবেদন পাঠ করেন তরুণ সংঘের সাধারণ সম্পাদক প্রসুন বড়ুয়া। অনুষ্ঠানে বর্ণাঢ্য সাংস্কতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয় গ্রামের বিভিন্ন সংগঠনের ছেলে মেয়েরা।

x