আকর্ষণ জাগাচ্ছে ঈদের অনুষ্ঠানের ট্রেলার

২২ শে শ্রাবণ নিয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজন

আয়শা আদৃতা

বৃহস্পতিবার , ৮ আগস্ট, ২০১৯ at ৪:১৯ পূর্বাহ্ণ
8

ঈদ অনুষ্ঠানের ট্রেলার প্রচারিত হচ্ছে প্রতিদিন। কয়েক মাস আগে থেকে অনুষ্ঠানের ট্রেলার প্রচার শুরু হয়েছে। এটা বেশ ভালো উদ্যোগ। ট্রেলার দেখে অনুষ্ঠান সম্পর্কে আঁচ করা যায়। ট্রেলার দেখে বোঝা যাচ্ছে, এবারের ঈদকে ঘিরে বেশ অনুষ্ঠান নির্মাণ করা হয়েছে। যেখানে রয়েছে শিশুতোষ অনুষ্ঠান, ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান, সঙ্গীতানুষ্ঠান, ব্যান্ড শো, কাওয়ালি, নাটকসহ অন্যান্য অনুষ্ঠান। সকালের সূর্য দেখেই নাকি বোঝা যায় দিন কেমন যাবে, এ ক্ষেত্রেও যদি তেমন হয় তবে তা বেশ ভালোই হবে। কেননা, ট্রেলার দেখে এ পর্যন্ত অনুষ্ঠানগুলো বেশ আনন্দদায়ক হবে বলেই মনে হচ্ছে। এখন শেষ পর্যন্ত দেখার অপেক্ষা। বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের ঈদ যেন আনন্দময় হয় সেটাই প্রত্যাশা। বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে নিজস্ব নাটক প্রচারের ব্যাপারে একাধিকবার আলোচনা করা হয়েছে। এবারের ট্রেলারে নাটকের দৃশ্যও দেখা গেছে। ভালো মন্দ যাই হোক, নিজস্ব নাটক প্রচারের ধারা শুরু হচ্ছে সেটি নিঃসন্দেহে ভালো দিক। একইসাথে এটাও আশা করবো, ‘প্যাকেজ’ নির্মাতাদের হাতে পড়ে যেন অঙ্কুরেই নষ্ট না হয়ে যায় নাটক দেখার আশা। কারণ, ইউটিউব এবং ফেসবুকে এরকম হাজারো নাটক-সিনেমা নির্মাতার অভাব নেই। তাই তাদের হাতে যদি বিটিভির নাটক নির্মাণের দায়িত্ব চলে যায় তাহলে তার চেয়ে হতাশার আর কিছুই হবে না। দীর্ঘদিন যারা পরিচ্ছন্ন নাটক নির্মাণের সাথে জড়িত তাদেরই যেন এখানে সুযোগ দেয়া হয় সেটিই কাম্য।
প্রতিসপ্তাহে দুই থেকে তিনটি ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান প্রচার করা হয় বিটিভি চট্টগ্রামে। ঈদেও ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানের ট্রেলার প্রচার করা হচ্ছে। গৎবাঁধা আর জোর করে হাসানোর চেষ্টা মার্কা যেসব ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান তা শুধুই দর্শক বিরক্তি তৈরি করে। ব্যতিক্রম কিছু তৈরি হলে সেটাই দর্শক সহজে গ্রহণ করে। চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় একটি ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান প্রচার হতো আগে, ঈদেও কোনো একটি অনুষ্ঠান পুরোটাই চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষায় হলে দর্শকরা আনন্দ পাবে বলে আশা করা যায়।
২২ শে শ্রাবণ রবীন্দ্র প্রয়াণবার্ষিকী উপলক্ষে বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠান প্রচার করা হয়েছে। কবিতায়, নাচে-গানে, আলোচনায় স্মরণ করা হয়েছে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে। বিটিভি আর্কাইভ থেকে দেখানো হয়েছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রশংসিত নাটক ‘হৈমন্তী’। ২২ শে শ্রাবণ উপলক্ষে আহমাদ রিয়াজের প্রযোজনায় প্রচারিত হয়েছে ‘হঠাৎ দেখা’। রবীন্দ্রনাথের অন্যতম জনপ্রিয় এবং বহুবার পঠিত একটি কবিতা হঠাৎ দেখা।
পল্লীগীতির অনুষ্ঠান মাটির গান এবারের পর্বে চমৎকার পরিবেশনা ছিল। পল্লী সুরে গায়কিটা উপভোগ কার গেছে। গিরিজা রাজবর, নিতাই চন্দ্র রায়, শ্রীমা দেওয়ানজি, ছবি দাশ বর্মন ও রতন সরকারের কণ্ঠে পল্লীগান।

x