অভিজ্ঞতার অভাবকেই ব্যর্থতার কারণ হিসেবে দেখছেন রাহি

স্পোর্টস ডেস্ক

শুক্রবার , ১৫ মার্চ, ২০১৯ at ১০:৫৮ পূর্বাহ্ণ
29

নিউজিল্যান্ড সফরটা যেন ব্যর্থতার বড় এক বিজ্ঞাপনে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশের জন্য। পুরো নিউজিল্যান্ড সফরেই এক-দুইজন ছাড়া বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা একেবারেই ব্যর্থ। পাশাপাশি বোলাররাও নিজেদের প্রমাণ করতে পারেননি। বিশেষ করে টেস্টে পেসাররা যারপরনাই ব্যর্থ। আর এই ব্যর্থতার পেছনে কারণ হিসেবে উঠেছে অভিজ্ঞতার অভাব। এমনটা জানাচ্ছেন টাইগার পেসার আবু জায়েদ রাহি। যদিও নিউজিল্যান্ডের মত কন্ডিশনে ভাল কিছু করার লক্ষযে পেসারদের নিয়ে গিয়েছিল বাংলাদশ। কিন্তু প্রতিপক্ষ পেসাররা প্রতিযোগিতা দিয়ে উইকেট নিলেও বাংলাদেশের পেসাররা প্রতিযোগিতা দিয়েছে রান দেওয়ার বেলায়। একই পরিণতি বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদেগর বেলায়ও। তামিম, মাহমুদুলস্নাহ কিংবা একটি সেঞ্চুরি করা সৌম্য সরকারে কথা বাদ দিলে বাকিরা সবাই রানের জন্য মাথা কুড়ে মরেছে।
বাংলাদেশ দলে থাকা পেসারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি অভিজ্ঞতা মোস্তাফিজুর রহমানের। দলের পেস বোলিংয়ে নেতৃত্ব দেওয়ার কথা তার। কারন তিনি ছিলেন দলের সবচাইতে বড় ভলসা। আর এই অভিজ্ঞ পেসার খেলেছেন সর্ব সাকুল্যে ১৩টি টেস্ট। বাকিদের মধ্যে আবু জায়েদ চৌধুরী রাহি খেলেছেন ৫টি। বাকি দুই পেসার এবাদত হোসেন ও খালেদ আহমেদ খেলেছেন মাত্র ২টি করে টেস্ট। সংগত কারণেই নিউজিল্যান্ডের মাটিতে অভিজ্ঞতার অভাবকেই ব্যর্থতার প্রধান কারণ মানছেন রাহি। তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম দুটিতেই ইনিংস ব্যবধানে হেরে এরই মধ্যে সিরিজ হাতছাড়া করেছে টাইগাররা। এমন কঠিন এক পরিস্থিতিতে তৃতীয় টেস্টের আগে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন রাহি। তিনি বলেন, আমাদের যে সব পেস বোলার খেলছে তাদের মধ্যে মোস্তাফিজ শুধু ১৩টি ম্যাচ খেলেছে। আমার কাছে মনে হয় যে আমাদের আরও বেশি অভিজ্ঞ হওয়া উচিত । আর সে জন্য আমাদের আরও বেশি করে খেলানো উচিত। অন্যান্য দেশের যে বোলাররা রয়েছে আপনারা দেখেন তারা অনেকেই অনেকগুলো টেস্ট খেলেছে। আমি মনে করি আমাদেরও অনেক টেস্ট খেলা উচিত। আর বেশি টেস্ট খেলতে পারলে আমরা নিজেদের পরিপক্ক করে তুলতে পারব।
রাহি বলেন টেস্ট ক্রিকেটটাকে বুঝতে হলে আরও বেশি ম্যাচ খেলতে হবে। বেশি বেশি ম্যাচ খেলার কোন বিকল্প নেই। কারণ টেস্ট ক্রিকেটটা এমন এখানে মানসিক দৃঢ়তাটা খুব বেশি দরকার। আর এমনটাই ভাবনা তরুণ রাহির। তার মতে টেস্টে ভালো করতে হলে অভিজ্ঞতা ছাড়া কোনো পথই নেই। টেস্ট খেলাটা হলো অভিজ্ঞতার ব্যাপার। আপনি যতো বেশি টেস্ট খেলবেন তত বেশি আপনার অভিজ্ঞতা হবে। আপনি তত বেশি বুঝতে পারবেন টেস্ট ক্রিকেটটা কেমন। আমার কাছে মনে হয় যে আমাদের অনেক টেস্ট খেলা উচিত। রাহি বলেন দলের পেস বোলিং কোচ ওয়ালশের সঙ্গে কথা বলেছি। আরও কাজ করতে হবে। রাহিহ জানান দেশের চাইতে এখানে সুইং বেশি পাচ্ছেন তারা । এটাও একটা ভালো দিক হিসেবে দেখছেন তরুণ এই পেসার। পাশাপাশি নিউজিল্যান্ডের পেসার টিম সাউদির বাবল বলটাও শেখার চেষ্টা করছেন বলে জানান রাহি। সিরিজের পর সাউদির সঙ্গে এ বোলিংটা নিয়ে কথা বলবেন বলেও জানালেন রাহি। তবে সবার আগে বেশি বেশি টেস্ট খেলার উপর গুরুত্ব দিলেন রাহি। তিনি বলেন আমাদের ম্যাচ টেম্পারম্যান্ট আনতে হলে অবশ্য আরো বেশি টেস্ট খেলতে হবে। লম্বা সময় ধরে আমাদের খেলায় থাকতে হবে। যত বেশি অভিজ্ঞতা অর্জিত হবে তত বেশি ভাল করার সম্ভবনা দেখছেন আবু জায়েদ রাহি। আগামীকাল ১৬ মার্চ শনিবার ক্রাইস্টচার্চে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টে মুখোমুখি হবে দু’দল।

x